ছাত্রলীগ করায় ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করলেন বাবা

ঠিকানা অনলাইন : পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় আলিফ মাহমুদ রুদ্র নামে এক ছাত্রলীগ নেতার সঙ্গে তার বাবা রাসেল মোল্লা সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়েছেন। বাবার অবাধ্য হয়ে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে জড়িত থাকায় এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান বাবা রাসেল মোল্লা।

আলিফ মাহমুদ রুদ্র (২২) কলাপাড়ার ৬নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি। তিনি কলাপাড়া ইসমাইল তালুকদার টেকনিক্যাল কলেজ থেকে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করেছেন। তার বাবা রাসেল মোল্লা কলাপাড়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক।

রাসেল মোল্লা বলেন, ‘আমি আমার ছেলের জ্বালায় অতিষ্ঠ হয়ে গেছি। আমি আগে রাজনীতি করতাম, আমি রাজনীতিকে এখন পছন্দ করি না। আমার ছেলে ছাত্রলীগের রাজনীতি করুক সেটা আমি চাই না। এ জন্য আমি তাকে ত্যাজ্য ঘোষণা করেছি। খুব শিগগিরই কাগজ-কলমে তাকে ত্যাজ্য করা হবে।’

এর আগে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি লেখেন, প্রিয় কলাপাড়াবাসী, আসসালামুআলাইকুম। আমার ছেলে আলিফ মাহমুদ রুদ্র আমার সিদ্ধান্তকে উপেক্ষা করে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে জড়িত হওয়ার কারণে তাকে পরিবার থেকে ত্যাজ্য ঘোষণা করলাম। আজ থেকে আমার পরিবারের কোনো সদস্যের সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। আমি নিজেও কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত নই।

এর আগে মঙ্গলবার তার ফেসবুক আইডি রাসেল মোল্লা (Rasel Molla) থেকে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিন এমন বাক্যসংবলিত তার ছবি দিয়ে একটি পোস্ট করা হয়।

ছাত্রলীগ নেতা আলিফ মাহমুদ রুদ্র বলেন, ‘আমি আমার বাবার বাসায় থাকি না, আমি ছোটবেলা থেকেই ছাত্রলীগকে পছন্দ করি। পরিবারের সঙ্গে আমার অনেক আগে থেকেই ভালো সম্পর্ক নেই। আমি ছাত্রলীগের জন্য নিবেদিতপ্রাণ।’

পটুয়াখালী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, ত্যাজ্য করার বিষয়টি পারিবারিক। তারপরও আলিফ মাহমুদ রুদ্র যদি ছাত্রলীগের জন্য নিবেদিতপ্রাণ হয়ে থাকেন অবশ্যই তাকে মূল্যায়ন করা হবে।

তা ছাড়া অনেকে বলছেন, রুদ্র কলাপাড়া পৌর ছাত্রলীগের পদপ্রত্যাশী। তবে তার পরিবার বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত থাকার কারণে পদ না পাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ফলে তাকে ছাত্রলীগের পদ পাওয়ানোর জন্য এটি একটি কৌশল বলে মনে করছেন অনেকে।

ঠিকানা/এসআর