দক্ষতার সঙ্গে বিচারকাজ পরিচালনা করছেন বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ

৩৮ বছর ধরে বিচারকাজ পরিচালনা করে যাচ্ছেন বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ। এর মধ্যে হাইকোর্টে বিচারক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন আট বছর ধরে। অধস্তন আদালতে মুনসেফ হিসাবে যোগদানের মধ্য দিয়ে বিচারক হিসাবে তার পথচলা।

এরপর থেকে তিনি একাগ্রতা ও নিষ্ঠার সঙ্গে বিচারপ্রার্থী জনগণকে ন্যায় বিচার প্রদান করে চলেছেন। বর্তমানে হাইকোর্টের ফৌজদারি মোশন বেঞ্চের কনিষ্ঠ বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিজ্ঞানে উচ্চতর ডিগ্রি লাভ করেন বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ। এরপর তিনি ১৯৮১ সালের ৮ ডিসেম্বর জুডিশিয়াল সার্ভিসে মুনসেফ হিসাবে যোগদান করেন। ১৯৯৮ সালের পয়লা নভেম্বর পদোন্নতি পান জেলা ও দায়রা জজ হিসেবে। ১২ বছর জেলা জজ হিসেবে দায়িত্ব পালনের পর ২০১০ সালের ১৮ এপ্রিল হাইকোর্টের অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান। দুই বছর দক্ষতার সঙ্গে অতিরিক্ত বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালনের পর তাকে স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।

১৯৯০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভাড ল’ স্কুলে সার্টিফিকেট কোর্সে অংশ নেন বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ। ১৯৯৬ সালে কানাডায় অনুষ্ঠিত ইন্টারন্যাশনাল উইমেন জাজেস এ্যাসোসিয়েশনের সম্মেলনে যোগ দেন। ২০১২ সালে যোগ দেন যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত ন্যাশনাল উইমেন জাজেস এ্যাসোসিয়েশনের সম্মেলনে। ১৯৫৫ সালের ১০ অক্টোবর জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত বর্তমানে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে ছয়জন নারী বিচারপতি রয়েছেন। এরা হলেন- বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী, বিচারপতি জিনাত আরা, বিচারপতি ফারাহ মাহবুব, বিচারপতি নাইমা হায়দার, বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ ও বিচারপতি কাশেফা হোসেন।