নিউইয়র্কে যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে র‌্যালি

ঠিকানা রিপোর্ট : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে নিউইয়র্কে র‌্যালি ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের উদ্যোগে ১ নভেম্বর মঙ্গলবার নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার্সিটি প্লাজায় শান্তির পায়রা আর লাল-সবুজের বেলুন উড়িয়ে কর্মসুচী শুরু হয়। এরপর র‍্যালি বের হয়। র‌্যালিটি জ্যাকসন হাইটসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের সভাপতি জাকির এইচ. চৌধুরী এবং সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ আহমদের নেতৃত্বে র‍্যালিতে ব্রুকলিন, ব্রঙ্কস ও কুইন্সের বিভিন্ন এলাকার যুবদল নেতা-কর্মীরা যোগদান করেন। র‍্যালি শেষে স্থানীয় একটি মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের সভাপতি জাকির এইচ চৌধুরী। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ আহমদের পরিচালনায় এ আলোচনায় প্রধান অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে সফররত বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য ড. নিলুফার চৌধুরী মনি। আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন মনোয়ারা বেগম মনি, মার্শাল মুরাদ, মিজানুর রহমান সোহেল, সাবেক ভিপি জহির মোল্লা, সারোয়ার খান বাবু, রফিকুল ইসলাম ডালিম, আবুল কাশেম, আমানত হোসেন আমান, মিজানুর রহমান মিজান, কাজী আমিনুল ইসলাম স্বপন, বিএম বাদশাহ, হেলালুর রহমান, এমদাদ তরফদার, আনোয়ারুল ইসলাম পলাশ, শাহবাজ আহমেদ, ইঞ্জিনিয়ার মো. মাইনুদ্দিন, সেলিম আহমেদ, সিদ্দিক পাটোয়ারী, ফরিদ খন্দকার, সালেহ আহমেদ রুমেল, আহসান উল্লাহ মামুন, আল মামুন সবুজ, মাঈনুল হাসান মোহিদ, অহিদুজ্জামান নিলু ও মনিরুল ইসলাম।
আলোচনা সভায় বাংলাদেশ থেকে টেলিফোনে বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় যুবদলের সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকু ও সাধারণ সম্পাদক আবদুল মোনায়েম মুন্না।
আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক প্যানেল মেয়র ও চট্টগ্রাম মহানগর মহিলা দলের সাবেক সভাপতি মনোয়ারা বেগম মনি, শামীম মাহমুদ, মাসুদ রানা, সালাউদ্দিন রুবেল ও রহিমুল ইসলাম যুবরাজ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে নিলুফার চৌধুরী মনি বলেন, মামলা-হামলা-গুমের আতংকে পালিয়ে যারা এই আমেরিকায় এসেছেন, তারা কষ্টার্জিত অর্থ রেমিটেন্স করছেন, পাশাপাশি একটি ফ্যাসিস্ট সরকারের বিরুদ্ধে বিএনপির রাজনৈতিক কর্মসূচিতে আর্থিক সহায়তা দিয়ে আমাদেরকে উজ্জীবিত করছেন। আমি আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ দলের পক্ষ থেকে, চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকেও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ এখন যে জায়গায় এসে দাঁড়িয়েছে, খুব সত্বর আমরা একটা নতুন বাংলাদেশ পাবো। সেই নতুন বাংলাদেশে আমি এখানকার অনেককেই দেখবো। বিশেষ করে যারা মামলা-হামলার কারণে পালিয়ে এসেছেন এবং এদেশে অবৈধভাবে বাস করছেন, তারা সকলেই ফিরবেন সেই নতুন দেশে। আমরা সেই যুদ্ধ করছি। আপনারাও যুদ্ধ করেন।