এবার নিপাহ ভাইরাসে শিশুর মৃত্যু

ছবি সংগৃহীত

ঠিকানা অনলাইন : নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) চিকিৎসাধীন অবস্থায় এবার এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। ২৩ জানুয়ারি সোমবার সকালে হাসপাতালের আইসিইউতে শিশুটির মৃত্যু হয়। মারা যাওয়া ওই শিশুর নাম মো. সোয়াদ (৭)। সে পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার সানোয়ার হোসেনের ছেলে।

অবস্থার অবনতি হওয়ায় সাধারণ ওয়ার্ড থেকে তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়েছিল। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হলো।

এর আগে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রামেক হাসাপাতালে এক নারীর মৃত্যু হয়েছিল। এ নিয়ে বছরের শুরুতেই নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রামেক হাসাপাতালে দুজনের মৃত্যু হলো।

সোমবার দুপুরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউ ইউনিটের প্রধান ডা. আবু হেনা মোস্তফা কামাল এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, গত শুক্রবার সকালে বাড়ির সবার সঙ্গে খেজুরের কাঁচা রস পান করে সোয়াদ। এরপর জ্বর ও খিচুনি শুরু হয়। একপর্যায়ে অচেতন হয়ে যায়। শুক্রবার বিকালেই তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। কিন্তু অবস্থার আরও অবনতি হলে শনিবার সকালে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। হাসপাতালের চিকিৎসকদের সন্দেহ হওয়ায় তার শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করে তা নিপাহ ভাইরাসের পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়।

রোববার সন্ধ্যায় তার নমুনা পরীক্ষার ফলাফল আসে। এতে শনাক্ত হয়, সে নিপাহ ভাইরাসে সংক্রমিত। আর এই সংক্রমণের কারণেই ওই শিশুর অবস্থা সংকটাপন্ন ছিল। এরপর সোমবার সকালে সোয়াদ আইসিইউতে চিকিসাৎধীন আবস্থায় মারা যায়।

এ নিয়ে চলতি বছরের প্রথম ২৩ দিনে নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গোদাগাড়ি উপজেলার মাটিকাটা গ্রামের এক নারীর প্রথম নিপা ভাইরাসে মৃত্যু হয়।

সংস্থাটির তথ্য বলেছে, গত বছর এই ভাইরাসে তিনজন আক্রান্ত হয়েছিলেন। তাদের মধ্যে দুজনের মৃত্যু হয়।

ঠিকানা/এনআই