ঢাকার দুই রুটে চালু হলো নগর পরিবহনের ১০০ বাস

ঠিকানা অনলাইন : ঢাকার কেরানীগঞ্জের ঘাটারচর থেকে ডেমরা স্টাফ কোয়ার্টার ও ঘাটারচর থেকে কদমতলী রুটে ৫০টি করে মোট ১০০টি নগর পরিবহনের বাস সেবা চালু করেছে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন। বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ নিয়ে এই নগর পরিবহন চালু করা হয়েছে। এই দুই রুটে নগর পরিবহন ছাড়া অন্য কোনো কোম্পানির বাস চলাচল করতে পারবে না। ধাপে ধাপে এই নগর পরিবহন সেবা পুরো রাজধানীতেই চালু করা হবে।

১৩ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর বছিলায় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস এবং ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম এই বাস সেবা উদ্বোধন করেন।

নগর পরিবহনে ব্যবহার করার জন্য বিআরটিসির পুরোনো বাসগুলোকেই সাজানো হয়েছে নতুনের মতো করে। ২৬ নম্বর রুট, ঘাটারচর থেকে কদমতলী পাগলা পর্যন্ত চলবে এই বাসগুলো। আর ২২ নম্বর রুট, ঘাটারচর থেকে ডেমরা স্টাফ কোয়ার্টার পর্যন্ত চলবে অভি মোটরের নতুন ৫০টি বাস। থাকছে ই-টিকেটিং ব্যবস্থাও।

নানা প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে এই রুটে নগর পরিবহন সেবা চালু হওয়ায় বাসযোগ্য ঢাকা ও উন্নত যোগাযোগব্যবস্থার পথ উন্মোচন হলো বলে মনে করেন দুই সিটির মেয়র। তারা আশাবাদ ব্যক্ত করে জানান, ঢাকাবাসী নগর পরিবহনকে গ্রহণ করেছেন। এখন থেকে ঢাকায় সব নতুন বাস চলবে, আর কোনো পুরোনো বাস চলবে না। তারা যাত্রীদের প্রতি আহ্বান জানান, যেন নিয়ম মেনে বাসে চলাচল এবং যেখানে-সেখানে বাস থামিয়ে ওঠা বা নামার জন্য কোনো ধরনের আবদার না করা হয়।

শৃঙ্খলা না থাকলে উন্নয়নে সুফল আসবে না উল্লেখ করে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, রোডস অ্যান্ড হাইওয়েকে বলছি, কোনো জায়গা ধরে রাখার দরকার নাই। এই জায়গাগুলো যদি সিটি করপোরেশন চায়, তাদের দিয়ে দিতে। ঢাকা এখনো বাসযোগ্য নয়। দুই মেয়র কাজ করছে, অবশ্যই ক্লিন সিটি হিসেবে গড়ে উঠবে। জনভোগান্তির আর কোনো প্রজেক্ট হাতে নেবেন না। গাজীপুরে বিআরটি ভোগাচ্ছে, আর কোনো ভোগান্তি চাই না।

ডিসেম্বরের মধ্যে আরেকটি রুটে নগর পরিবহন সেবা চালু হবে বলে জানানো হয়।

ঠিকানা/এনআই