পৃথিবীর যা কিছু দেয়ার আছে দীপিকাই তার সেরা

বলিউডের অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোন এখন টাইম ম্যাগাজিনের ১০০ জন প্রভাবশালীর একজন। তিনিই প্রথম ভারতীয় অভিনেত্রী যিনি এ তালিকায় জায়গা করে নিলেন।

দীপিকার জন্য যেমন এটা একটা মহাখুশির খবর, তেমনি তার শুভাকাঙ্ক্ষীদের জন্যও। আর দীপিকার এ অর্জনে ভিন ডিজেলের চেয়ে বেশি খুশি বোধহয় আর কেউ হননি। ‘এক্সএক্সএক্স: দ্য রিটার্ন অব জেন্ডার কেজ’ এই সিনেমাটির মধ্যে দিয়ে ডিজেলের সঙ্গে হলিউডে প্রথম পা রেখেছিলেন দীপিকা।

৩২ বছর বয়সী দীপিকার প্রশংসায় কোনো কার্পণ্য করেননি ভিন ডিজেল। ডিজেল লিখেছেন, এই পৃথিবী যা কিছু দেয়ার মতো আছে দীপিকাই তার সেরা। তিনি কেবল ভারতকেই প্রতিনিধিত্ব করেন না, তিনি পুরো বিশ্বকে প্রতিনিধিত্ব করেন।

জবাবে ভিন ডিজেলকে ট্যাগ করে ইনস্টাগ্রামে দীপিকা লিখেছেন, ‘চিরকৃতজ্ঞ।’

বলিউড নায়কদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দিপিকা পাড়ুকোন যে অনেকটাই এগিয়ে আছেন তার প্রমাণ তিনি দিয়েছেন ২০১৫ সালেই। পিকু,বাজিরাও মাস্তানির মতো সিনেমার মাধ্যমে দেখিয়ে দিয়েছেন একটি সিনেমার পুরো দায়িত্ব নিজের ঘাড়ে নেয়ার সামর্থ্য রয়েছে তার। ভারতীয় সাময়িকী ইন্ডিয়া টুডে তথ্য অনুযায়ী,২০১৫ সালে ছবি প্রতি ১০ কোটি রুপি করে পারিশ্রমিক নিয়েছেন দিপিকা। কিন্তু ২০১৬ তে এসে তার পারিশ্রমিক বেড়ে হয়েছে ১৫ কোটি! তথ্য অনুযায়ী ২০১৬ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত, দিপিকাই হচ্ছেন সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া বলিউড অভিনেত্রী।

যৌন আবেদনে ভারত শুধু নয়, এশিয়া মহাদেশেই দীপিকা পাড়ুকোনের কোনো সমকক্ষ নেই। এর আগে ইস্টার্ন আই নামে লন্ডনের একটি সংবাদমাধ্যম যারা ‘এশিয়ার সেরা যৌন আবেদনময়ী নারী’র সমীক্ষাটি করেছে তাদের দেয়া তথ্য বলছে শিরোপা পেতে হলিউডে দীপিকার অভিযান প্রচুর ভোট টেনেছে। ‘এশিয়ার সেরা যৌন আবেদন নারী’দের তালিকায় দীপিকার পেছনেই আছেন প্রিয়াংকা চোপড়া। আলিয়া ভাট আছেন পঞ্চম স্থানে।

দীপিকার পাশাপাশি আরও দুই ভারতীয় টাইম ম্যাগাজিনের পাতায় জায়গা করে নিয়েছেন। তারা হলেন- ক্রিকেটার বিরাট কোহলি এবং ওলার সহপ্রতিষ্ঠাতা ভাবিস আগারওয়াল।