প্রবাসীদের সর্বোচ্চ সুযোগ-সুবিধা ও নিরাপত্তা চাইলেন সাবেক এমপি এম এম শাহীন

মো. নাজমুল ইসলাম : বাংলাদেশের অর্থনীতির অন্যতম উৎস পোশাক শিল্প ও প্রবাসীদের পাটানো কষ্টার্জিত রেমিট্যান্স। দেশের গার্মেন্টস সেক্টর তার উৎপাদিত পোশাক বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রফতানি করে যেমন প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করছে, সেই সঙ্গে বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বিদেশ থেকে রেমিট্যান্স পাঠিয়ে দেশের অর্থনীতিতে উল্লেখ্যযোগ্য অবদানও রাখছেন। আর অর্থনৈতিক উন্নয়নের এ দু’টি খাতই বিদেশ নির্ভর। বিদেশ নির্ভর এ অর্থনীতিকে ধরে রাখতে হলে আমাদের অবশ্যই প্রবাসীদের সর্বোচ্চ সুযোগ-সুবিধা ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে বলে মন্তব্য করেন সাবেক সাংসদ ও ঠিকানা গ্রæপের চেয়ারম্যান এমএম শাহীন।

গত ২৯ আগস্ট, বৃহস্পতিবার, মৌলভীবাজারের প্রেসক্লাব কুলাউড়ার উদ্যোগে ‘প্রবাসী সংবর্ধনা’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবেক জাতীয় সংসদ সদস্য এমএম শাহীন এসব কথা বলেন, দেশের গার্মেন্টস খাত নিয়ে আজ নানা ষড়যন্ত্র হচ্ছে। পোশাক খাত এবং প্রবাসীদের জন্য সর্বোচ্চ সুযোগ-সুবিধা ও প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে না পারলে দেশের অর্থনীতি বড় ধরনের হুমকিতে পড়বে।

তিনি আরো বলেন, দেশের আয়ের অন্যতম এ দু’টি উৎস থেকে রেমিট্যান্স না এলে বাংলাদেশ একটি দরিদ্র দেশে পরিণত হবে। অথচ সেই গার্মেন্টস খাত নিয়ে চলছে নানা ষড়যন্ত্র। এই ষড়যন্ত্র রোধ করতে হবে এবং প্রবাসীদের সর্বোচ্চ সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে।

এদিকে ‘প্রবাসী সংবর্ধনা’ অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথিরাও তাদের বক্তব্যে বলেন, দেশে অব্যাহত খুন, গুম, অপহরণ, ধর্ষণ, ছিনতাই, চুরি, ডাকাতি বা রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা বিরাজ করলে প্রবাসীরা দেশ বিমুখ হন। প্রবাসে অবস্থান করে যখন মাতৃভূমি দেশের এই দুরাবস্থার খবর শোনেন, তখন অজানা এক আতঙ্কে অনেক প্রবাবাসীই দেশে আসতে চান না। বিশেষ করে ইউরোপ ও আমেরিকা থেকে বহু প্রবাসী দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশে আসতে ভয় পাচ্ছেন। যারা মধ্যপ্রাচ্যে পরিবার-পরিজন নিয়ে বসবাস করছেন, তারাও আজ নানা উদ্বেগে দেশবিমুখ। এই পরিস্থিতির উন্নতি না হলে দেশের রেমিট্যান্স মারাত্মকভাবে কমে আসবে। তাই অর্থনৈতিক অবস্থাকে চাঙ্গা রাখতে প্রবাসীদের জান-মালের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেয়ার আহŸান জানান প্রবাসীরা বক্তারা।

কুলাউড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আজিজুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী আবু সাঈদ ফুয়াদের সঞ্চালনায় প্রবাসী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন সাবেক এমপি ও ঠিকানা গ্রæপের চেয়ারম্যান এমএম শাহীন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন কুলাউড়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফজলুল হক খান সাহেদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেহা ফেরদৌস চৌধুরী পপি। কুলাউড়া সকারি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ সৌম্য প্রদীপ ভট্টাচার্য্য, কুলাউড়া নবীন চন্দ্র সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমির হোসেন, কুলাউড়া ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মইনুল ইসলাম শামীম।

অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন কুলাউড়া বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব আমিরকার সাধারণ সম্পাদক এনায়েত হোসেন জালাল, কুলাউড়া ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের কাতারের প্রধান উপদেষ্টা জামাল উদ্দিন তাফাদার, সৌদি আরব প্রবাসী জাহাঙ্গীর হোসেন এলাইচ, যুক্তরাজ্য প্রবাসী আব্দুস সহিদ, যুক্তরাজ্য প্রবাসী লুৎফুর রহমান পারভেজ, মিশর প্রবাসী আশরাফ আলী পারভেজ, আরব আমিরাত প্রবাসী তায়েফুর রহমান রাজেক।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন কুলাউড়া ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক সিপার আহমেদ, কুলাউড়া পৌরসভার ৩ বারের নির্বাচিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মঞ্জুরুল আলম চৌধুরী খোকন, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মইবুল ইসলাম সবুজ, কুলাউড়া প্রেসকাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি ময়নুল হক পবন, সদস্য তাহিরুল হক প্রমুখ।

কুলাউড়ায় সাংবাদিক সমিতির ঈদ পূণর্মিলনী ও সংবর্ধনা : বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি কুলাউড়া উপজেলা ইউনিটের ঈদ পূণর্মিলনী ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে  ঠিকানা গ্রæপের চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি, বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যক্তিত্ব এম এম শাহীন বলেন, ‘সাংবাদিকতা পেশা অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং। একটি জনপদে লাখো মানুষের ভীড়ে একজন সংবাদকর্মী সৃষ্টি হয়। এটা আল্লাহ প্রদত্ত এক আশীর্বাদ। অনেক সাধনা ও পরিশ্রমে একজন মানুষ প্রকৃত গণমাধ্যমকর্মী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারে।

তিনি আরো বলেন, কুলাউড়ার বিভিন্ন বিষয়ভিত্তিক সমস্যা, সম্ভাবনা ও উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড নিয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে প্রশাসনিক কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সমন্বিত করে গোল টেবিল বৈঠক হলে সব সমস্যা ও আশা-আকাঙ্খা পূরণ সহজ হবে। জনপ্রতিনিধি, প্রসাশনিক কর্মকর্তা ও সাংবাদিকরা একে অপরের পরিপূরক হয়ে কাজ করলে এই রাষ্ট্র অনেক এগিয়ে যাবে।

‘গণমাধ্যমকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় বদলে দেই সমাজ, মানব জীবন ও সমাজ উন্নয়নের একমাত্র মাধ্যম হলো গণমাধ্যম’ এই ¯েøাগানকে সামনে রেখে গত ১ সেপ্টেম্বর, রোববার, সন্ধ্যায় স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি ও সংবাদকর্মীদের উপস্থিতিতে পৌর শহরের একটি চাইনিজ রেস্টুরেন্টে এক মিলন মেলার মাধ্যমে এই অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।

