ক্রাইস্টচার্চ হামলা : ব্রেন্টন ট্যারেন্টের সাজার শুনানি শুরু

ঠিকানা অনলাইন : নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ শহরের দুটি মসজিদে হামলা চালিয়ে ৫১ জন মুসল্লিকে হত্যার ঘটনায় মামলায় আদালতে আসামি ব্রেন্টন ট্যারেন্টের সাজার শুনানি চলছে। আজ সোমবার (২৪ আগস্ট) স্থানীয় সময় সকাল ১০টার পর ক্রাইস্টচার্চের উচ্চ আদালতে ২৯ বছর বয়সী অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক ট্যারেন্টের বিরুদ্ধে চার দিনের শুনানি শুরু হয়। এ ঘটনায় ব্রেন্টর ট্যারেন্টের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

আদালতে বলা হয়েছে, হামলার দিন আরো মানুষকে হত্যা করার ইচ্ছা ছিল ট্যারেন্টের। ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদ পুড়িয়ে দেওয়ার ইচ্ছাও ছিল তার। এ ছাড়া, ক্রাইস্টচার্চে হামলার আগে আরো একটি মসজিদে হামলার পরিকল্পনা করেছিল সে।

আদালতে শুনানির আগে যখন ব্রেন্টন ট্যারেন্টকে আনা হয়, তখন তাকে ধূসর জামা পরা অবস্থায় দেখা যায়। আদালত কক্ষের আসার পরই চারপাশে তাকায় সে, যেখানে ক্রাইস্টচার্চে হামলায় ভুক্তভোগীরা বসে ছিলেন।

এদিকে আজ আদালত কক্ষের ভেতরে ও বাইরে কড়া নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।

এর আগে এ হামলার ঘটনার এক বছরেরও বেশি সময় পর গত মার্চে সব অপরাধ স্বীকার করে ব্রেন্টন ট্যারেন্ট। ৫১ জনকে হত্যার পাশাপাশি আরো ৪০ জনকে হত্যাচেষ্টা এবং সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ ছিল ট্যারেন্টের বিরুদ্ধে, যার সবই স্বীকার করে সে।

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে নিউজিল্যান্ডে লকডাউন চলায় ওই সময় আদালতে অল্প সংখ্যক মানুষের উপস্থিতিতে ব্রেন্টন তার দোষ স্বীকার করে। যদিও এর আগে সব অভিযোগই অস্বীকার করেছিল এ হামলাকারী।

গত বছর নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে হামলা চালিয়েছিলেন শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদী অস্ট্রেলিয়ান ব্রেন্টন ট্যারেন্ট। এতে ৫১ জন মুসল্লি নিহত হন। নৃশংস ওই বন্দুক হামলায় অন্তত তিনজন বাংলাদেশিও নিহত হয়েছিলেন। যেই আল নূরে বেশি হতাহত হয়েছিল, সেখানে জুমার নামাজ আদায় করতে গিয়ে অল্পের জন্য বেঁচে ফেরেন নিউজিল্যান্ড সফররত বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সদস্যরা।