আমেরিকায় রাজনৈতিক সংকট ঘনীভূত হচ্ছে


ঠিকানা রিপোর্ট: আমেরিকার রাজনৈতিক অঙ্গনের সার্বিক পরিস্থিতি সম্ভবত উত্তপ্ত কড়াই থেকে প্রজ্বলিত অগ্নিকুন্ডের অভিমুখে ধাবিত হচ্ছে। ৪ ফেব্রুয়ারি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের অভিষেক কমিটির নিকট অনুদান এবং ব্যয় সংকট ঘনীভূত হচ্ছেসংক্রান্ত কাগজপত্রের অনুরোধ জানিয়ে নিউ ইয়র্কের ফেডারেল প্রসেকিউটরদের সমন জারি থেকে রাজনৈতিক সঙ্কট ঘনীভূত হওয়ার সুস্পষ্ট লক্ষণ দেখা দিয়েছে।
অভিষেক কমিটির নিকট সাউদার্ন ডিস্ট্রিক্ট অব নিউ ইয়র্কের ইউএস এটর্নীর দপ্তর থেকে প্রেরিত সমনে অভিষেকের সাথে সম্পৃক্ত ডোনার, ভেন্ডার, কন্ট্রাক্টর, অভিষেক কমিটির ব্যাংক হিসাব এবং কমিটির নিকট বিদেশী অনুদান সংশ্লিষ্ট তথ্য ইত্যাদি চাওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। এর থেকে প্রতীয়মান হচ্ছে যে ননপ্রফিট অর্গানাইজেশন সম্পর্কিত কর্মকান্ডের ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন উত্তরোত্তর শাখা-প্রশাখা বিস্তার করছে।
উল্লেখ্য, সংবিধান অনুসারে প্রসিডেন্টের অভিষেক অনুষ্ঠানাদিতে অর্থের যোগান দেয়ার জন্য গঠিত কমিটিকে আমেরিকান নাগরিক এবং বৈধ অভিবাসীরাই আইনসঙ্গতভাবে দান করতে পারেন।
সাউদার্ন ডিস্ট্রিক্ট ইউএস এটর্নীর দপ্তর থেকে প্রেরিত সমনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রকে ঠকানো, মেইল ফ্রড (ডাকযোগে জালিয়াতি), মিথ্যা স্টেটমেন্ট (বক্তব্য), ওয়ার ফ্রড (তার যোগে জালিয়াতি) এবং অর্থ পাচারসহ ইত্যাদি ষড়যন্ত্রমূলক অপরাধগুলো প্রসিকিউটরগণ ভালভাবে খতিয়ে দেখছেন। সমনে বিশেষভাবে লস এঞ্জেলেসের এভিনিউ ভেঞ্চারস নামক প্রতিষ্ঠানের স্বত্ত্বাধিকারী ইমাদ জুবেরির কোম্পানীর পক্ষ থেকে ইনাগারাল কমিটিকে ৯ লাখ ডলার দানের বিষয়টি গুরুত্বের সাথে তদন্ত করছে।
এদিকে কমিটির পক্ষ থেকে এক বক্তব্যে বলা হয় যে, ডক্যুমেন্টের জন্য আমরা সবেমাত্র একটি সমন পেয়েছি। সমনটি আমরা রিভিউ করছি এবং তদন্ত কার্যক্রমে পূর্ণ সহযোগিতা করার ইচ্ছা আমাদের রয়েছে। অতএব, এখন শুধু দেখার পালা।