চীনের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে সতর্ক করলেন কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেলানি

ঠিকানা অনলাইন : চীনকে ক্রমবর্ধমান ‘বিভেদ সৃষ্টিকারী’ বৈশ্বিক শক্তি মন্তব্য করে দেশটির সঙ্গে সম্পর্ক গভীর করার বিষয়ে ব্যবসায়ীদের সতর্ক করেছেন কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেলানি জোলি। তিনি বলেছেন, এতে ‘ভূ-রাজনৈতিক ঝুঁকি’ রয়েছে। এপি জানিয়েছে, আগামী মাসে কানাডা সরকারের ইন্দো-প্যাসিফিক কৌশল নির্ধারণ করতে যাচ্ছে; তার আগেই বুধবার টরন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ের মুঙ্ক স্কুল অফ গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্সে তিনি এসব কথা বলেন।

জোলি বলেন, “১৯৭০ সালের চীন আজকের চীন নয়। দেশটি ক্রমবর্ধমানভাবে সংহতি বিনাশকারী বা বিঘ্ন সৃষ্টিকারী বৈশ্বিক শক্তিতে পরিণত হয়েছে। তারা বৈশ্বিক পরিবেশকে এমন একটি রূপ দিতে চায়, যা আরও বেশি স্বার্থ ও মূল্যবোধের সঙ্গে জড়িত এবং আমাদের কাছ থেকে এটি দূরে সরে যাচ্ছে।”

তার ভাষায়, “বেইজিং যে বৈশ্বিক নিরাপত্তা, বাণিজ্য ও শান্তি নষ্ট করছে, সে বিষয়ে কানাডার গুরুতর উদ্বেগ রয়েছে। জিনজিয়াং অঞ্চলে উইঘুর নামে পরিচিত মুসলিম সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে চীনের মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে ‘বিশ্বাসযোগ্য প্রমাণ’ রয়েছে।”

চীনের সঙ্গে নানা কারবারে যুক্ত কানাডার ব্যবসায়িকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, “আমি আপনাদের বলতে চাই, আপনাদের পরিষ্কার দৃষ্টি রাখতে হবে। ব্যবসায়ী হিসাবে আপনি যে সিদ্ধান্তগুলো নিচ্ছেন, সেটি আপনার নিজের। কিন্তু কানাডার শীর্ষ কূটনীতিক হিসাবে আমার কাজ হলো আপনাকে জানানো যে, চীনের সঙ্গে ব্যবসায় যুক্ত হলে ভূ-রাজনৈতিক ঝুঁকি রয়েছে।”

জোলি বলেন, “তাইওয়ানের সঙ্গে কানাডা অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরও গভীর করবে এবং হংকংয়ে বাকস্বাধীনতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার পক্ষে দাঁড়ানো অব্যাহত রাখবে। যখন প্রয়োজন তখন চীনকে চ্যালেঞ্জ জানাবে কানাডা এবং যখন প্রয়োজন হবে তখন সহযোগিতা করবে।”

ঠিকানা/এম