চতুর্থবারের মতো রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন

বিশ্বচরাচর ডেস্ক : নিঙ্কুশ বিজয়ে চতুর্থবারের মতো রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেন ভøাদিমির পুতিন। রাশিয়ায় গত ১৮ মার্চ অনুষ্ঠিত নির্বাচনে প্রায় ৭৭ শতাংশ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন তিনি। রাশিয়ান সেন্ট্রাল ইলেকশন কমিশনের চেয়ারম্যান এলা পামফিলোভা গত ১৯ মার্চ এ তথ্য জানিয়েছেন। খবর স্পুটনিক ইন্টারন্যাশনাল।

মস্কোর স্থানীয় সময় অনুযায়ী গত ১৯ মার্চ সকালে দেশটির নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল ঘোষণা করা হয়। ফল ঘোষণাকালে এলা পামফিলোভা জানান, ওই সময় পর্যন্ত মোট ভোট গণনা হয়েছিল ৯৯ দশমিক ৮৩ শতাংশ। এর মধ্যে অল রাশিয়া পিপলস ফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দি¦তা করে ভ্লাদিমির পুতিন একাই পেয়েছেন ৭৬ দশমিক ৬৬ শতাংশ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কমিউনিস্ট পার্টির প্রার্থী পাভেল গ্রুদিনিন পেয়েছেন ১১ দশমিক ১ শতাংশ ভোট। এছাড়া লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি অব রাশিয়ার (এলডিপিআর) প্রার্থী ভøাদিমির ঝিরিনোভস্কি ৫ দশমিক ৬৬ শতাংশ ভোট পেয়েছেন।

সোভিয়েত যুগের পর এবারই প্রথম রুশ নির্বাচনে অংশ নিল ক্রাইমিয়া। ২০১৪ সালে ইউক্রেনের কাছ থেকে কৃষ্ণসাগরীয় উপদ্বীপ ক্রাইমিয়া দখল করে নেয় রাশিয়া। এর পর থেকেই রুশ ফেডারেশনে এক স্বায়ত্তশাসিত প্রজাতন্ত্র হিসেবে অঙ্গীভূত রয়েছে ক্রাইমিয়া। গত ১৮ মার্চ অনুষ্ঠিত নির্বাচনে অঞ্চলটির ৯২ শতাংশ ভোটার ভøাদিমির পুতিনের পক্ষে ভোট দিয়েছেন বলে সেখানকার আঞ্চলিক নির্বাচন কমিশনের প্রধান জানিয়েছেন।

এলা পামফিলোভা জানান, এবারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মোট ভোটদাতার সংখ্যা ছিল ৭ কোটি ৩৩ লাখ ৭০ হাজার। সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে যাওয়ার পর রুশ প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এখন পর্যন্ত এটিই সর্বোচ্চ সংখ্যক ভোটদানের ঘটনা।

এবারের নির্বাচনে এখন পর্যন্ত কোনো জায়গা থেকে গুরুতর অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া যায়নি বলে দাবি করেন রুশ কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান। তবে কোনো অভিযোগ এলে এর প্রত্যেকটিকে অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে এসব অভিযোগের সপক্ষে কোথাও কোনো প্রমাণ পাওয়া গেলে সে বিষয়েও শক্ত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এলা পামফিলোভা।

রুশ কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের বৈঠকে তিনি বলেন, ‘কোথাও কোনো অনিয়ম হয়ে থাকলে সবার আগে তা প্রকাশ হওয়া উচিত। পরবর্তীতে এর উপযুক্ত কারণ পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট স্থানের নির্বাচনী ফল বাতিল করা হবে। একই সঙ্গে এর জন্য দায়ী ব্যক্তিদের আইনের আওতায় এনে বিচার করাটাও জরুরি। তবে এখন পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট নির্বাচন চলাকালে কোনো গুরুতর ঘটনা ঘটার অভিযোগ পাওয়া যায়নি।’

তিনি আরো জানান, নির্বাচনের দিন ভোটকেন্দ্রগুলোয় ৪ লাখ ৭৪ হাজার ৫০০ পর্যবেক্ষক ও বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের ১০ হাজার ৫০০ সাংবাদিক উপস্থিত ছিলেন। এর মধ্যে বিদেশি পর্যবেক্ষক ছিলেন ১ হাজার ৫১৩ জন। মোট ১১৫টি দেশ থেকে এসব পর্যবেক্ষণ রুশ নির্বাচন পর্যবেক্ষণের জন্য এসেছিলেন।

এদিকে, ক্রেমলিনের সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী হিসেবে চতুর্থবারের মতো নির্বাচিত হওয়ায় ভøাদিমির পুতিনকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকার প্রধানরা। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্যরা হলেন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং, জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল, ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো, মিসরের প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ সিসি, কাজাখস্তানের প্রেসিডেন্ট নূরসুলতান নাজারবায়েভ, উজবেকিস্তানের প্রেসিডেন্ট শাভকাত মিরজিইয়োয়েভ প্রমুখ।