প্রবীণ শিশু সাহিত্যিক হাসানুর রহমান-এর ৭৩তম জন্মদিন ২২ আগস্ট

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বনলতা সেনের দেশ, রাণী ভবানী’র দেশ, মা শিরি’র দেশ নাটোরের কৃতি সন্তান হাসানুর রহমান-এর ৭৩তম জন্মদিন ২২ আগস্ট বৃহস্পতিবার। বাংলাদেশের নাটোর জেলার সিংড়া উপজেলার লাখোর গ্রামের দারোগা বাড়ির সুপরিচিত শিরি পরিবারে এইদিন শিশু সাহিত্যিক হাসানুর রহমানের জন্ম। হাসানুর রহমান লেখালেখি শুরু করেন কিশোর বয়স থেকে। তাঁর প্রথম প্রকাশিত লেখা ‘খোকার সাধ’ শিরোনামের কিশোর কবিতাটি প্রকাশিত হয় ১৯৫৯ সনের ২০ নভেম্বর ঢাকার দৈনিক ইত্তেফাকের ‘কচি-কাঁচার আসর’-এ। ষাটের দশক ছিল আজকের প্রবীণ শিশু সাহিত্যিক হাসানুর রহমানের লেখালেখির সোনালী যুগ। এই দশকের পুরোটা সময় তিনি শিশু-কিশোরদের জন্য প্রচুর লেখালেখি করেন। তাঁর এ যাবৎ প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ১৩টি। এগুলো হলো যথাক্রমে: ১. চুম্কি (ছড়া), ২. একাত্তরের কথা (স্মৃতি কাহিনী), ৩. বিবিজানের ডায়েরী (রম্য কাহিনী), ৪. ওরা ক’জনা মুক্তিসেনা (কীর্তিময় মুক্তিযোদ্ধার গল্প), ৫. আল্পিনাপিন্ (ছড়া), ৬. বরণীয়দের স্মরণীয় কিছু (১ম খন্ড), ৭. বরণীয়দের স্মরনীয় কিছু (২য় খন্ড), ৮. সোনা রঙ পাখি (উপকথা-রূপকথা), ৯. ক্যামেরা প্রিয় প্রধানমন্ত্রী (জীবনালেখ্য), ১০. নাটোরের বনলতা সেন (জেলা কাহিনী), ১১. দুধে-আল্তা (উপকথা-রূপকথ), ১২. তুতু বাবা (গল্প) ও ১৩. নিশি ভিলা।
একজন শিশু সংগঠক হিসাবে তিনি পরিচিত ছিলেন। বাংলাদেশের সম্ভ্রান্ত শিশু-কিশোর সংগঠন ‘কচি-কাঁচার আসর’-এর কর্মকান্ডেও জড়িত ছিলেন। ১৯৬২-৬৪ সনে কুষ্টিয়ায় থাকাকালীন সময়ে কুষ্টিয়া ‘ভোরের কচি-কাঁচার মেলা’ গঠন করে এর সর্বপ্রথম আহ্বায়ক(১৯৬২-৬৩) নির্বাচিত হন। অকাল প্রয়াত মা দৌলাতুন নেসা শিরি’র একমাত্র সন্তান হাসানুর রহমানের মমতাময়ী মায়ের স্মৃতিকে জাগিয়ে রাখতে ১৯৯২ সনের ২৮ ফেব্রæয়ারী বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা মহানগরীতে প্রতিষ্ঠা করেন শিশু সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠন-‘শিরি শিশু সাহিত্য কেন্দ্র’। পরবর্তীতে ১৯৯৮ সনের ৩১ মে সংগঠনের নিউইয়র্ক শাখা গঠিত হয়। প্রায় দুই যুগ ধরে তিনি আমেরিকার যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক মহানগরীতে প্রবাসী জীবন-যাপন করছেন। সৃজনশীল প্রতিভার স্বীকৃতিস্বরূপ এ যাবৎ হাসানুর রহমান পেয়েছেন বেশ কিছু পদক ও সম্মাননা। শিশু সাহিত্যিক হাসানুর রহমানকে আমরা জানাই ফুলেল শুভেচ্ছা ও গভীর ভালবাসা। লেখক: যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সিনিয়র সাংবাদিক।