নির্বাচনী বছরে কালো টাকার ছড়াছড়ি হবে : অর্থমন্ত্রী

রাজনীতি ডেস্ক : অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, নির্বাচনী বছরে বাজারে কালোটাকার ছড়াছড়ি বাড়বে। তিনি বলেন, এটা নির্বাচনের বছর, টাকা-পয়সার ছড়াছড়ি হবে, কালোটাকাও আসবে। এ জন্য ঋণ বিতরণে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। ব্যাংকিং খাতে এডিআর স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি আছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। গত ২৮ জানুয়ারি রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে রাষ্ট্রীয় মালিকানার রূপালী ব্যাংকের বার্ষিক ব্যবসায়িক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন অর্থমন্ত্রী। অনুষ্ঠানে আর্থিকভিত্তি শক্তিশালী করতে সরকারের কাছে মূলধনও চেয়েছে রূপালী ব্যাংক।
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, ব্যাংকের ক্ষেত্রে অ্যাভডান্স-ডিপোজিট রেশিও (ঋণ ও আমানতের অনুপাত) একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বাংলাদেশে ওই অনুপাত সাধারণ মাত্রার চেয়ে বেশি আছে, যা নিয়ন্ত্রণ করা দরকার। এটা দেখে বাংলাদেশ ব্যাংক। এবার তাদের বিশেষভাবে জোর দিতে হবে, কারণ আপনারা সবাই জানেন এ বছর নির্বাচনের বছর।
তিনি বলেন, ব্যাংকিং ব্যবস্থা নিয়ে সকলেই আমাদের প্রশ্ন করে থাকেন, যেমন বলেন যে ব্যাংকিং অবস্থা দুর্বল, তারা ভুলে যান, আমরা কী অবস্থা থেকে ব্যাংকিং শুরু করেছি। ব্যাংকিং ব্যবস্থা যখন শুরু হল তখন সবচেয়ে বড় সমস্যা ছিল ডিফল্ট (খেলাপি ঋণ); ডিফল্ট রেট অর্ধেকের বেশি ছিল। সেখান থেকে ডিফল্ট রেট কমে এসেছে সরকারি ব্যাংকের ক্ষেত্রে গড়ে ১১ পার্সেন্টের মতো। আমরা যথেষ্ট উন্নতি সাধন করেছি।
অর্থমন্ত্রী বলেন, দেশের ব্যাংক খাত আস্তে আস্তে প্রসার হচ্ছে। এ খাতের অবস্থা এখন ‘মোটামুটি ভালো’। ব্যাংক খাত যদি দুর্বল হতো, তাহলে অর্থনৈতিক উন্নয়নও সম্ভব হতো না। দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা বেশ উল্লেখযোগ্যভাবে উন্নতি হয়েছে।