দ্বিধাবিভক্ত ক্যালিফোর্নিয়া বিএনপিকে এক করলেন আব্দুস সালাম

লসএঞ্জেলেস : লসএঞ্জেলেস ভ্রমণরত বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির নেতা, বিএনপি  চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা, ঢাকা মহানগরী বিএনপির সাবেক সদস্য সচিব মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম গত ২৪ জানুয়ারি সন্ধ্যায় ক্যালিফোর্নিয়া বিএনপি’র দুই অংশের শীর্ষ নেতৃবৃন্দকে স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে এক টেবিলে নিয়ে বৈঠকে বসেন। সেখানে বিএনপি নেতা আব্দুস সালাম তার স্বাগত বক্তব্যে বাংলাদেশের বর্তমান পরিস্থিতি তুলে ধরেন। সারাদেশের বিএনপি নেতা কর্মীদের উপর অবর্ণনীয় নির্যাতন, হামলা-মামলা-গ্রেফতার, প্রতিদিন শত শত নেতাকর্মীর দলবেঁধে কোর্টে হাজিরা প্রভৃতি উঠে আসে তার বর্ণনায়।

বিএনপি ভাঙার অপচেষ্টায় সরকারের বিভিন্ন ষড়যন্ত্র, যার ধারাবাহিকতায় মিথ্যা মামলায় দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রীকে মিথ্যা মামলায় জেলে প্রেরণ ও নির্বাচন থেকে দূরে রাখা তুলে ধরে তিনি বলেন, “তবুও এই বিপদের দিনে বাংলাদেশে বিএনপি এক রয়েছে। অথচ সামান্য কারণে আপনারা কেন দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে একই দল করবেন? আপনারা তো বাংলাদেশকে ভালোবেসে এই প্রবাসে দল করছেন। আপনারা বি এন পি কে ভালোবাসেন, জিয়া-খালেদা জিয়া-তারেক রহমানকে ভালোবাসেন। দেশ ও দলকে কিছু দেবার জন্য দল করছেন। তবে কেন একসাথে নয়? আজই এখানেই আপনাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে একসাথে কাজ করার।আপনারা অতীতের কথা না টেনে, এখন থেকে সামনের দিনে একসাথে সংগঠন চালানোর উপায় ভেবে দেখেন।” তিনি সংগঠন একীভূত করতে কয়েকটি ফর্মূলা তুলে ধরেন উপস্থিত নেতৃবৃন্দের সামনে। সকলের মতামত প্রদানের পর সংগঠন একীভূত করার সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত হয়।

এ পর্যায়ে বিএনপি নেতা আব্দুস সালাম এখন থেকে সকল গ্রুপকে বিবৃতি ও সংবাদ প্রেরণে বিরত থাকতে বলেন। আগামী ২০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে একটি ঐক্যবদ্ধ ক্যালিফোর্নিয়া বিএনপি কমিটি গঠনের দায়িত্ব দেওয়া হয় নিয়াজ মুহাইমেন, এম ওয়াহিদ রহমান, আব্দুল বাসিত ও মোরশেদুল ইসলামকে। সেই নুতন কমিটির নেতৃত্বে আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি পালনের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এই প্রবাস থেকে ঐক্যবদ্ধ দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে দেশনেত্রী সাবেক প্রধান মন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কারামুক্তিতে অবদান রাখতে তিনি সকলের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।