জ্যাকসন হাইটসে ‘ডেঞ্জারম্যান’ : বিরিয়ানি না দেওয়ায় রেস্টুরেন্টে আগুন

ঠিকানা রিপোর্ট : সুপারম্যান রক্ষা করে, আর ডেঞ্জারম্যান করে ধ্বংস। এগুলো সাধারণত সিনেমায় দেখা যায়। কিন্তু নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে এক ডেঞ্জারম্যানকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে, যে বিরিয়ানির অর্ডার নিয়ে ঝগড়ার জেরে গত ২ অক্টোবর রোববার রাতে দাহ্য পদার্থ ঢেলে আগুন লাগিয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশি মালিকানাধীন একটি রেস্টুরেন্টে। ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে দেরীতে হলেও ডেঞ্জারম্যান চোফেল নরবুকে (৪৯) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আদালত তাকে জামিন না দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছে।
জ্যাকসন হাইটসের ডাইভারসিটি প্লাজা সংলগ্ন বাংলাদেশি মালিকানাধীন ইত্যাদি গ্রিল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টে গত ১ অক্টোবর শনিবার বিরিয়ানি কিনতে গিয়েছিল চোফেল নরবু। মাংস বেশী-কম দেওয়া নিয়ে রেস্টুরেন্টের এক কর্মীর সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। এতে ক্ষুব্ধ হয় নরবু। পরদিন সকাল সোয়া ৬টায় রেস্টুরেন্ট বন্ধ থাকা অবস্থায় দাহ্য পদার্থ ঢেলে তাতে আগুন ধরিয়ে দেয় সে। পুলিশ সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে নরবুকে শনাক্ত করে। তার বিরুদ্ধে অগ্নিসংযোগ, অপরাধমূলক জিঘাংসা এবং বেপরোয়া বিপদের অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়।
সিসিটিভি ক্যামেরায় দেখা গেছে, ২ অক্টোবর সকাল সোয়া ৬টার দিকে রেস্তোরাঁর সামনে একজন লোক আগুন ধরিয়ে দিচ্ছে। অগ্নিসংযোগকারী রেস্টুরেন্টের সামনে একটি বালতিতে থাকা তরল পদার্থ ঢেলে দেওয়ার পর আগুন ধরিয়ে দেয়। এসময় একটি বড় ফায়ারবল স্পার্ক করে, যা দোকানের একটি অংশ এবং ফুটপাথে ছড়িয়ে পড়ে। অগ্নিসংযোগকারীর শরীরেও আগুন লেগে যায়।
পুলিশ জানিয়েছে, আগুনে রেস্টুরেন্টের কাঁচের দরজা, শাটার এবং দেয়াল ক্ষতিগ্রস্ত হয়।
অভিযুক্ত চোফেল নরবু দাবি করে- বাংলাদেশি ওই রেস্টুরেন্টের কর্মীরা আগের রাতে দেওয়া তার চিকেন বিরিয়ানির অর্ডারে তালগোল পাকিয়েছিল। আর তাই পরের দিন নরবু আবারও ওই খাবারের দোকানে যায় এবং একপর্যায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়।
নিউইয়র্ক পোস্ট জানায়, গ্রেপ্তারের পর অভিযুক্ত নরবু পুলিশকে জানায়- ‘আমি খুব মাতাল ছিলাম। আমি চিকেন বিরিয়ানি কিনেছিলাম। কিন্তু তারা আমাকে চিকেন বিরিয়ানি দেয়নি। আমি উন্মাদ ছিলাম এবং একপর্যায়ে আমি তা ফেলে দেই।’
৪৯ বছর বয়সী এই অভিযুক্তের দাবি, ‘আমি গ্যাসের একটি ক্যান কিনেছিলাম এবং আগুন জ্বালিয়ে দেওয়ার জন্য সেটি দোকানে নিক্ষেপ করি। পরে আমি আগুন ধরিয়ে দিই এবং এটি (আগুন) আমার গায়েও লেগেছিল।’
নিউইয়র্কের মূলধারার বিভিন্ন মিডিয়া এ খবর প্রকাশ করে চোফেল নরবুকে ‘ডেঞ্জারম্যান’ হিসাবে আখ্যায়িত করেছে।