এবার আ’লীগের বিদ্যুতের খুঁটি

নিজস্ব প্রতিনিধি : নির্বাচন সামনে রেখে বৈদ্যুতিক খুঁটি কেনা হচ্ছে। জরুরি ভিত্তিতে ৫১ হাজার ২৪৭টি এসপিসি পোল সংগ্রহ করা হচ্ছে। এর মধ্যে আগামী নভেম্বর মাসের মধ্যে উল্লেখিত সংখ্যক বৈদ্যুতিক পোল সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট এলাকায় পৌঁছাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। শতভাগ পল্লী বিদ্যুতায়নের জন্য বিতরণ নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ (রাজশাহী, রংপুর, খুলনা ও বরিশাল) শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় পোল সংগ্রহ কার্যক্রম চলছে। ২০১৭ সালের ২০ জুন একনেক কর্তৃক প্রকল্পটি অনুমোদিত হয়। ৬ হাজার ৭৭৬ কোটি ৯১ লাখ টাকার এ প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ ২০১৭-এর জানুয়ারি থেকে শুরু করে ২০১৯ এর ডিসেম্বরের মধ্যে সম্পন্ন করার কথা।
নাজুক বিদ্যুৎ পরিস্থিতি উন্নয়নে সরকার বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করে। বিদ্যুতের উৎপাদন বৃদ্ধি এবং সঞ্চালন ও বিতরণ ব্যবস্থায় এরই মধ্যে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতিও হয়েছে। রাজশাহী, রংপুর, খুলনা ও বরিশাল বিভাগে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের মাধ্যমে প্রতিটি ঘরবাড়ি, স্থাপনায় বিদ্যুৎ সংযোগ নিশ্চিত করতে চায় সরকার। কাজের অগ্রগতিও হচ্ছে। কিন্তু বিদ্যুতের খুঁটি সংশ্লিষ্ট এলাকাসমূহে না পৌঁছা পর্যন্ত মানুষের মধ্যে সংশয়, শঙ্কা রয়ে গেছে। তাদের মনে আস্থা প্রতিষ্ঠার জন্যই জরুরি ভিত্তিতে বৈদ্যুতিক পোল কেনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। মোট পাঁচ লটে ৫১ হাজার ২৪৭টি বৈদ্যুতিক খুঁটি কেনা ও স্থাপনে ব্যয় হবে ৫২৬ কোটি ১৩ লাখ টাকা, যা ডিপিপির মূল বরাদ্দ অপেক্ষা ৬২ দশমিক ৩৭ কোটি টাকা বেশি। কাঁচামালের মূল্যবৃদ্ধি, উৎস কর, এআইটি পরিবহন ব্যয় বৃদ্ধি ও মার্কিন ডলারের মূল্য বৃদ্ধির কারণেই মোট ব্যয় বেড়েছে।
বিদ্যুতের আলোবঞ্চিত বিভিন্ন নির্বাচনী এলাকায় মানুষের মধ্যে বিদ্যমান দ্বিধার অবসান ঘটাতেই জরুরি ভিত্তিতে পোল সংগ্রহ করা হচ্ছে। সংসদ সদস্যরা নির্বাচনের আগেই বিদ্যুৎ চলে আসবে বলে এলাকার মানুষকে কথা দিয়েছিলেন। তাদের মধ্যে আস্থা প্রতিষ্ঠা করে নির্বাচন প্রভাবিত করতেই এ উদ্যোগ।