জিআই সনদ পেলো ‘খিরসাপাত’

ঢাকা : জামদানি ও ইলিশের পর এবার স্বীকৃতি পেলো ‘খিরসাপাত’। দেশের তৃতীয় ভৌগোলিক নির্দেশক পণ্য হিসেবে জিআই নিবন্ধন সনদ পেলো চাঁপাই নবাবগঞ্জের খিরসাপাত আম। গত ২৭ জানুয়ারি শিল্প মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের চাঁপাই নবাবগঞ্জ আঞ্চলিক উদ্যানতত্ত¡ গবেষণা কেন্দ্রের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. শফিকুল ইসলামের হাতে এ সনদ তুলে দেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন।

এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী দ্রæত নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে চাঁপাই নবাবগঞ্জের ‘ল্যাংড়া’ এবং ‘আশ্বিনা’ আমের অনুক‚লেও জিআই সনদ দেয়ার জন্য ডিপিডিটির প্রতি নির্দেশনা দেন। তিনি বলেন, চাঁপাই নবাবগঞ্জের খিরসাপাত আম জিআই সনদ অর্জনের ফলে দেশে আমের উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি আমকেন্দ্রিক অর্থনীতি জোরদার হবে। তিনি আমসহ দেশের ঐতিহ্যবাহী ফল, ফুল, পাখি ও পণ্যকে জিআই নিবন্ধনের আওতায় আনার তাগিদ দেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, গুণগতমানের জন্য সারা বিশ্বে বাংলাদেশি আমের বিশাল বাজার রয়েছে। এ আম দিয়ে বাঙালি জাতির নিজস্ব পরিচয় বিশ্ব দরবারে তুলে ধরা সম্ভব। তিনি আমকেন্দ্রিক গবেষণা এবং কৃষিভিত্তিক শিল্পায়নে বর্তমান সরকারের সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলে উল্লেখ করেন।

ঐতিহ্যবাহী খিরসাপাত আম জিআই সনদ পাওয়ায় স্থানীয় আম চাষি, ব্যবসায়ী, কৃষিভিত্তিক শিল্প উদ্যোক্তাসহ সংশ্লিষ্ট সবাই উপকৃত হবেন বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার। ভারপ্রাপ্ত শিল্প সচিব মো. আবদুল হালিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন পেটেন্ট, ডিজাইন ও ট্রেডমার্কস অধিদপ্তরের (ডিপিডিটি) রেজিস্ট্রার মো. সানোয়ার হোসেন ও সনদ গ্রহণকারী ড. মো. শফিকুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তর/সংস্থার প্রধান এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ আমচাষি সমিতির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।