করোনার অভিঘাত : মন ভালো রাখতে থালা-বাসন মাজুন!

ঠিকানা ডেস্ক : মন ভালো নেই! কিভাবে মন ভালো করবেন- তাই নিয়ে আপনি চিন্তিত? আসুন জেনে নিন গোপন দাওয়াই! করোনাভাইরাস মহামারিকালীন সব থেকে বেশি যে সমস্যাটি কমবেশি সবাই প্রত্যক্ষ করেছে, তা হচ্ছে- মানসিক অবসাদ। একদিকে মহামারি, অন্যদিকে ঘরবন্দি জীবন! টানা এক বছরের বন্দিত্ব ছেলে-বুড়ো সবার মধ্যেই এক ধরনের অবসাদ ও মানসিক চাপের সৃষ্টি করেছে।
আর এই চাপের সাথেই যুক্ত হয়েছে ঘরের কাজ। হ্যাঁ, অফিসের দাপুটে বস হোক কিংবা স্কুলের ব্যাকবেঞ্চার, মহামারিতে বাসায় বসে ঘরের কাজ করেনি এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া যেমন কঠিন। তবে এবার এক ঢিলে দুই পাখি মারার উপায়ও বলে দিলো ফ্লোরিডার এক গবেষণা।
কয়েক বছর আগে করা ফ্লোরিডা স্টেট ইউনিভার্সিটির এক গবেষণায় দেখা গেছে, থালা-বাসন মাজলে মানসিক চাপ ও অবসাদ থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া যায়!
গবেষণায় ৫১ জন শিক্ষার্থীকে বাসন ধোয়ার কাজ দেয়া হয়, যাদের অর্ধেককে বাসন ধোয়ার আগে মনকে সতেজ করতে সক্ষম বাসন ধোয়া সংক্রান্ত এমন একটি বিস্তারিত লেখা পড়তে দেওয়া হয়। অপরদিকে বাকি শিক্ষার্থীদের সংক্ষিপ্ত আকারে ডিশওয়াসিং সম্পর্কিত একটি লেখা পড়তে দেওয়া হয়।
আর এর ফলাফল চমকে দিয়েছিল গবেষকদের। এ বিষয়ে গবেষণার লেখক এফএসইউ কলেজ অফ এডুকেশন কলেজের ডক্টরাল প্রার্থী অ্যাডাম হ্যানলি বলেন, ‘এখানে যে বিষয়টি ঘটেছে তা মনোবিজ্ঞানেরই একটি অংশ। যারা বাসন ধোয়া সংক্রান্ত সতেজ একটি লেখা পড়েছিলেন, তারা শুধু এই কাজেই মনোনিবেশ করেছেন, অন্য কিছু ভাবেননি। তারা সাবানের ফেনা, বাসনের ঝকঝকে রূপ, পানির শব্দ এসবেই মনোযোগ দিয়েছেন। অপরদিকে যারা সংক্ষিপ্ত লেখাটি পড়েছিল তারা বাসন ধোয়ার কাজ করলেও অন্যান্য চিন্তায় ডুবে ছিল।’
তিনি আরো বলেন, ‘জীবনের বিশেষ জাগতিক কার্যক্রম কীভাবে একটি মননশীল রাষ্ট্রের উন্নয়নে ব্যবহার করা যেতে পারে এবং এইভাবে সামগ্রিকভাবে সুস্থতার বোধ বাড়ানো যায়। সে সম্পর্কে আমি বিশেষ আগ্রহী ছিলাম।’
গবেষণার ফলাফল থেকে জানা যায়, যারা সম্পূর্ণ মনোযোগ বাসন ধোয়ার মধ্যে নিবদ্ধ করেছিল, তাদের মানসিক অবসাদ ২৫ শতাংশ পর্যন্ত কমে গেছে এবং আত্মবিশ্বাস ২৭ শতাংশ পর্যন্ত বেড়ে গেছে।
তবে ভবিষ্যতে আরো বৃহৎ আকারে, আরো অনেক মানুষের মধ্যে জরিপের মাধ্যমে গবেষণার নির্দিষ্ট একটি উপসংহারে আসতে আগ্রহী অ্যাডাম।