জ্যাকসন হাইটসে ব্যবসায়ীদের বৈঠক

নিউইয়র্ক : অনাকাক্সিক্ষত করোনাকালের মন্দা ব্যবসা পরিস্থিতি নিয়ে জ্যাকসন হাইটসে বাংলাদেশ ও ভারতীয় ব্যবসায়ীদের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রায় ৪ মাস পর আস্তে আস্তে কাটছে করোনার দুর্যোগ। বাড়ছে ক্রেতাদের আনাগোনা। তবে এ দীর্ঘ সময়ের অনাকাক্সিক্ষত করোনা পরিস্থিতির দরুণ নিউইয়র্কের মিনি বাংলাদেশ জ্যাকসন হাইটসের বাংলাদেশি ব্যবসায় মারাত্মক ধস নেমেছে। তার উপর আবার এতো মাসের বকেয়া দোকান ভাড়া, যা মালিকদের এখনো অবধি দেয়া হয়নি। কারণ ব্যবসা না থাকলে আয় নেই, আর আয় না থাকলে ভাড়া দেয়া হবে কোত্থেকে? এসব নিয়ে ব্যবসায়ীদের দুইটি পক্ষের মধ্যে সংক্ষিপ্ত আকারে আলোচনা করাই ছিল বৈঠকটির উদ্দেশ্য। আরো এক মাস পরিস্থিতির উপর গভীর নজর রাখার পর যৌথভাবে আরেকটি সভা আহ্বান ও আলোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে উপস্থিত ব্যবসায়ীরা ঐকমতে পৌঁছেন।
জ্যাকসন হাইটসের ভারতীর ব্যবসায়ী সমিতি মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের বেশ কজন সদস্য শিব দাসের নেতৃত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন।
বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের পক্ষে খাবার বাড়ির মি. জামান, হাটবাজারের মনসুর চৌধুরী ও মহসিন ননী, নিউইয়র্ক কাজী অফিসের ইমাম কাজী কায়্যূম, ফাউমার ফাহাদ সোলাইমান, পীরান ফ্যাশনের জেড আলম নমী, ডটনেট গ্রাফিক্সের মি. প্রদীপ রঞ্জন, বারী হোম কেয়ারের আসেফ বারী টুটুল, ডিটিএনওয়াইর মোস্তাফিজ সান্টু, ঢালিউডের মি. আলম, প্রিন্স রেস্টুরেন্টের ইলিয়াস, আপনাবাজার হালাল মিটের দাদা, সাপ্লয়ার মি. কাসেম, মিনা বাজারের স্বত্বাধিকারী প্রমুখ উক্ত সৌজন্য সভায় উপস্থিত ছিলেন।
ডেরা রেস্টুরেন্টের মালিক মি. সায়েফ নাগরাও পরে এসে সভায় উপস্থিত হন। বারী হোম কেয়ারের কর্ণধার আসেফ বারী টুটুলের সৌজন্যে ব্যবসায়ীদের সম্মানে লাঞ্চ পরিবেশন করা হয়। প্র্রেস বিজ্ঞপ্তি।