ঘরোয়া ক্রিকেটে নিষিদ্ধ সাব্বির

স্পোর্টস রিপোর্ট : জাতীয় ক্রিকেট লিগের শেষ রাউন্ডের ম্যাচে দর্শককে লাঞ্ছিত করে থেমে থাকেননি সাব্বির রহমান। ম্যাচ অফিসিয়ালের সঙ্গে খারাপ আচরণও করেছেন জাতীয় দলের তরুণ এই ক্রিকেটার। দুই অপরাধে এখন বড় শাস্তিই পেতে যাচ্ছেন সাব্বির। বিসিবির শৃঙ্খলা কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান শেখ সোহেল এমনই আভাস দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে গত ১ জানুয়ারিই বসতে পারি। সাব্বিরের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেখব। সেখানে যদি মনে হয় তাকে ডাকা দরকার, ডাকব। যদি মনে করি দরকার নেই তাহলেও সিদ্ধান্ত নিয়ে
নেবো।’ সোহেলের মতে, সাব্বিরের অপরাধ দুটি। প্রথমত সে এক কিশোর দর্শককে লাঞ্ছিত করেছে। আবার ম্যাচ অফিসিয়ালদের সঙ্গে বাজে ব্যবহার করেছে। তার এমন আচরণে আমরা বিস্মিত। একজন পরিচিত ক্রিকেটার কিশোর দর্শকের সঙ্গে এমনটি করল কেন?
ম্যাচ রেফারির দেওয়া প্রতিবেদন অনুযায়ী সাব্বির আচরণ বিধির ‘লেভেল-৪ ভেঙেছেন’। যেটির শাস্তি হিসেবে সর্বোচ্চ ৫ লাখ টাকা জরিমানা ও ঘরোয়া ক্রিকেটে বেশকিছু ম্যাচ নিষিদ্ধ হতে পারেন। শোনা যাচ্ছে এমন অপরাধে বিসিবির চুক্তিভুক্ত তালিকা থেকে তিনি বাদ পড়তে পারেন। অথবা ৬ মাস ঘরোয়া ক্রিকেটে নিষিদ্ধ হতে পারেন।
বড় শাস্তির কথা বলা হলেও সাব্বির যে জাতীয় দল থেকে নিষিদ্ধ হচ্ছেন না তা নিশ্চিতই বলা যায়। কেননা সামনে ত্রিদেশীয় ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ সিরিজ। টেস্টে না হলেও ওয়ানডে ও টি-২০ ফরমেটে সাব্বির দেশের অপরিহার্য ক্রিকেটার। তাই শাস্তিটা বড় অংকের জরিমানা ও ঘরোয়া আসরে নিষিদ্ধের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকতে পারে।
এ ব্যাপারে শেখ সোহেল বলেন, ‘শাস্তি নিয়ে এখনই কিছু বলতে পারব না। সবকিছু খতিয়ে দেখার পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’