ডেডলাইন ৩০ জুলাই: রেন্ট রিলিফ আবেদন করতে পারছেন না অনেকেই

ঠিকানা রিপোর্ট : কোভিড-১৯ রেন্ট রিলিফ পাওয়ার চেষ্টা করছেন অনেকেই। কিন্তু সিস্টেমের সমস্যার কারণে অনেকেই সেখানে প্রবেশ করতে পারছেন না। আবেদন করতে আগ্রহীদের অনেকেই সাইটে প্রবেশ করছেন এবং চেষ্টা করছেন। কিন্তু হোমস অ্যান্ড কমিউনিটির রিনিউয়াল ডিপার্টমেন্ট থেকে বলা হয়েছে, এই আবেদন আগে এলে আগে পাবেন ভিত্তিতে দেওয়া হবে না। আবেদনটি জমা নেওয়া শুরু হয়েছে। চলবে ৩০ জুলাই পর্যন্ত। যারা রিলিফ পাওয়ার যোগ্য বলে মনে করছেন, তাদের আবেদন বিবেচনা করে সবকিছু পর্যালোচনার পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। যারা যোগ্য বিবেচিত হবেন, সেসব ভাড়াটিয়ার বাড়িওয়ালার নামে ভাউচার ইস্যু করা হবে। বাড়িওয়ালা সেই অর্থ পাবেন। ভাড়াটিয়ার হাতে সরাসরি কোনো অর্থ দেওয়া হবে না।
কর্তৃপক্ষ বলছে, কোভিড ভাড়া রেন্ট রিলিফ প্রোগ্রাম। আরো বলছে যে সাইটটি উচ্চ ট্রাফিক সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে এবং হতাশার জন্য তারা ক্ষমাপ্রার্থী। আবেদনের সময়কাল ৩০ জুলাই পর্যন্ত উন্মুক্ত থাক।ে দুই সপ্তাহের সময়সীমার মধ্যে যেকোনো সময় আবেদন জমা দেওয়া যাবে। তারা বলছে, আগে যদি কারো ২ হাজার ডলার ইনকাম হয়ে থাকে, এর মধ্যে তিনি ৭০০ ডলার ভাড়া দেন, তাহলে তার ভাড়া মোট আয়ের ৩৫ শতাংশ। কোভিডের জন্য তার আয় কমে ১৪০০ ডলার হয়ে থাকে এবং এখন যদি ভাড়া ৭০০ ডলার দেন, তাহলে তিনি ভাড়া দিচ্ছেন ৫০ শতাংশ। তাহলে তারা রেন্ড বার্ডেনে আছেন। এখন ইনকাম যদি ১৪০০ ডলার হয়, তাহলে বর্তমান আয় অনুযায়ী ভাড়া ৩০ শতাংশ হিসাবে ৪৯০ ডলার হওয়ার কথা। কিন্তু তা না হওয়ায় তারা যেহেতু আগের ভাড়াই দিচ্ছেন, সেই হিসাবে তিনি ৭০০ ডলারের মধ্যে ৩৫ শতাংশ হিসাবে দেবেন ৪৯০ ডলার। বাকি থাকে ২১০ ডলার। এই ২১০ ডলার সাবসিডি পাবেন। যোগ্যদের চার মাসের মধ্যে প্রতি মাসের জন্য এটা দেওয়া হতে পারে।
ওভারভিউ ও যোগ্যতা সম্পর্কে বলা হয়েছে, কোভিড রেন্ট রিলিফের আওতায় যে যোগ্যতা নির্ধারণ করা হয়েছে, তা যেসব পরিবার পূরণ করতে পারবে, সেসব পরিবারের জন্য এককালীন ভাড়া ভর্তুকি সরবরাহ করবে, যা সরাসরি পরিবারের বাড়ির মালিককে পাঠানো হবে। আবেদনকারীদের এই সহায়তা শোধ করার প্রয়োজন হবে না। এ খাতে বরাদ্দ হয়েছে ১০০ মিলিয়ন ডলার। তবে অর্থের অঙ্ক কম হওয়ার কারণে যোগ্য আবেদনকারীদের সবাই তা পাবেন কি না, সে ব্যাপারে নিশ্চিত করে কিছু বলা হয়নি। এইচসিআর বলছে, তারা আবেদন বিবেচনার ক্ষেত্রে পরিবারের উপার্জন, ভাড়ার বোঝা, আয়ের হারের শতকরা হার এবং গৃহহীনতার ঝুঁকির জন্য সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক ও সামাজিক প্রয়োজনের অ্যাকাউন্টিংসহ যোগ্য পরিবারগুলোকে অগ্রাধিকার দেবে।
এই ভাড়া প্রদানের সুযোগটি থাকছে ১ এপ্রিলের পর থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত। সবাই যে চার মাসের ভাড়া পাবেন, বিষয়টি এমনও নয়। যে যে কয় মাসের জন্য যোগ্য হবেন, তাকে সেই কয় মাস দেওয়া হবে। তবে তা ১ এপ্রিল থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত।
যোগ্য আবেদনকারী পরিবারকে অবশ্যই নিম্নলিখিত মানদণ্ডগুলো মেনে চলতে হবে : ১ মার্চ ২০২০-এর আগে এবং আবেদনের সময় পরিবারের আয় অবশ্যই পরিবারের আকারের জন্য সামঞ্জস্য করা এলাকার মাঝারি আয়ের ৮০ শতাংশের নিচে থাকতে হবে। বাড়ির আকারের ওপর ভিত্তি করে নিজ নিজ কাউন্টির অঞ্চলের মধ্যম আয়ের সন্ধান করার সুযোগ রয়েছে। এই লিঙ্কে সেটা দেখতে পারবেন। www.hcr.û.gov/eligible-income-limits-80-ami-county ২০২০ সালের ১ মার্চের আগে এবং আবেদনের সময় পরিবার অবশ্যই ভাড়ার জন্য মোট মাসিক আয়ের ৩০ শতাংশের বেশি প্রদান করছিল, সেটা প্রমাণ করতে হবে। মোট আয়ের মধ্যে মজুরির পাশাপাশি কোনো নগদ অনুদান, শিশু সহায়তা, সামাজিক সুরক্ষা, বেকারত্ব সুবিধা ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। আবেদনকারীদের অবশ্যই ১ এপ্রিল ২০২০ থেকে ৩১ জুলাই ২০২০-এর মধ্যে আয় হারাতে হবে। আরও তথ্যের জন্য বিস্তারিত দেখতে পারেন এই লিঙ্কে : https://hcr.û.gov/RRP
এইচসিআর শনিবার থেকে বাসিন্দাদের সহায়তার জন্য একটি ডেডিকেটেড কল সেন্টার তৈরি করেছে। কোভিড ভাড়া রিলিফ প্রোগ্রাম কল সেন্টারে ১-৮৩৩-৪৯৯-০৩১৮ এ কল করা বা covidrentrelief@hcr.û.gov এ ই-মেইল করার সুযোগ রয়েছে।
এই রিলিফ আবেদন অনলাইন থেকে ফরম ডাউনলোড করেও করা যাবে। যারা অনলাইনে ফরম ফিলআপ করতে চান, তাদের Google Chrome, Microsoft Edge/Explorer 11, Apple Safari or other modern browsers are recommended (Internet Explorer 10 and belwo is not supported) থাকতে হবে।
এই প্রোগ্রাম সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে https://hcr.û.gov/system/files/documents/2020/07/hcrcovidrent.pdf সাইটে।
এদিকে নিউইয়র্ক সিটি, কুইন্স ও ব্রঙ্কসের জন্য ইনকাম লিমিট ধরা হয়েছে একজনের পরিবার হলে ৬৩,৭০০ ডলার, দুজন হলে ৭২,৮০০, তিনজনের ৮১,৯০০, চারজনের ৯০,৯৫০, পাঁচজনের ৯৮,২৫০, ছয়জনের ১০৫,৫৫০, সাতজনের ১১২,৮০০ ও আটজনের পরিবার হলে ১২০,১০০ ডলার। এর বেশি আয় হলে তারা আবেদন করতে পারবেন না।
জানা গেছে, যারা এই প্যান্ডামিকের মধ্যে আন-এমপ্লয়মেন্ট পেয়েছেন ও ফেডারেল সরকার থেকে প্রতি সপ্তাহে ৬০০ ডলার করে পেয়েছেন, তারা রেন্ট রিলিফ পাওয়ার যোগ্য নাও হতে পারেন। কারণ সেখানে বলা হয়েছে, ১ মার্চের আগে কত ছিল পরিবারের আয় আর মার্চের পর বর্তমান আয় কত। যেদিন আবেদন করছেন ওই দিন আয় কত। মাসিক দুই সময়ের আয়ের বিষয়টি দেখা হচ্ছে। যারা আন-এমপ্লয়মেন্টের কারণে এখন বেশি অর্থ পাচ্ছেন, সাধারণ চাকরির সময়ের থেকে তারা যোগ্য হবেন না। যোগ্যতা বিচার করতে হলে তাদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। প্রাইমারি রেসিডেন্ট নিউইয়র্ক কি না, বর্তমানে প্রাইমারি রেসিডেন্সিতে থাকছেন কি না, অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে ১ এপ্রিল থেকে ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে ইনকাম লস হয়েছে কি না, সেকশন ৮ কিংবা পাবলিক হাউজিংয়ের সুবিধা পাচ্ছেন কি না, কোন কাউন্টিতে বাস করছেন, পরিবারের সদস্যসংখ্যা কত, মার্চ মাসে পরিবারের ইনকাম কত ছিল আর এখন মাসিক আয় কতÑএসব প্রশ্নের উত্তর দিয়ে ক্যালকুলেট অপশনে গেলে বলে দেবে সেটা ইলিজবল কি না।
যারা যোগ্য, তারা আবেদন করতে পারবেন। আর যারা পারবেন না তাদেরকে বলবে, দুঃখিত, আপনি যোগ্য নন। যোগ্যতার মানদÐ এবং জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলি সম্পর্কে অতিরিক্ত তথ্যের জন্য ক্লিক করুন : https://hcr.ny.gov/covid-rent-relief-program.
এ ব্যাপারে কারো কোনো প্রশ্ন থাকলে যোগাযোগ করতে পারেন : HCR has created a dedicated call center to provide residents with help Monday through Saturday, 8 a.m. until 7 p.m. Call the COVID Rent Relief Program Call Center at 1-833-499-0318 or email at [email protected]
অনলাইনে আবেদন পূরণ করার পর সেটি জমা দেওয়ার জন্য একটি অ্যাকাউন্ট সেখানে তৈরি করতে হবে। এরপর জমা দিতে হবে। জমা দেওয়ার পর তারা রিসিভ লেটার দেবে। যারা যোগ্য তারা আগস্ট মাস কিংবা এরপর ভাউচারের মাধ্যমে বাড়িওয়ালার নামে অর্থ পাবেন।