নরসিংদীতে বউ পেটাতে বাধা পেয়ে কুপিয়ে তিনজনকে হত্যা

ঠিকানা অনলাইন : দাম্পত্য কলহের জেরে নরসিংদী জেলার শিবপুরে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করেছেন এক ব্যক্তি, বাধা দিতে গিয়ে তার হাতেই প্রাণ গেছে বাড়িওয়ালা দম্পতির। আজ রবিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ভোর ৪টার দিকে নরসিংদী জেলার শিবপুর উপজেলার কুমড়াদি গ্রামের তাজুল ইসলামের বাড়িতে এ ঘটনায় আরও দুইজন আহত হয়েছেন। ঘটনার পর পুলিশ গিয়ে বাদল মিয়া নামের ওই ব্যক্তিকে আটক করেছে বলে শিবপুর থানার ওসি মোল্লা আজিজুর রহমান জানিয়েছেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে, তাজুলের বাড়ির ভাড়াটিয়া কাঠমিস্ত্রী বাদল ভোর বেলা পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীকে পেটাচ্ছিলেন। চিৎকারে ঘুম থেকে উঠে বাড়ির মালিক তাজুল ইসলাম ও তার স্ত্রী মনোয়ারা বেগম ঠেকাতে গেলে দা নিয়ে সবার ওপর চড়াও হন বাদল। দায়ের কোপে বাদলের স্ত্রী নাজমা বেগম (৪৫) এবং বাড়ির মালিকের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৬০) ঘটনাস্থলেই মারা যান। আশপাশের লোকজন ছুটে এসে বাড়ির মালিক তাজুল ইসলাম (৭০), তার মেয়ে কুলসুম (২০) এবং বাদলের ছেলে সোহাগকে (১০) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করে। হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসকরা তাজুলকেও মৃত ঘোষণা করেন। পরে শিবপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মনোয়ারা ও নাজমার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

ওসি মোল্লা আজিজুর রহমান বলেন, ‘বাদলকে আমরা আটক করেছি। সেখানে যা ঘটেছে আমরা তদন্ত করে দেখছি।’ পেশায় কাঠমিস্ত্রী বাদলের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার ইছাখালী গ্রামে।

ঠিকানা/এসআর