খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রায় ঘোষণায় যুবদলের বিক্ষোভ

ঠিকানা রিপোর্ট: গত ২৯ অক্টোবর জিয়া আরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ১০ বছরের রায় ঘোষণার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্র যুবদল বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করেন। বিক্ষোভ সমাবেশটি গত ২৯ অক্টোবর সন্ধ্যায় জ্যাকসন হাইটসের ডাইভারসিটি প্লাজায় অনুষ্ঠিত হয়। এই বিক্ষোভ সমাবেশে যুব দলের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।
যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক এম এ বাতিনের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক আন্তর্জাতিক সম্পাদক গিয়াস আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র জাসাসের সভাপতি আবু তাহের।
বিক্ষোভ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির সভাপতি ও বিএনপি নেতা মাহফুজুল মাওলা নান্নু, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম জনী, যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক কয়েছ আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র জাসাসের সাধারণ সম্পাদক কাওসার আহমেদ, জাতীয়তাবাদি ফোরামের নেতা গোলাম মাহমুদ, ব্রুকলিন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গির সোহরাওয়ার্দি, আনোয়ার হোসেন, আরাফাত রহমান কোকো স্মৃতি পরিষদের সভাপতি শাহাদৎ হুসেন সবুজ, আরিফ, মেহরাব চৌধুরী, শামীম আহমেদ মনসুর, এলিজা আকতার মুক্তা, খুলকুর রহমান, সুয়েব আহমেদ, হাসান আহমেদ, সিদ্দিক হোসাইন রুবেল, ফারহান আহমেদ, মান্নান, রাজ, সেলিম, মিজান, রাফিদ শাহীন প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, আমরা এই ফরমায়েশী রায় মানি না, মানবো না। কারণ শেখ হাসিনা রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে এবং বেগম খালেদা জিয়াকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখার জন্যই এই রায় দিয়েছেন। তারা বলেন, সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা বলেছেন, বাংলাদেশের কোর্ট স্বাধীন নয়, বিচারের রায় আসে শেখ হাসিনা ও আইনমন্ত্রীর দপ্তর থেকে। সুতরাং এটাও শেখ হাসিনার ফরমায়েশী রায়। তারা বলেন, নির্বাচনের পূর্বে অবশ্যই খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে। খালেদাকে ছাড়া বাংলাদেশে কোন নির্বাচন হতে দেয়া হবে না। তারা বলেন, যতদিন পর্যন্ত শেখ হাসিনা পদত্যাগ না করবেন ততদিন পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে