আনন্দ-উচ্ছ্বাসে অভিষিক্ত জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশনের নতুন কমিটি

জমকালো সাংস্কৃতিক পরিবেশনা : নিজস্ব ভবন নির্মাণের প্রত্যয়

ঠিকানা রিপোর্ট : নিউইয়র্কে আনন্দ-উচ্ছ্বাসে অভিষিক্ত হলো উত্তর আমেরিকায় সর্ববৃহৎ আঞ্চলিক সংগঠন জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন অব আমেরিকা ইনকের নতুন কমিটি। কুইন্সের জয়া পার্টি হলে ২৯ আগস্ট সোমবার কমিটির নবনির্বাচিত কর্মকর্তাদের অভিষেকে পরিবেশিত হয় জমকালো সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। উচ্ছ্বাস-আনন্দ, শুভেচ্ছা, অভিনন্দন- এসবের মধ্য দিয়ে বসেছিল বৃহত্তর সিলেটবাসীর মিলনমেলা।
তিন পর্বে বিভক্ত এই অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে ছিল আলোচনা। জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন অব আমেরিকার বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান শেফাজের পরিচালনায় এবং বিদায়ী সভাপতি ময়নুল হক চৌধুরী হেলালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল ড. মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন অব আমেরিকা ইনকের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক এম এম শাহীন, বাংলাদেশ সোসাইটির বোর্ড অব ট্রাস্টির চেয়ারম্যান এম আজিজ, সাবেক সভাপতি এম এ বাসিত ও বদরুন্নাহার খান মিতা, বোর্ড অব ট্রাস্টির অন্যতম সদস্য অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুর রহিম হাওলাদার, সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন সিদ্দিকী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক রানা ফেরদৌস চৌধুরী, আসন্ন নির্বাচনে সভাপতি প্রার্থী কাজী আশরাফ হোসেন নয়ন ও আব্দুর রব মিয়া, নির্বাচন কমিশনার কাউছারুজ্জামান কয়েস, বাংলাদেশ বিয়ানীবাজার সমিতি ইউএসএর সাবেক সভাপতি আজিমুর রহমান বুরহান, বর্তমান সভাপতি মোহাম্মদ আব্দুল মান্নান, ফোবানার সাবেক চেয়ারম্যান বেদারুল ইসলাম বাবলা, কবি ফকির ইলিয়াস, কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট মিসবাহ আহমেদ, ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার, রেজাউল করীম চৌধুরী, ময়নুজ্জামান চৌধুরী, জামাল হোসাইন প্রমুখ।


দ্বিতীয় পর্বে অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন পরিচালনা কমিটির অন্যতম সদস্য মিনহাজ আহমেদের পরিচালনায় নবনির্বাচিত সভাপতি বদরুল হোসেন খানকে শপথবাক্য পাঠ করান প্রধান নির্বাচন কমিশনার আতাউর রহমান সেলিম। এ সময় নির্বাচন কমিশনের সদস্য মোশাররফ হোসেন, সাব্বির হোসেন ও আহমেদ এ হাকিম উপস্থিত ছিলেন।
এরপর কমিটির অন্য কর্মকর্তাদের শপথবাক্য পাঠ করান সভাপতি বদরুল হোসেন খান। অভিষিক্তরা হলেন : সভাপতি বদরুল হোসেন খান, সহসভাপতি (সিলেট) মো. লোকমান হোসেন লুকু, সহসভাপতি (সুনামগঞ্জ) মোহাম্মদ শাহীন কামালী, সহসভাপতি (হবিগঞ্জ) মো. শফি উদ্দিন তালুকদার, সহসভাপতি (মৌলভীবাজার) বশির খান, সাধারণ সম্পাদক মইনুল ইসলাম, সহ-সাধারণ সম্পাদক রোকন হাকিম, কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলীম, সাংগঠনিক সম্পাদক ইফজাল আহমেদ চৌধুরী, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক হোসেন আহমদ, প্রচার ও দপ্তর সম্পাদক ফয়ছল আলম, ক্রীড়া সম্পাদক মান্না মুনতাসির, আইন ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক বুরহান উদ্দিন, সমাজকল্যাণ সম্পাদক জাহিদ আহমেদ খান, মহিলাবিষয়ক সম্পাদক সুতিপা চৌধুরী, কার্যকরী সদস্য (সিলেট) হেলিম উদ্দিন, কার্যকরী সদস্য (সুনামগঞ্জ) শামীম আহমেদ, কার্যকরী সদস্য (হবিগঞ্জ) দেলোয়ার হোসেন মানিক ও কার্যকরী সদস্য (মৌলভীবাজার) মিজানুর রহমান।


