এ মাসেই মামলা নিউইয়র্কে বললেন অর্থমন্ত্রী

রিজার্ভ চুরি

ঢাকা : বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে চুরি হওয়া অর্থ ফেরত আনতে এ মাসেই নিউইয়র্কে মামলা করবে বাংলাদেশ। কোনোভাবেই মামলার সময়সীমা (৩ ফেব্রুয়ারি) অতিক্রম করবে না বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। গত ২০ জানুয়ারি অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে দুই দফা বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ তথ্য জানান।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, এ মামলায় কতজনকে আসামি করা হবে, কতজনকে বাদী করা হবে এগুলো দুই দেশের আইনজীবীরা বসে ঠিক করবেন। তারাই এ বষয়টি চ‚ড়ান্ত করবেন। আমরা মামলা করার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছি। এ মাসের ভেতরেই মামলা হবে। অর্থমন্ত্রী বলেন, এ মামলা দেখভালের জন্য বাংলাদেশের একজন আইনজীবী রয়েছেন। ঠিক তেমনিভাবে আমেরিকায়ও একজন আইনজীবী আছেন। তারা যৌথভাবে সময় নির্ধারণ করে এ মামলা দায়ের করবেন। আন্তর্জাতিক আদালতের আইন অনুযায়ী এ মামলাটি ৩ ফেব্রæয়ারির মধ্যে করার সময়সীমা নির্ধারিত আছে, তা না হলে জটিলতা বাড়বে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, আপনাদের আমি আশ্বস্ত করতে পারি নির্ধারিত সময়ের ভেতরেই মামলা হবে। ২০১৬ সালের ৪ ফেব্রæয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে রক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাব থেকে ১০ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরি হয়। সুইফটের নিরাপত্তা ব্যবস্থা হ্যাক্টড করে পাঁচটি সুইফট বার্তার মাধ্যমে চুরি হওয়া এ অর্থের মধ্যে শ্রীলঙ্কায় যাওয়া ২ কোটি ডলার ফেরত আসে। তবে ফিলিপাইনে যাওয়া ৮ কোটি ১০ লাখ ডলারের মধ্যে এখনও ফেরত আসেনি ৬ কোটি ৬৪ লাখ ডলার। এ অর্থ ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকে জমা রয়েছে।