টেকনাফে ১ দিনে ২১ লাখ ইয়াবা উদ্ধার

কক্সবাজার : কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্তে গত ১৬ মার্চ এক দিনেই ২১ লাখ ইয়াবা উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও কোস্টগার্ড। এর মধ্যে সীমান্তের নাফ নদ থেকে বিজিবি উদ্ধার করেছে ১৮ লাখ দুই হাজার ৮৯৭ পিস ইয়াবা এবং সেন্টমার্টিনস ছেঁড়া দ্বীপ থেকে কোস্টগার্ড উদ্ধার করেছে তিন লাখ পিস ইয়াবা।

পৃথক এসব অভিযানে কোনো নৌযান বা পাচারকারীকে আটক করা সম্ভব হয়নি। উদ্ধার করা এসব মাদকের মূল্য আনুমানিক ৭০ কোটি টাকা বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে বলা হয়েছে।

এ দিকে এক দিনে এত বিপুল পরিমাণ ইয়াবা ট্যাবলেটের চালান আটকের ঘটনা নিয়ে সীমান্ত জনপদে নানা কথা ছড়িয়ে পড়েছে। লোকমুখে বলাবলি হচ্ছে ‘বড় চালানের মাল বড় হুজুরের।’ তবে এই ‘বড় হুজুর’ নামের ব্যক্তি বা ইয়াবা ডিলারের পরিচয় নিশ্চিত করে জানাতে পারেননি কেউই।

টেকনাফের বিজিবি সূত্র জানায়, নাফ নদ দিয়ে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান আসতে পারে- এমন গোপন গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে দুই দিন ধরে নাফ নদে দুই বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. আছাদুদ জামান চৌধুরী ও টেকনাফ বিওপির হাবিলদার মো. আশরাফুল আলমের নেতৃত্বে দুটি বিশেষ টহল পরিচালনা করা হয়।

টহলের একপর্যায়ে গত ১৫ মার্চ রাত ১১টায় দমদমিয়া বিওপির দায়িত্বপূর্ণ বন্দর এলাকায় নাফ নদে কাঠের বড় একটি জাহাজ থেকে পাঁচ লাখ ৮৯৭ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। অন্য দিকে সাবরাং নাফ নদের জিনা খাল থেকে বিজিবি হাবিলদার আশরাফের নেতৃত্বে ১৩ লাখ দুই হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড বাহিনীর সহকারী গোয়েন্দা পরিচালক লে. কমান্ডার বি এন আব্দুল্লাহ আল মারুফ জানান, কোস্টগার্ড পূর্ব জোনের টেকনাফ সিজি স্টেশন অভিযান চালিয়ে গত ১৫ মার্চ রাত দেড়টায় সেন্ট মার্টিনসের ছেঁড়া দ্বীপ থেকে তিন লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। উদ্ধারকৃত ইয়াবাগুলো থানায় হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান তিনি।