ডেমোক্র্যাট শেষ, রিপাবলিকানদের শুরু

শিতাংশু গুহ : ডেমোক্র্যাট ন্যাশনাল কনভেনশন (ডিএনসি) শেষ হয়েছে। সাবেক ভাইস-প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং ক্যালিফর্নিয়ার সিনেটর কামালা হ্যারিস দলের টিকিটে প্রেসিডেন্টশিয়াল নির্বাচন করবেন। ১৭ আগস্ট থেকে ২০ আগস্ট ২০২০, টানা চার দিন এই সম্মেলন নিয়ে আমেরিকা ব্যস্ত ছিা। সম্মেলন হয় মিলওয়াকি-তে, যদিও সেটি ছিল ফাঁকা। কারণ কোভিড-১৯। এবারকার কনভেনশন তাই ছিল ‘একটি বিশালাকায় ঝুম মিটিং’। এই প্রথম, এটি ইতিহাস, এর আগে কখনো এমনটি ঘটেনি। রিপাবলিকান সম্মেলন গত ২৪ আগস্ট শুরু হয়। ঝুম কনফারেন্স, তবে কিছু মানুষ সশরীরে উপস্থিত থাকেন। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প-মাইক পেন্স দলীয় মনোনয়ন গ্রহণ করবেন। নির্বাচন মঙ্গলবার ৩ নভেম্বর, প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে ট্রাম্প-পেন্স ভার্সেস বাইডেন-হ্যারিস। কে জিতবেন? গত ২০ আগস্ট ডিএনসির শেষদিনে ডেমোক্র্যাটিক প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেন দলীয় মনোনয়ন গ্রহণ ভাষণে বলেছেন, যদি তিনি ট্রাম্পকে হারাতে পারেন, তবে বিভক্ত ও থমকে যাওয়া আমেরিকাকে আবার নতুন রাস্তা দেখবেন। তার জীবনের শ্রেষ্ঠতম সময়ে বহু প্রতীক্ষিত এ ভাষণ তিনি দেন তার হোমটাউন উইলমিংটন, ডেলোআর থেকে। সিনেটর ভাইস-প্রেসিডেন্ট প্রার্থী কামালা হ্যারিস তাঁর কালো ও ভারতীয় ঐতিহ্যের কথা স্মরণ করে বলেন, এই নির্বাচনের মাধ্যমে ইতিহাসের গতি পরিবর্তনের সুযোগ এসেছে। বাইডেনকে জেতাতে এই সুযোগ কাজে লাগাতে হবে। ডেমোক্র্যাট কনভেনশনে চাকচিক্য ছিল না। অনেকটা তৃতীয় বিশ্বের সম্মেলনের মতো? নিউইয়র্কের উঠতি কংগ্রেসওমেন আলেকজান্দ্রিয়া ওকসিও কর্টেজ (এওসি) বলেছেন, আমাদের আরো ভালো করা উচিত ছিল। রিপাবলিকানরা বলেছেন, আমরা দেখাবো সম্মেলন কাকে বলে?
উদ্বোধনী দিবসে সাবেক ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা বলেছেন, কেউ প্রেসিডেন্ট হলেই মানুষটি বদলে যায় না, বরং মানুষটির আসল রূপ প্রকাশ পায়। তিনি বলেন, ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হওয়া আমেরিকার জন্য ভুল ছিল। এবার সেই ভুল শুধরাতে হবে। মিশেলের বক্তব্য ভালোই ছিল। তবে ট্রাম্প সমালোচনা করে বলেছেন, মিশেল ওবামা তাঁর দীর্ঘ ভাষণে একবারও কামালা হ্যারিসের নাম নেননি, তাহলে বুঝুন কেমন এদের ঐক্য? এরপরে মিশেল তাঁর ভুল শুধরে ইনস্টাগ্রামে কামালা হ্যারিসের ভূয়সী প্রশংসা করেন। সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, ট্রাম্প প্রেসিডেন্সিকে রিয়েলিটি শো মনে করেন। ওবামা বলেন, ট্রাম্পের প্রেসিডেন্সি ভুল, তার জন্য করোনায় এক লাখ ৭০ হাজার মানুষ মারা গেছে। তিনি এ কাজের উপযুক্ত নন? ওবামা তাঁর ভাইস-প্রেসিডেন্ট বাইডেন ও কামালা হ্যারিসকে বন্ধু হিসেবে বর্ণনা করে তাদের প্রশংসা করেন।
সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন এবং হিলারি ক্লিনটন সম্মেলনে ভাষণ দিয়েছেন। সম্মেলনে এওসি-কে সময় দেয়া হয়েছিল ১ মিনিট। তিনি রেগে এক টুইটে বলেছেন, ‘আমি সময়টা কাজে লাগাবো’। তাই করেছেন, ৯৬ সেকেন্ডের ভাষণে ভারমন্টের সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্সকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। পরে আবার এক টুইটে বাইডেনের প্রতি সমর্থন ঘোষণা করেছেন। নিউইয়র্কের গভর্নর এন্ড্রু ক্যুমো করোনায় এত মৃত্যুর জন্য ট্রাম্পের অযোগ্যতাকে দায়ী করেছেন। ট্রাম্প বলেছেন, রেডিক্যাল ওয়েস্ট ক্ষমতায় আসতে চায়। তাঁরা আমেরিকাকে অবধৈ, অপরাধী, নৈরাজ্য সৃষ্টিকারীদের অভয়ারণ্য বানাতে চায়। কামালা হ্যারিসের জন্ম নিয়ে যে বিতর্ক উঠেছিল, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছেন, ‘উই ডোন্ট কেয়ার, মাথা ঘামাই না। সাধারণত সম্মেলনের সময় দলীয় প্রার্থীর সমর্থন বাড়ে। অথচ সিএনএন জানাচ্ছে, ডেমোক্র্যাট সম্মেলনের সময় ট্রাম্পের জনপ্রিয়তা বেড়েছে, যদিও জরিপে তিনি বাইডেন থেকে পিছিয়ে।
গত ২২ আগস্ট ট্রাম্প টুইট করেছেন যে, ডেমোক্র্যাটরা তাদের সম্মেলনে গড (ঈশ্বর)-কে বাদ দিয়ে দিয়েছে। তিনি লিখেছেন, প্রথমে ভেবেছিলাম, ওঁরা হয়তো ভুল করেছে, পরে বুঝলাম, ওটা ইচ্ছাকৃত! তিনি ইভাঞ্জেলিক খ্রিষ্টানদের এ কথা স্মরণ করিয়ে বলেছেন, ভোট ৩ নভেম্বর। তার পুত্র এরিক ট্রাম্প ‘আন্ডার গড’ উচ্চারণ না করায় সতর্কতা উচ্চারণ করেছেন। খ্রিষ্টান ব্রডকাস্ট নেটওয়ার্ক এই নিউজ দেয়, যদিও কোনো মেইনস্ট্রিম মিডিয়ায় এটি আসেনি। মুসলিম ডেলিগেট অ্যান্ড এলাইজ অ্যান্ড এলজিবিটিকিউ ককাসের সময় এ ঘটনা ঘটে। বাইডেন বলেছেন, ক্ষমতায় গেলে তিনি ভিসা-গ্রিনকার্ড সহজ করবেন। কমোলা হ্যারিস তাঁর প্রেস সেক্রেটারি হিসেবে ভারতীয় আমেরিকান সাবরিনা সিং-কে নিয়োগ দিয়েছেন। এই প্রথম কোনো ভারতীয় কোনো মার্কিন ভাইস-প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থীর প্রেস-সেক্রেটারি হলেন।
ডিএনসি ইমিগ্রেশন প্রশ্নে একটি বালিকাকে দিয়ে যে ভাষণ ও বিজ্ঞাপন দিয়েছে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এস্টেলা জারিস, ১১ তাঁর মার কাহিনী বর্ণনা করে বলেন, আমরা একজন প্রেসিডেন্ট চাই, যিনি পরিবারকে একত্রিত করবেন। উল্লেখ্য, তাঁর মা আলেজান্দ্রো জারিস ১৯৯৮ সালে অবৈধভাবে মেক্সিকো দিয়ে আমেরিকা ঢুকেন। সেটি ক্লিনটন যুগ, তাকে ডিপোর্ট করা হয়। আবার তিনি অবৈধভাবে আমেরিকা ঢুকেন, আইন অনুযায়ী এবার তিনি ফৌজদারি অপরাধ করেছেন। ২০১৩ সালে তিনি একটি ট্রাফিক ভায়োলেশনে ধরা পড়েন, জেলে যান এবং ডিপোর্টেশনের রায় হয়। ২০১৮ সালে ট্রাম্প আমলে তাঁকে ডিপোর্ট করা হয়। পুরো ঘটনা প্রবাহ ডেমোক্র্যাট আমলে; কিন্তু সব দোষ বর্তাচ্ছে ট্রাম্পের ওপর?
এদিকে গত ২৪ আগস্ট রিপাবলিকান সম্মেলন শুরুর দিনে প্রায় দুই ডজন প্রাক্তন রিপাবলিকান সিনেট ও কংগ্রেস সদস্য জো বাইডেনের প্রতি তাদের সমর্থন ব্যক্ত করেছেন। রিপাবলিকান একজন মুখপাত্র সিএনএনকে বলেছেন, এটি প্রতীকী, বাইডেন ভাসমান ভোটারদের টানতে এ কৌশল নিয়েছেন। তিনি বলেন, ৯৫ শতাংশ রিপাবলিকান ট্রাম্পের সাথে আছেন। একই দিন সকালে হোয়াইট হাউজ উপদেষ্টা ক্যালিয়ান কনওয়ে পদত্যাগের ঘোষণা দেন। তিনি বলেছেন, পরিবারকে সময় দিতে এই পদত্যাগ। ট্রাম্পের বড়বোন ম্যারিয়ান ট্রাম্প ব্যারি’র একটি পুরনো (২০১৮-২০১৯) অডিও গত ২২ আগস্ট প্রকাশ পেয়েছে, এতে তিনি বলেছেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প নীতিহীন, মিথ্যুক ও নিষ্ঠুর, তাকে বিশ্বাস করা যায় না। ট্রাম্পের বড়ভাই ভাই রবার্ট ট্রাম্প মারা গেছেন। ট্রাম্প তাঁকে দেখতে হাসপাতালে গিয়েছিলেন।
[email protected]