পুত্রের হাতে অধ্যাপিকা ব্রিল ডে এবং তার স্বামী খুন

ঠিকানা ডেস্ক : অবশেষে ইলিনয়ের ব্র্যাডলী বিশ্ববিদ্যালয়ের খ্যাতনামা কলেজ অধ্যাপিকা সুসান ব্রিল ডে রামিরেজ এবং তার স্বামী ইনফরমেশন টেকনলজিস্ট অ্যান্টোনিয়ো রামিরেজ বারণের মরদেহের সন্ধান মিলেছে। ব্রিল ডে এবং অ্যান্টোনিয়ো দম্পতির ২১ বছর বয়স্ক পুত্র যোসে রামিরেজকে গ্রেপ্তারের পর তার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির পরিপ্রেক্ষিতে নিজেদের বাড়ি থেকে প্রায় ৫০ মাইল দূরে অনুসন্ধান চালিয়ে মরদেহের সন্ধান পাওয়া গেছে বলে ৩ নভেম্বর জানা গেছে।
ব্রাডলী বিশ্ববিদ্যালয়ের পিয়োরিয়া স্কুলের অধ্যাপিকা ৬৩ বছর বয়সী ব্রিল ডে এবং একই স্কুলের ইনফরমেশন টেকনলী ডিপার্টমেন্টে কর্মরত একই বয়সী অ্যান্টোনিয়ো কয়েক দিন আগে নিখোঁজ হন বলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানায়। ব্রিল ডে দম্পতি নিখোঁজ হওয়ার পর তাদের একমাত্র পুত্র যোজে রামিরেজ বন্ধু-বান্ধবদের জানায় যে পিতা-মাতার উপর সে চরমভাবে ক্ষুব্ধ ছিল। এদিকে ব্রিল ডে দম্পতির একমাত্র সন্তান যোসের হাবভাবে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার কর্মকর্তাদের সন্দেহ হয়। অবশেষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যগণ যোসে রামিরেজকে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে পিতামাতাকে খুন করে লাশ গুম করার কথা স্বীকার করে বলে পেয়োরিয়া কাউন্টি অ্যাসিস্ট্যান্ট স্টেট এটর্নী ডাভে কেনী জানান। তার বিরুদ্ধে প্রথম ডিগ্রী মানুষ খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলেও কেনী জানান। প্রসেকিউটরগণ আদালতকে জানান যে হত্যাকান্ডের রাতে পিতা-মাতা নাক ডেকে ঘুমিয়ে পড়ার আগ পর্যন্ত যোসে ওঁৎপেতে থাকে। পিতা-মাতা গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন হয়ে পড়ার পর যোসে তাদের শয়নকক্ষে ঢুকে এবং তাদের মুখের উপর মরিচের গুঁড়ো ছিটিয়ে দেয়। তারপর বর্বর যোসে পিতার পেটে এবং ঘাড়ে আঘাত করে। এ সময় তার মাতা জেগে গেলে যোসে মায়ের পেটেও বার বার ছুরিকাঘাত করে উভয়কে খুন করে। তারপর ভালোভাবে কাপড়ে পেচিয়ে মরদেহ দুটি পিতার এসইউভি গাড়িতে তুলে নেয় এবং বাড়ি থেকে প্রায় ৫০ মাইল দূরবর্তী আনাওয়ানের হেনরী কাউন্টি কমিউনিটিতে নিয়ে যায়। পরিশেষে ব্রিজের উপর থেকে মরদেহ দুটি স্পুন রিভারে ফেলে দেয় বলে কেনী জানান। পেয়োরিয়া কাউন্টি ডেপুটীগণ জানান যে তারা যোসের গৃহে তল্লাশি চালিয়ে রক্তসহ কিছু নমুনা জব্দ করেছেন। ইলিনয়ের পেয়োরিয়া কাউন্টি করোনার জ্যামী হারউড জানান যে তিনি নিহত অধ্যাপিকা ব্রিল ডে রামিরেজ এবং তার স্বামী অ্যান্টোরিয়োর লাশ শনাক্তে সক্ষম হয়েছেন। অভিযুক্ত যোসে রামিরেজের জামিনের শর্ত হিসেবে ৩ মিলিয়ন ডলার ধার্য করেছেন বিজ্ঞ বিচারক সীয়ান ডোনাহিউ। ২৯ নভেম্বর যোসের প্রাথমিক শুনানীর দিন ধার্য করা হয়েছে। বর্তমানে তাকে বিনা জামিনে আটক রাখা হয়েছে। এদিকে উক্ত মামলায় ২১ বছর বয়স্ক ম্যাথৌ রবার্টস নামক অপর এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিচারে বাধা সৃষ্টি এবং মরদেহ লুকিয়ে রাখার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পেয়োরিয়া কাউন্টি শেরিফ ব্রায়ান আশবেল জানান, হত্যাকান্ডের সাথে রবার্টসের জড়িত থাকার কোন নমুনা তার পাননি। তবে সে যথাসম্ভব হত্যাকান্ডের খবর জানত বলে শেরিফের ধারণা।