ইমরান খান, স্ত্রী বুশরার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

হাজিরা দিতে আদালতে ইমরান খান ও তার স্ত্রী বুশরা বিবি। ফাইল ছবি। ট্রিবিউন থেকে নেওয়া

ঠিকানা অনলাইন : পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর স্বরাষ্ট্র ও আইন বিষয়ক বিশেষ সহকারী (এসএপিএম) আতাউল্লাহ তারার এ খবর নিশ্চিত করেছেন। দেশ ছেড়ে পালাতে পারেন এই শঙ্কায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, তার স্ত্রী বুশরা বিবি এবং ইমরানের দল তেহরিক-ই ইনসাফের সাবেক-বর্তমান কয়েক ডজন নেতার নাম ‘নো ফ্লাই লিস্টে’ অন্তর্ভুক্ত করেছে পাকিস্তান সরকার।

বৃহস্পতিবার তাদের নাম এ তালিকায় ওঠে বলে জানিয়েছে পাকিস্তানি গণমাধ্যম ট্রিবিউন।

সাধারণত কারও নাম দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞাজনিত কোনো তালিকায় থাকলে ওই নাম বিভিন্ন বন্দরে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

এমন ক্ষেত্রে তালিকায় থাকা ব্যক্তি উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া দেশ ছাড়তে পারেন না।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর স্বরাষ্ট্র ও আইন বিষয়ক বিশেষ সহকারী (এসএপিএম) আতাউল্লাহ তারার গত বছর ক্ষমতাচ্যুত ইমরান ও তার স্ত্রীর নাম ‘নো ফ্লাই লিস্টে’ যুক্ত করার কথা নিশ্চিত করেছেন।

এ তালিকায় কাসিম সুরি, মুরাদ সাঈদ, হাম্মাদ আজহার, ইয়াসমিন রশিদ ও আসলাম ইকবালের মতো পিটিআইয়ের প্রভাবশালী নেতাদের নামও আছে। আছে সদ্যই দলটি ছাড়া আসাদ উমর ও মালিকা বোখারির মতো রাজনীতিকরাও।

সাধারণত ‘বিপজ্জনক’ লোকজনের চলাফেরায় বিধিনিষেধ আরোপ এবং দেশের বাইরে যাওয়া ঠেকাতে তাদের নাম ‘নো ফ্লাই লিস্টে’ দেওয়া হয়। তবে পাকিস্তানের প্রায় সব সরকারই তাদের বিরোধীদের নাম নিয়মিতই এ তালিকায় ঢুকিয়েছে।

একের পর এক মামলা, গ্রেপ্তারের পাশাপাশি বিদেশযাত্রায় এই নিষেধাজ্ঞা বিরোধী নেতাদের ওপর চাপ বাড়াতে কাজে লাগে।

তবে ইমরান বারবারই বলেছেন, তিনি দেশ ছাড়বে না।

“ইমরান খান কোথাও যাবেন না, তাই তার নাম এই তালিকায় রাখা অর্থহীন,” বলেছেন পিটিআইয়ের নেতা ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী ফররুখ হাবিব।

ইমরান ‘রাজনৈতিক নিপীড়নের’ শিকার হচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

ঠিকানা/এসআর