আইএসআই’র চর সন্দেহে ২৫ বাংলাদেশি ত্রিপুরার জেলে

বিশ্বচরাচর ডেস্ক : পাকিস্তানের আইএসআই’র চর সন্দেহে গ্রেপ্তার হওয়া ২৫ বাংলাদেশি এখন ভারতের জেলে। গত বছর জুন মাসে আগরতলা রেলওয়ে স্টেশন থেকে এই ২৫ বাংলাদেশি নাগরিককে গ্রেপ্তার করা হয়। ত্রিপুরা পুলিশ মনে করেÑ এটা ছিল তাদের একটি বড় সাফল্য। তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। তারা বিশালগড় কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন। গত ১৯ জানুয়ারি হিন্দুস্তান টাইমস এই খবর দিয়েছে।

গত ১৯ জানুয়ারি পিটিআই’র বরাতে হিন্দুস্তান টাইমস আরো জানায়, ত্রিপুরা পুলিশের মোবাইল টাস্কফোর্স ২০১৮ সালে ২২শ’ ৪৫ জন অবৈধ অভিবাসীকে শনাক্ত করেছে। এদের অধিকাংশই বাংলাদেশি বলে দাবি করা হয়েছে।

একজন ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা জানান, ত্রিপুরা রাজ্যে মোবাইল টাস্কফোর্স এমটিএফের সাতটি ডিটেনশন ক্যাম্প রয়েছে এবং বিতাড়নের আগে এসব ক্যাম্পে অবৈধ অভিবাসীদের রাখা হয়েছে।

গত বছর ত্রিপুরা থেকে পুলিশের মোবাইল টাস্কফোর্স (এমটিএফ) ২১১৭ জনকে বিতাড়ন করে। একজন জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা গত ১৮ জানুয়ারি ওই তথ্য প্রকাশ করেন।

‘গত বছর ত্রিপুরায় আমরা ২২৪৫ জন অবৈধ অভিবাসীকে খুঁজে পেয়েছি। তাদের মধ্যে ২০৫৮ জন পুরুষ এবং ১৮৭ জন মহিলা। অবৈধ অভিবাসীদের বেশির ভাগই প্রতিবেশী বাংলাদেশ থেকে এসেছে’, মন্তব্য করেছেন একজন কর্মকর্তা।

ত্রিপুরার সঙ্গে বাংলাদেশের ৮৫৬ কিলোমিটার সীমানা আছে। অনেক বাংলাদেশি পাসপোর্ট ছাড়াই বিবাহের অনুষ্ঠান বা অন্যান্য কর্মসূচিতে যোগ দিতে, কেউ চিকিৎসার জন্য ভারতীয় ভূখÐে প্রবেশ করে। যদি কোনো অভিবাসী নিষিদ্ধ কিছু বা অস্ত্র বহন করে তবে আমরা তাদের বিরুদ্ধে মামলা করি। এবং আইনি কর্মকাÐের জন্য আদালতে চলে যাই। যদি কেউ কোনো অপরাধে জড়িত না হয় তাকে ফেরত পাঠানো হয়।