দুঘর্টনায় ক্ষতিগ্রস্থদের অধিকার ও সতর্কতাসমূহ প্রসঙ্গে

মোহাম্মদ এন মজুমদার

জীবন ও দুর্ঘটনা একই সুতোয় আবদ্ধ একটি মালার মতো। জীবনের প্রতিটি মুহূর্তেই দুর্ঘটনা ঘটতে পারে পথে-ঘাটে, রাস্তায়, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, পার্ক, কিচেন কর্মস্থল, গৃহস্থালী এবং খেলাধুলার স্থানে। সর্বস্থানেই দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। প্রত্যেকটি দুর্ঘটনারই যেমন ভিন্ন ভিন্ন পেক্ষাপট এবং ভিন্ন ভিন্ন পরিস্থিতি থাকে, একইভাবে প্রত্যেকটি ক্ষেত্রেই ভিকটিমের ভিন্ন ভিন্ন অধিকার রয়েছে। যেমন : কর্মস্থলে দুর্ঘটনার জন্য এক ধরনের অধিকার রয়েছে ভিকটিমদের। আবার রাস্তায় পথচারীর এক ধরনের অধিকার, হাসপাতালে চিকিৎসাধীনদের অধিকারও ভিন্ন হতে পারে।

এই প্রসঙ্গে একটি উদাহরণ দিয়েই চেষ্টা করবো পাঠকদের বুঝাতে কিভাবে একটি দুর্ঘটনাই কয়েকটি মামলার জন্ম দিতে পারে। যেমন, দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ একজন বাদী ‘জন ডো’ একটি বড় এপার্টমেন্ট বিল্ডিংয়ে বসবাস করেন তার স্ত্রীসহ। অপেক্ষাকৃত পুরনো এই বিল্ডিংয়ের জরাজীর্ণ অবস্থা সম্পর্কে মালিক কয়েক বছর যাবৎ অবগত আছেন।

একদিন তাদের বাংলা ঘরের স্টোভ অকেজো হয়ে গেলে জন ডো ল্যান্ডলর্ডকে কল দেন। ল্যান্ডলন্ড ২ সপ্তাহ পরে একটি স্টোভ অর্ডার দেন এবং বাসায় লাগিয়ে দেন। দুর্ভাগ্যজনক সত্য যে, স্টোভটি ম্যানুফাকচার বা নির্মাতা কর্তৃক ডিফেকটিভ বা ভুলভাবে নির্মিত ছিল। ২/৩ দিন ব্যবহারের পরেই হঠাৎ রান্নার সময় স্টোভে বিকট শব্দে আগুন ধরে যায়। আগুন নিভাতে আপ্রাণ চেষ্টারত অবস্থায় গৃহকর্মী আগুনে জ্বলে যায়। তার মুখের দাড়িগোঁফ-চুল জ্বলে যায়। এছাড়া দৌড়াদৌড়ি করতে গিয়ে হাঁটু ভেঙে যায়। একই অবস্থা হয় তার ঘরে থাকা গৃহকর্মী জেনি ডো এর বাদী একজন বৃদ্ধ ও রোগাক্রান্ত হওয়ার জোনি ডো স্বাস্থ্যকর্মী হিসাবে কাজ করতে গিয়ে তিনিও আঘাতপ্রাপ্ত হন। পাশের রুমে ঘুমন্ত বাদীর স্ত্রী পেনি ডো দেখতে থাকেন বিস্মিত ও হতবাক হয়ে কীভাবে আগুনে পুড়ে যাচ্ছে তার প্রিয়তম স্বামী। পেনি ডো মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন, কান্নায় ও চিৎকারে সারা ঘর প্রকল্পিত হতে থাকে।

এই ঘটনায়- ১. জন ডো তার ল্যান্ডলর্ডের বিরুদ্ধে শারীরিক ও আর্থিক ক্ষতিপূরণের মামলা করতে পারেন। ২. জন ডোর স্ত্রী তার Mental and emotional Distress-এর জন্য ল্যান্ডলর্ডের বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণের মামলা করতে পারেন। ৩. জন ডোর স্বাস্থ্যকর্মী জোনি ডো যেহেতু কর্মস্থলে আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছেন, তিনিও ল্যান্ডলর্ডের বিরুদ্ধে শারীরিক ও মানসিক ক্ষতি এবং তার বেতন ও ভাতার দাবিতে লেবার কোর্টে মামলা করতে পারেন।

এছাড়া সবচেয়ে বড় মামলা হচ্ছে স্টোভ নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। কারণ ডিফেকটিভ তথা ত্রুটিপূর্ণ একটি স্টোভ সরবরাহের কারণই দুর্ঘটনার যেহেত উৎপত্তি হলো, সেই ক্ষেত্রে উক্ত নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানকেই পুরো দায়ভার নিতে হবে। এই ক্ষেত্রে ডন ডো এবং তার স্ত্রী ও গৃহকর্মীর অনীত সব মামলার খরচ ও ক্ষতিপূরণের দাবি নিয়ে ল্যান্ডলর্ড স্টোভ নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে বৃহত্তর মামলা দায়ের করতে পারেন। এইভাবে একই ঘটনায় বহু ধরনের প্রতিকার থাকতে পারে। সুতরাং যেকোন দুর্ঘটনায় অভিজ্ঞ ও পারদর্শী আইনী প্রতিষ্ঠানের সহায়তা নিন।

পরিচিতি : এই প্রবন্ধটির লেখক মোহাম্মদ এন মজুমদার, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলবি এবং নিউইয়র্কস্থ টরো ল সেন্টার থেকে আইনে এলএলএম ডিগ্রিধারী, তিনি নিউইয়র্কস্থ একটি ল ফার্মে ১৯৯৯ সাল থেকে কর্মরত আছেন। এ ছাড়াও তিনি নিউইয়র্কের বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। তিনি ব্রঙ্কস প্লানিং বোর্ড-৯ এর সদস্য ফাস্ট ভাইস চেয়ারম্যান এবং ল্যান্ড এন্ড জোনিং কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে ২০১০ সাল থেকে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। উপরোক্ত লিখাটি লেখকের সুদীর্ঘকালের ল ফার্মে কর্ম অভিজ্ঞতা যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের ল স্কুলের শিক্ষা থেকেই লিখা। এটিকে লিগ্যাল এডভাইজ হিসেবে গ্রহণ না করে আপনাদের নিজ নিজ আইনজীবীর সহযোগিতা নিন।