অর্থপাচারের অভিযোগে ভারতে মন্ত্রী গ্রেপ্তার, ভেঙে পড়লেন কান্নায়

ঠিকানা অনলাইন : অর্থপাচারের অভিযোগে ভারতের তামিলনাড়ুর মন্ত্রী ও ডিএমকে পার্টির নেতা সেন্থিল বালাজিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারের পরে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় তাকে প্রচুর কাঁদতে দেখা যায়।

১৩ জুন (মঙ্গলবার) বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বালাজিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যায় ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। এর কয়েক ঘণ্টা পর আজ ১৪ জুন (বুধবার) সকালে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন বলছে, গ্রেপ্তারের পর তদন্তকারী সংস্থা যখন বালাজিকে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য নিয়ে যায়, তখন চেন্নাইয়ের একটি সরকারি হাসপাতালে নাটকীয় দৃশ্য দেখা যায়। ডিএমকে নেতাকে অ্যাম্বুলেন্সে প্রচুর কাঁদতে দেখা যায়, যখন তার সমর্থকরা বাইরে ইডির বিরুদ্ধে স্লোগান দেয়। কান্নাকাটি করতে থাকায় মন্ত্রীকে অ্যাম্বুলেন্স থেকে বের করে আনা হয়।

ডিএমকের সংসদ সদস্য ও আইনজীবী এনআর ইলাঙ্গো জানিয়েছেন, বালাজিকে হাসপাতালের আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে। ইডি তাকে গ্রেপ্তার করেছে কি না পার্টি সেটি স্পষ্ট নয়। গ্রেপ্তারের কোন নির্দেশিকা অনুসরণ করা হয়নি বলেও অভিযোগ তার।

তিনি আরও বলেন, আমি বালাজিকে আইসিইউতে স্থানান্তরিত করার সময় দেখেছিলাম। চিকিৎসকরা তার শারীরিক অবস্থা দেখছেন। তাকে যদি আক্রমণ করা হয়ে থাকে, ডাক্তারকে সমস্ত আঘাত নোট করতে হবে এবং প্রতিবেদন দেখার পরে জানতে হবে। আনুষ্ঠানিকভাবে আমাদের ইডির পক্ষ থেকে জানানো হয়নি, তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তামিলনাড়ুর ক্রীড়ামন্ত্রী তথা ডিএমকে যুব শাখার প্রধান উদয়নিধি স্ট্যালিন জানিয়েছেন, বালাজির চিকিৎসা চলছে। আমরা আইনগতভাবে এটি মোকাবেলা করবো। বিজেপির ভয়ভীতির কাছে মাথা নত করবে না ডিএমকে।

সম্প্রতি ভারতের আয়কর কর্তৃপক্ষ তামিল রাজ্যজুড়ে বালাজির সহযোগীদের সম্পত্তিতে তল্লাশি চালিয়েছে। এআইএডিএমকে সরকারের মন্ত্রী থাকাকালীন বালাজির বিরুদ্ধে চাকরির বিনিময়ে নগদ অর্থ লেনদেনের অভিযোগের তদন্ত চালিয়ে যাওয়ার জন্য ইডিকে অনুমতি দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

ক্ষমতাসীন ডিএমকে অভিযোগ করেছিল, সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনে কর্ণাটকে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পরে বিজেপি আতঙ্কিত হয়ে তাদের দলকে টার্গেট করছে।

তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্ট্যালিন বালাজির ওপর অভিযানের জন্য বিজেপি নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করেছেন এবং বলেছেন যে দলটি ‘ভীতি প্রদর্শনের রাজনীতি’ করছে।

মঙ্গলবার বালাজির বাসভবন, তামিলনাড়ু সচিবালয়ে তার অফিস এবং কারুর জেলায় তার ভাই ও এক ঘনিষ্ঠ সহযোগীর বাড়িতে তল্লাশি চালায় ইডি। মুখ্যমন্ত্রী স্ট্যালিন সচিবালয়ে তল্লাশির নিন্দা করে বলেন, বিজেপির ‘পিছনের দরজা কৌশল’র মাধ্যমে তাদের রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বীদের হুমকি দেওয়ার রাজনীতি কাজ করবে না।

এসআর