নিউইয়র্ক, নিউজার্সি ও কানেকটিকাটে প্রবেশ করলেই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন

ঠিকানা রিপোর্ট : যুক্তরাষ্ট্রের তিনটি অঙ্গরাজ্য নিউইয়র্ক, নিউজার্সি ও কানেকটিকাটে কেউ প্রবেশ করলেই দুই সপ্তাহের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। এই তিন রাজ্যে একযোগে নতুন ভ্রমণ নির্দেশিকাও ঘোষণা করা হয়েছে।

নির্দেশিকা অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ এর ‘হটস্পটগুলো’ থেকে এ তিন রাজ্যে ঢুকলেই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। গত ২৫ জুন থেকে এ নিয়ম কার্যকর হয়েছে। উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় এ তিনটি রাজ্যই একসময় করোনাভাইরাসের হটস্পট ছিল। এবার এ রাজ্যগুলোর গভর্নররা অন্য রাজ্য থেকে সেখানে ভ্রমণের ওপর এমন কড়াকড়ি আরোপ করলো। যেসব রাজ্যে ৭ দিনে গড়ে জনসংখ্যার ১০ শতাংশ কোভিড-১৯ আক্রান্ত হচ্ছে সেখানকার মানুষদের জন্যই কোয়ারেন্টাইনের এ নিয়ম প্রযোজ্য হবে। এই হারে করোনাভাইরাস সংক্রমণ এখন দেখা যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের ৯টি রাজ্যে। এগুলো হলো: অ্যালাবামা, আরাকানসাস, অ্যারিজোনা, ফ্লোরিডা, নর্থ ক্যারোলাইনা, সাউথ ক্যারোলাইনা, ওয়াশিংটন, ইউটাহ এবং টেক্সাস। ফলে এসব রাজ্য থেকে ভ্রমণকারীদের মানতে হবে কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম। রোগী শনাক্তের হারের ভিত্তিতে পরে এ তালিকায় পরিবর্তন আসতে পারে। নিউইয়র্কের গভর্নর এন্ড্রু ক্যুমো বলেছেন, তিনি চান না অন্য রাজ্য থেকে কেউ সেখানে কোভিড-১৯ নিয়ে আসুক। কারণ ভাইরাস সংক্রমণ কমিয়ে আনতে নিউইয়র্ককে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে।

নিউইয়র্কে কোয়ারেন্টিনের নির্দেশ কেউ ভঙ্গ করলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে। প্রথমবার নিয়মভঙ্গের জন্য করা হতে পারে ২ হাজার ডলার জরিমানা, দ্বিতীয়বারের জন্য ৫ হাজার ডলার এবং কেউ ক্ষতির কারণ হলে তার জন্য ১০ হাজার ডলার পর্যন্ত জরিমানা করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন ক্যুমো।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কেন্দ্র হয়ে উঠেছিল নিউইয়র্ক। এখানে সোয়া ৪ লাখ রোগী শনাক্ত হয়েছে, মৃত্যু হয়েছে ৩১ হাজারের বেশি মানুষের। এখন যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ এবং পশ্চিমাঞ্চলের অন্যান্য রাজ্যগুলোতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বাড়ছে।