কুলাউড়ায় বন্যার্তদের মাঝে সাবেক এমপি এমএম শাহীনের অর্থ বিতরণ

বন্যার্তদের মাঝে অর্থ বিতরণ করেন ঠিকানা গ্রুপের চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি এম এম শাহীন।

ঠিকানা অনলাইন : মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলায় স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন আমেরিকার নিউইয়র্ক প্রবাসীদের প্রিয় মুখ কমিউনিটি লিডার ও ইস্টার্ন ইনভেস্ট ইন্‌ক এর কর্ণধার নুরুল আজিম এবং সাউথ এশিয়া ওয়াচ ইন্‌ক এর সেক্রেটারি জেনারেল ও লেখক শহীদুল ইসলাম তালুকদার। দুই প্রবাসীর পক্ষ থেকে বন্যার্তদের মাঝে এই অর্থ বিতরণ করেন ঠিকানা গ্রুপের চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি এম এম শাহীন।

আজ ৩১ জুলাই (রবিবার) জেলা পরিষদ মিলনায়তনে কুলাউড়ার আড়াই শতাধিক অসহায় বন্যার্তদের জনপ্রতি এক হাজার টাকা করে বিতরণ করা হয়।

এ সময় এম এম শাহীন বলেন, বন্যাসহ বাংলাদেশের যে কোনো সংকটময় মুহূর্তে প্রবাসীরাই সবার আগে এগিয়ে আসেন এবং তাদের সর্বোচ্চটুকু দিয়ে সাহায্য করেন। কুলাউড়াসহ মৌলভীবাজার, সিলেট, সুনামগঞ্জের এবারের ভয়াবহ বন্যায় প্রবাসীরা যেভাবে সহায়তা করেছেন, পাশে দাঁড়িয়েছেন, তা অতুলনীয় ও প্রশংসনীয়। তিনি প্রবাসীদের এই মহৎ উদ্যোগগুলো অব্যাহত রাখতে তাদের জন্য সকলের কাছে দোয়া ও আশীর্বাদ কামনা করেন।

ঠিকানা ফাউন্ডেশনের কো-অর্ডিনেটর হাবিবুর রহমানের সঞ্চালনায় এ সময় আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম রেনু, কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ফজলুল হক খান সাহেদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেহা ফেরদৌস চৌধুরী পপি, কুলাউড়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ (অব:) সৌম্য প্রদীপ ভট্টাচার্য, কুলাউড়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোসাদ্দিক আহমদ নোমান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলার কৃতি সন্তান নুরুল আজিম দীর্ঘদিন ধরে নিউইয়র্কে বসবাস করছেন। নিউইয়র্কে বাংলাদেশি প্রবাসীদের প্রিয় মুখ নুরুল আজিম প্রবাসীদের যে কোনো সমস্যা-সংকটে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। প্রবাসীদের পাশাপাশি দেশের যে কোনো ক্রান্তিলগ্নে বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সহযোগিতার হাত বাড়ান তিনি।

অন্যদিকে ঢাকা জেলার সন্তান শহীদুল ইসলাম তালুকদারও দীর্ঘদিন যাবৎ নিউইয়র্ক প্রবাসী। তিনি একজন মানবাধিকার নেতা, মূলধারার রাজনীতিক, লেখক ও সমাজসেবক। নানা সামাজিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে তিনি ইতোমধ্যে প্রবাসী বাংলাদেশিদের আপনজনে পরিণত হয়েছেন। প্রবাসীদের সেবার পাশাপাশি শহীদুল ইসলাম দেশের যে কোনো সঙ্কটেও এগিয়ে আসেন।

ঠিকানা/এসআর