কোকেনের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র-কলম্বিয়া একজোট

মাদকের বিরুদ্ধে একজোট হয়ে কাজ করার অঙ্গীকার করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও কলম্বিয়া। যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট ইভান ডুইকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এ কথা জানান।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবরে জানানো হয়, ওই বৈঠকে কলম্বিয়ায় কোকেনের মূল উপকরণ কোকাপাতার উত্পাদন বেড়ে যাওয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মাইক পম্পেও।

তিনি বলেন, ২০২৩ সালের মধ্যে দুই দেশ কোকার উৎপাদন ৫০ শতাংশ কমিয়ে ফেলার চেষ্টা করবে। জবাবে কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট জানান, কলম্বিয়া ইতিমধ্যে কোকা নির্মূল কর্মসূচি শুরু করেছে।

মাইক পম্পেও বলেন, কলম্বিয়ায় কোকেনের উত্পাদন কমানোর জন্য ২০১৩ সাল থেকে কাজ করে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। দুই দেশই এর ক্ষতিকর প্রভাব সম্পর্কে সচেতন। তাই কোকেন নির্মূলে এক হয়ে কাজ করছে দুই দেশ। কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট গত মাসে বলেন, ২০১৮ সালে ৮০ হাজার হেক্টর জমিতে কোকার উত্পাদন নির্মূল করা হয়েছে। এ বছর আরও এক লাখ হেক্টর জমি থেকে কোকার উৎপাদন নির্মূল করবে সরকার।

সমপ্রতি জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কলম্বিয়ায় রেকর্ড পরিমাণ কৃষিজমি কোকা চাষের জন্য ব্যবহূত হয়। কোকেনের উত্পাদন কমানোর জন্য অনেক দিন ধরে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দেশটি। কোকেনের উত্পাদন কমানো ও মাদক পাচারকারীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার বিষয় নিয়ে কাজ করার জন্য দেশটিকে যুক্তরাষ্ট্র বছরে চার কোটি মার্কিন ডলার সহায়তা দিয়ে থাকে।

প্রসঙ্গত, কলম্বিয়া কোকেনের সবচেয়ে বড় উৎপাদক আর যুক্তরাষ্ট্র সবচেয়ে বড় গ্রাহক। বিবিসি