নীল ছবির যোগ্যতা নিয়ে ভুল ভাঙালেন সানি লিওন

ঠিকানা অনলাইন : নীল সিনেমার জগতে সানি লিওনির ছিল আকাশচুম্বী জনপ্রিয়তা। কিন্তু সেই ইন্ডাস্ট্রি ছেড়ে সানি চলে আসেন মূল ধারার সিনেমায়। বলিউডে নাম লেখান। অভিনয় কিংবা আইটেম গানে নাচ- সব কিছুতেই নিজেকে মেলে ধরেন। এখন সিনেমা, ওয়েব সিরিজ, টেলিভিশন শো নিয়ে ব্যস্ত তিনি।

তবে বলিউডে এসে কটাক্ষ, বিদ্রুপ কম শুনতে হয়নি সানিকে। নীল ছবির জগৎ নিয়ে সেভাবে কখনো প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি তিনি। বার বার এ প্রসঙ্গ এড়িয়ে গেছেন তিনি।

তবে বছর দুয়েক আগে একটি স্ট্যান্ড আপ কমেডি শোতে সানির অন্য এক দিক প্রকাশ্যে আসে। সেখানেই নীল ছবির জগৎ সম্পর্কে ভুল ধারণা ভাঙান। হাস্যরসের মোড়কে বলিউডকে একহাত নেন সানি।

অনেকেই মনে করেন, পর্ন ছবিতে অভিনয় করতে গেলে ফর্সা রং, উচ্চতা থাকার প্রয়োজন। কিন্তু এই ধারণা একেবারেই ভুল। শুধু তাই নয় বলিউডকে ঠেস দিয়ে বলেন, ‘পর্ন ছবিতে কাজ করতে গেলে রোগা, মোটা কোনো কিছুরই প্রয়োজন নেই। দরকার বিশেষ ধরনের দক্ষতার।’

বহু বছর হয়েছেন নীল ছবির জগৎকে বিদায় জানিয়েছন তিনি। সানির স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবার নিজেও একজন সাবেক পর্ন তারকা। তবে বেশিরভাগ সময় তাকে সানির সঙ্গেই কাজ করতে দেখা গেছে।

ড্যানিয়েল একজন গিটারবাদক। তিনি সানির ম্যানেজারও। ২০১১ সালে সানি ও ড্যানিয়েলের বিয়ে হয়। তাদের তিনটি সন্তান। ২০১৭ সালে এই দম্পতি এক শিশুকন্যাকে দত্তক নেন। এছাড়াও ২০১৮ সালে সারোগেসি পদ্ধতিতে এই দম্পতির যমজ ছেলে হয়। আপাতত স্বামী-সন্তান নিয়ে মুম্বাইয়ে থাকেন সানি লিওন।

ঠিকানা/এসআর