গাইবান্ধায় হরতাল সমর্থকদের পুলিশের লাঠিপেটা

সিপিবি-বাসদের হরতালে গাইবান্ধায় আসাদুজ্জামান মার্কেটের সামনে নেতা-কর্মীদের লাঠিপেটা করে পুলিশ। ছবি: প্রথম আলো

বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ডাকা আজ বৃহস্পতিবারের হরতালে গাইবান্ধা শহরে সিপিবি, বাসদ ও গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার নেতা-কর্মীদের লাঠিপেটা করেছে পুলিশ। এতে অন্তত ১০ জন নেতা-কর্মী আহত হন। আহত ব্যক্তিদের সদর হাসপাতাল ও বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় সাতজনকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বেলা ১১টার দিকে হরতালের সমর্থনে সিপিবি, বাসদ ও গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা গাইবান্ধা শহরে মিছিল বের করে। মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ডিবি রোডের আসাদুজ্জামান মার্কেটের সামনে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে নেতা-কর্মীরা হরতালের সমর্থনে স্লোগান দিলে পুলিশ নেতা-কর্মীদের বেধড়ক লাঠিপেটা শুরু করে। এ সময় সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য মিহির ঘোষসহ সিপিবি, বাসদ, গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা ও বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাতজন নেতা-কর্মীকে আটক করে পুলিশ।

জেলা সিপিবির সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘কোনো ধরনের উসকানি ছাড়াই পুলিশ আমাদের ওপর হামলা চালায়। এতে আমাদের ১০ জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।’

বৃহস্পতিবার বিকেলে গাইবান্ধার পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, নেতা-কর্মীরা সড়কে বসে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির চেষ্টা করেন। তাঁদের সরানোর সময় পুলিশের সঙ্গে নেতা-কর্মীদের ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাতজনকে আটক করা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শহরের বিভিন্ন স্থানে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।