আফিমযুক্ত প্রতিষেধক প্রেসক্রাইবের পরামর্শ

ঠিকানা রিপোর্ট: বিগত ২ দশক ধরে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে আফিমযুক্ত ওভারডোজে মৃত্যুর হার উত্তরোত্তর বাড়ছে। শুধুমাত্র ২০১৭ সালে সমগ্র আমেরিকায় প্রায় ৪৮ হাজার আমেরিকান নানা ধরনের আফিমযুক্ত ওভারডোজে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করতে বাধ্য হয়েছে। আর রাস্তাঘাট এবং খোলা বাজার থেকে সহজে কেনা যাওয়া ড্রাগ ফেন্টানীল ওভারডোজেই এ সকল হতভাগ্যদের বেশির ভাগ মৃত্যুবরণ করেছে। আর প্রেসক্রিপশনকৃত পেইন কিলারের ওভারডোজে গত বছর অকালে ভবলীলা সাঙ্গ হয়েছে ১৫ সহ¯্রাধিক আসক্ত আমেরিকানের।
এমনতর বাস্তবতার পরিপ্রেক্ষিতে যে সকল রোগী আফিমযুক্ত পেইনকিলার ( বেদনানাশক) সেবনে অভ্যস্ত তাদের জন্য আফিমযুক্ত ওভারডোজের বিকল্প হিসেবে অধিক সংখ্যক পেইনকিলার প্রেসক্রাইব করতে চিকিৎসকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন সহকারি স্বাস্থ্যমন্ত্রী ব্রেট জিরোইর। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নিযুক্ত সহকারি স্বাস্থ্যমন্ত্রী জিরোইর ২৯ ডিসেম্বর ঘোষিত এক গাইডলাইনে বলেন, রোগীদের সাথে ওভারডোজের বিপদ সম্পর্কে চিকিৎসকদের আলোচনা করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
জিরোইর বলেন, রোগীদের সাথে আলাপ-আলোচনা করে তাদের সুচিন্তিত পরামর্শের ভিত্তিতে নালোক্সোনের স্থলে আফিমযুক্ত নারকান প্রেসক্রাইব করা যায়। উল্লেখ্য, ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন বিশেষজ্ঞ প্যানেল রুদ্ধদ্বার কক্ষে অনুষ্ঠিত এক ভোটাভুটিতে সম্প্রতি অধিকাংশ বা সকল রোগীর জন্য নালোক্সোনের সুপারিশমালা আফিমযুক্ত ড্রাগের লেবেলে অন্তর্ভুক্ত করার ধারণাটির প্রতি সমর্থন জানিয়েছে। এরই পটভূমিতে জিরোইর উল্লেখিত গাইড লাইন প্রণয়ন ও প্রকাশ করেছেন। ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের একটি ডক্যুমেন্ট থেকে জানা যায় এর ফলে স্বাস্থ্য পরিষেবা ব্যয় আরও ১ বিলিয়ন ডলার বেড়ে যাবে। এ প্রসঙ্গে জিরোইর বলেন, ব্যয় ১ বিলিয়ন ডলার বৃদ্ধি পেলেও তাকে বিনিয়োগ হিসেবে ধরা যাবে এবং এর থেকে অনেক বেশি উপকারিতা পাওয়া যাবে।
ইনজেকশন এবং স্বয়ংক্রিয় ইনজেকটর হিসেবে নালোক্সোন নাসাল স্প্রেতে আসে। সরকারি কর্মসূচিতে কম দামে পাওয়া গেলেও ২ ডোজ কিটের জন্য নারকান নাসাল স্প্রের জন্য ব্যয় হয় ১২৫ ডলার। সম্প্রতি প্রস্তুতকারীর পক্ষ থেকে অধিকতর কম দামের জেনেরিক ভার্সন পাওয়া যাওয়া সত্ত্বেও প্রতি কিটের জন্য অটোমেটিক ইনজেকটর বাবত ব্যয় হয় ৪ হাজার ডলার।
সমালোচকগণ বলেন, বেদনা রোগীদের জন্য প্রতিষেধক প্রেসক্রাইবিং অবৈধ আফিমজাত পণ্যের দরুণ সৃষ্ট ক্রমবর্ধিষ্ণ ওভারডোজজনিত মৃত্যুর সমস্যা সমাধানে সফল হবেনা। তারা আরও বলেন, বিদ্যমান স্ট্রীট ড্রাগ ব্যবহারকারীদের চিকিৎসা কর্মসূচিও এতে বাধাগ্রস্ত হতে পারে।