সাংবাদিক সমিতির সহ-সভাপতি, উপজেলা বিআরডিবির ভাইস চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও নির্বাহী সদস্য শাকির আহমেদের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুলাউড়া পৌর মেয়র আলহাজ¦ শফি আলম ইউনুছ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা ফজলুল হক খান সাহেদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেহা ফেরদৌস চৌধুরী পপি, কুলাউড়া স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নুরুল হক, কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইয়ারদৌস হাসান, উপজেলা বিআরডিবিরি চেয়ারম্যান ফজলুল হক ফজলু, কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সদস্য শফিউল আলম শফি, শিল্পকলা একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক সিপার আহমদ, সহকারী অধ্যাপক সিএম জয়নাল আবেদিন, কুলাউড়া মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল কাদির, প্রেসক্লাব কুলাউড়ার সাবেক সভাপতি স্বপন কুমার দেব রতন, সাপ্তাহিক কুলাউড়ার সংলাপ পত্রিকার সম্পাদক-প্রকাশক অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ, কর্মধা ইউপি চেয়ারম্যান এমএ রহমান আতিক, প্রেসক্লাব কুলাউড়ার সভাপতি আজিজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী আবু সাঈদ ফুয়াদ, জেলা সাংবাদিক ফোরামের সহ-সভাপতি এম মছব্বির আলী, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক মইনুল ইসলাম সবুজ, কুলাউড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক আশীষ কুমার ধর প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের দপ্তর সম্পাদক একেএম জাবের, কালের কণ্ঠ প্রতিনিধি মাহফুজ শাকিল। সংবর্ধিত অতিথি ছিলেনÑ কাতারপ্রবাসী বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতা আব্দুল্লাহ আল মামুন রেনু, কুয়েতপ্রবাসী কমিউনিটি নেতা ফরিদ বক্স সোহেল, কুলাউড়া সমিতি ইউএস’র ক্রীড়া ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক খালেদ আহমদ, সাংবাদিক সমিতি কুলাউড়ার অর্থ সম্পাদক, ইয়াকুব তাজুল মহিলা বিশ^বিদ্যালয় কলেজের প্রভাষক আফাজুর রহমান চৌধুরী ফাহাদ, আনজুমানে আল-ইসলাহ কাতার আলকুর শাখার সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান,ওমান প্রবাসী কমিউনিটি নেতা একে উজ্জ্বল প্রমুখ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নবীন চন্দ্র সরকারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আমির হোসেন, কুলাউড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি বিশ্বজিৎ দাস, প্রথম আলো প্রতিনিধি কল্যাণ প্রসূণ চম্পু, প্রেসক্লাব কুলাউড়ার সিনিয়র সহ-সভাপতি ময়নুল হক পবন, ডেইলি স্টার প্রতিনিধি মিন্টু দেশোয়ারা, সাপ্তাহিক সীমান্তের ডাকের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সঞ্জয় দেবনাথ, সাংবাদিক সমিতির সহ-সভাপতি আব্দুল কুদ্দুছ, সহ-সম্পাদক সাইদুল হাসান সিপন, সৈয়দ আশফাক তানভীর, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক সুমন আহমদ, নির্বাহী সদস্য শহীদুল ইসলাম তনয়, শাহ আলম শামীম, এস আলম সুমন, জুয়েল দেব, আব্দুল করিম বাচ্চু, প্রেসক্লাব কুলাউড়ার সদস্য মো. তাহিরুল হক, কুলাউড়া ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মেহেদী হাসান খালিক, কুলাউড়া রিপোর্টার্স ইউনিটের যুগ্ম-সম্পাদক মো. আব্দুল আহাদ, সাংবাদিক সমিতির নির্বাহী সদস্য ইউসুফ আহমদ ইমন, এমএ কাইয়ুম, দৈনিক মৌমাছির কন্ঠের কুলাউড়া প্রতিনিধি আশরাফুল ইসলাম জুয়েল প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত¡াবধানে ছিলেন সাংবাদিক সমিতি কুলাউড়া ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক মো. নাজমুল ইসলাম ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শরীফ আহমদ।

উল্লেখ্য, ঈদ পুণর্মিলনী ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আলোচনা শেষে সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রধান অতিথি এম এম শাহীনসহ প্রবাসী সংবর্ধিত অতিথিদের সম্মাননা স্মারক ও দৈনিক পত্রিকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত কুলাউড়ার কয়েকজন গণমাধ্যমকর্মীর হাতে শুভেচ্ছা স্মারক তুলে দেয়া হয়।