অনুষ্ঠানে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত ও দোয়া-মোনাজাত পরিচালনা করেন সাবেক সহসভাপতি মাওলানা সাইফুল আলম সিদ্দিকী। গীতা পাঠ করেন সুতপা চৌধুরী। বাংলাদেশ সোসাইটি ও জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন অব আমেরিকার সাবেক সভাপতি কামাল আহমেদসহ করোনায় নিহতদের আত্মার মাগফিরাত এবং কমিউনিটি, দেশ, জাতি ও বিশ্বমানবতার কল্যাণ কামনায় বিশেষ দোয়া করা হয়। শহীদদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। পরিবেশন করা হয় বাংলাদেশ ও আমেরিকার জাতীয় সংগীত।


শপথ গ্রহণ শেষে নবনির্বাচিত সভাপতি বদরুল হোসেন খানের সভাপতিত্বে এবং নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক মইনুল ইসলাম ও সহ-সাধারণ সম্পাদক রোকন হাকিমের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানের পরবর্তী কার্যক্রম শুরু হয়।
জাঁকজমকপূর্ণ পরিবেশে এই অনুষ্ঠানে বৃহত্তর সিলেট প্রবাসীরা ছাড়াও বাঙালি কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠনের পক্ষ থেকে অভিষিক্তদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়।
নবনির্বাচিত কর্মকর্তারা নিষ্ঠার সঙ্গে অর্পিত দায়িত্ব পালনের অঙ্গীকার করেন শপথে। নিজস্ব ভবন নির্মাণ, নতুন ইমিগ্র্যান্টদের সহযোগিতা, বৃহত্তর সিলেটবাসীর অধিকার রক্ষাসহ জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশনকে প্রবাসে মডেল সংগঠন হিসেবে দাঁড় করানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তারা।
নবনির্বাচিত সভাপতি বদরুল হোসেন খান ও নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক মইনুল ইসলাম বিদায়ী কমিটিসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। তারা আগামী ৯০ দিনের মধ্যে নিউইয়র্কে ‘জালালাবাদ ভবন’ প্রতিষ্ঠা, বৃহত্তর সিলেটসহ প্রবাসীদের কল্যাণে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
বদরুল হোসেন খান এই অভিষেক অনুষ্ঠানকে জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন অব আমেরিকার এ-যাবৎকালের সর্ববৃহৎ অভিষেক অনুষ্ঠান বলে মন্তব্য করেন।
মহিলাবিষয়ক সম্পাদক সুতপা চৌধুরীর পরিচালনায় অভিষেক অনুষ্ঠানের শেষ আকর্ষণ ছিল জমকালো সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। জনপ্রিয় শিল্পীদের জমকালো পরিবেশনা গভীর রাত পর্যন্ত উপভোগ করেন দর্শক-শ্রোতারা। শিল্পীদের মধ্যে ছিলেন প্রখ্যাত বাউল কালা মিয়া, জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী শাহ মাহবুবসহ অন্যরা।
অভিষেক উপলক্ষে একটি বিশেষ জার্নাল প্রকাশ করা হয়। অতিথিরা এর মোড়ক উন্মোচন করেন।