কুলাউড়ার ট্রেন দুর্ঘটনার বগি এখনো পানিতে, সেতু ধসের আশঙ্কা

ঠিকানা অনলাইন : সিলেট-ঢাকা ট্রেন লাইনে সম্প্রতি কুলাউড়ায় ভয়াবহ দুর্ঘটনার বেশ কয়েকদিন অতিবাহিত হলেও বড়ছড়া সেতুতে দুর্ঘটনাকবলিত ট্রেনের তিনটি বগি এখনো উদ্ধার হয়নি। এসব বগির কারণে পানির স্রোত বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এ অবস্থায় সেতুর নিচ থেকে মাটি ধসে পড়ে যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছে স্থানীয় এলাকাবাসী।

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় গত তিন দিনের প্রবল বর্ষণে পাহাড়ি ঢলের পানি নিচের দিকে অবিরাম নামছে। এতে উপজেলার বরমচালের বড়ছড়া দিয়ে অতিরিক্ত পানির স্রোত প্রবাহিত হয়ে হাকালুকিতে পড়ছে। কিন্তু চরম বাধার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে গত রবিবার দুর্ঘটনাকবলিত উপবন ট্রেনের শেষ বগিটি। সেতুর নিচে ছিটকে পড়ে যাওয়া ওই বগিটা সেখান থেকে অপসারণ না করায় ছড়ার পানি যেতে বাধার সম্মুখীন হচ্ছে। উজান থেকে নেমে আসা পানির স্রোত এসে ওই বগিতে ধাক্কা খেয়ে সেতুর দুই পাশের মাটিতে আছড়ে পড়ছে। সেতুর নিচ থেকে মাটি ধসে যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছে স্থানীয় এলাকাবাসী।

আজ শনিবার ভোরে রেলের প্রকৌশল বিভাগের লোকেরা উদ্ধারকারী ক্রেন নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে। সেতুর নিচে থাকা বগিটি উদ্ধারের চেষ্টা করছে। পানি কমতে শুরু করেছে।

বগি উদ্ধারের জন্য ক্রেন নিয়ে রেলের প্রকৌশল বিভাগের লোকেরা ঘটনাস্থলে কাজ করছেন। এদিকে ঢাকাগামী কালনী এক্সপ্রেস ট্রেনটি মাইজগাঁও স্টেশনে আটকে আছে। চট্টগ্রামগামী জালালাবাদ মেইল ট্রেনটি মোগলাবাজার স্টেশনে আটকে আছে। এবং ঢাকাগামী জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রনটি এখনো সিলেট রেলস্টেশন থেকে ছাড়েনি। এমনটি জানিয়েছেন সিলেটে কর্তব্যরত স্টেশন মাস্টার মোঃ আফসার উদ্দিন। উদ্ধার কাজ শেষ হলে ট্রেনগুলো ছাড়া হবে।

জানা যায়, বড়ছড়া সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ থাকায় গতকাল শুক্রবার দুপুর ১টা ১০ মিনিটে সিলেট থেকে ছেড়ে যাওয়া চট্টগ্রামগামী আন্তনগর পাহাড়িকা ট্রেনটি দুপুর ২টা ৫০ মিনিটে বরমচাল স্টেশনে আটকা পড়ে। এতে বিপাকে পড়ে ট্রেনের কয়েক শতাধিক যাত্রী।

বরমচাল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ইছহাক চৌধুরী ইমরান বলেন, ‘সেতুর উভয় পাশের মাটি ধসে পড়ছে এবং পুরনো পিলারের বিভিন্ন অংশ ঝুঁকিতে রয়েছে।’

স্থানীয়রা বলছেন, সেতুর নিচে ট্রেনের বগি থাকায় পানির স্রোতকে বাধাগ্রস্ত করছে। বগিটি অতিসত্বর উদ্ধার না করতে পারলে সেতুর দু’পাশের মাটি ও পাঁকার পিলার খসে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এমতাবস্থায় এই ঝুঁকিপূর্ণ সেতুর উপর দিয়ে ট্রেন চললে হঠাৎ ঘটতে পারে অনাকাঙ্ক্ষিত ভয়াবহ দুর্ঘটনা।