নিবন্ধনের সুযোগ বাড়ল বিদেশি ফুটবলারদের


স্পোর্টস রিপোর্ট : আসছে মৌসুমে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ও চ্যাম্পিয়নশিপ লিগের দলগুলো এশীয় কোটার একজনসহ সর্বমোট পাঁচ বিদেশিকে দলে ভেড়াতে পারবে। গত ৩১ আগস্ট বাফুফে কার্যনির্বাহী কমিটির জরুরি সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় নেয়া অন্যান্য সিদ্ধান্তের মধ্যে আছে আসন্ন লিগ মৌসুমে দুটি করে দলের উত্তরণ এবং অবনমন। গেল মৌসুমের আগে প্রিমিয়ার লিগের সবগুলো ক্লাব দুটি করে দলের রেলিগেশনের ব্যাপারে সম্মত হয়েছিল। কিন্তু বিপত্তিটা বাধে মৌসুমের শেষে। কিছু দল তখন কেবল লিগের তলানিতে থাকা দলটিকে অবনমনের দাবি তোলে। গত ৩১ আগস্ট বাফুফে কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় এই দাবির যথার্থতা নিয়ে আলোচনা শেষে পূর্ববর্তী বাইলজ বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ ব্যাপারে বাফুফে সিনিয়র সহসভাপতি এবং লিগ কমিটির চেয়ারম্যান সালাম মুর্শেদী বলেন, ‘প্রিমিয়ার লিগের কিছু দলের অনুরোধ ছিল যেন প্রিমিয়ার লিগ থেকে অবনমন একটা দলে সীমাবদ্ধ রাখা হয়। এ ব্যাপারে আমাদের মত, লিগ বাইলজ অনুযায়ীই চলবে। অর্থাৎ বিপিএল এবং চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে দুটি করে দলই রেলিগেটেড হবে এবং লিগে উঠে আসবে।’

চলতি কাঠামোয় প্রিমিয়ার লিগ এবং চ্যাম্পিয়নশিপ লিগে ১৩ দল অংশ নেয়। ফলে প্রতি রাউন্ডে একটি দলকে বিশ্রামে রাখতে হয়। এর ফলে লিগ শেষ করতেও কিছুটা বেশি সময় লাগে। প্রিমিয়ার লিগের দলগুলোর দাবির পেছনে এই যুক্তিই কাজ করছিল। এটিকে মাথায় রেখে পরবর্তী মৌসুমে (২০২০-২১) জোড় সংখ্যক দলের অংশগ্রহণের কথা বিবেচনায় রাখছে কার্যনির্বাহী কমিটি।
প্রিমিয়ার লিগের দলগুলোর আরেকটা দাবি ছিল বিদেশি খেলোয়াড় নিবন্ধনের সুযোগ বাড়ানো। এ ব্যাপারে সায় মিলেছে। আসছে মৌসুম থেকে একজন করে বাড়তি বিদেশি খেলোয়াড় দলে ভেড়াতে পারবে প্রতিটি ক্লাব। তবে তা কেবল নিবন্ধনেই সীমাবদ্ধ থাকবে। ম্যাচের জন্য চূড়ান্ত খেলোয়াড় তালিকায় কেবল চারজনকেই অন্তর্ভুক্ত করতে পারবে ক্লাবগুলো।
লিগে বিভিন্ন ক্লাব ভিসাহীন কিংবা ভিসার মেয়াদ নেই এমন খেলোয়াড়কে খেলায় বলে অভিযোগ আছে। বেশ পুরনো এই অভিযোগের ব্যাপারেও আসছে মৌসুম থেকে বাফুফে কঠোর হবে বলে জানানো হয়েছে।
এ ছাড়াও পরের মৌসুমে ঢাকার অদূরে ভেন্যুর সংখ্যা বাড়ানোর নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাফুফে। নতুন ভেনু হওয়ার দৌড়ে আছে ঢাকার আর্মি স্টেডিয়াম। প্রিমিয়ার লিগকে আরো গতি দিতেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানালেন সালাম মুর্শেদী।
লিগ কমিটির চেয়ারম্যানের ভাষ্য, ‘সংস্কার কাজ এবং বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ইভেন্টে ব্যস্ত থাকবে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম। ফলে আমরা চাইছিলাম ঢাকার অদূরে কিংবা ঢাকার ভেতরেই আরো দুটো স্টেডিয়ামে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচ হোক এবং কার্যনির্বাহী কমিটি এ ব্যাপারে সায় দিয়েছে। এটা হয়ে গেলে লিগ সূচিতেও বেশ গতি আসবে।’