ফের শীর্ষ ধনী রিয়াল

স্পোর্টস ডেস্ক : চ্যাম্পিয়নস লিগে শিরোপাধারী রিয়াল মাদ্রিদ ফিরে পেল ‘ডেলোয়েট মানি লিগে’র মুকুট। বিশ্বের ২০ ধনী ক্লাবের তালিকায় ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে হটিয়ে শীর্ষে উঠল স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ। তাদের রাজস্ব ৭৫ কোটি ৯ লাখ ইউরো (৬৬ কোটি ৫২ লাখ পাউন্ড)। শীর্ষ দুই ক্লাবের মধ্যে রাজস্বের তফাৎ ৬ কোটি ৫ লাখ ইউরো। শীর্ষ দুই ক্লাবের মধ্যে ব্যবধান অতীতে এর চেয়ে বেশি ছিল মাত্রই একবার। এক থেকে তিনে অবনমন হয়েছে ম্যানইউর। দ্বিতীয় স্থানটি দখল করেছে আরেক স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনা। ২০১৪-১৫ মৌসুমের পর এবারই প্রথমবারের মতো প্রথম ও দ্বিতীয় স্থান দখল করল স্পেনেরই দুটি ক্লাব। ২০১৭-১৮ মৌসুমের রাজস্ব আহরণের আলোকেই সর্বশেষ ‘ফুটবল মানি লিগ’ তালিকা তৈরি করেছে ডেলোয়েট। তাদের সমীক্ষা বলছে, শীর্ষ ২০ ক্লাবের রাজস্ব ৬ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৮৩০ কোটি ইউরো, যা নতুন এক রেকর্ড। এবার শীর্ষ ১০ ক্লাবের মধ্যে ছয়টিই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের, যা নতুন রেকর্ড।

ডেলোয়েটের ২২তম তালিকায় এবার রাজস্বকেই বিবেচনায় নেয়া হয়েছে, এখানে ক্লাবের ঋণকে অগ্রাহ্য করা হয়েছে।

রিয়ালের উল্লম্ফনের কারণ টানা তৃতীয়বারের মতো উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়। গত মে মাসে কিয়েভে লিভারপুলকে ৩-১ গোলে হারিয়ে নিজেদের ইতিহাসে ১৩তম ও টানা তৃতীয় ইউরোপিয়ান মুকুট জয় করে রিয়াল। এ সাফল্যই রাজস্ব বাড়িয়ে দেয় মাদ্রিদ জায়ান্টদের। এ নিয়ে ১২ বারের মতো তারা মানি লিগে শীর্ষস্থান দখল করল।

রাজস্বে রিয়ালের পরই রয়েছে বার্সেলোনা (৬১ কোটি ১৬ লাখ পাউন্ড), ম্যানইউ (৫৯ কোটি পাউন্ড), বায়ার্ন মিউনিখ (৫৫ কোটি ৭৪ লাখ পাউন্ড), ম্যানসিটি (৫০ কোটি ৩৫ লাখ পাউন্ড), পিএসজি (৪৭ কোটি ৯৯ লাখ পাউন্ড), লিভারপুল (৪৫ কোটি ৫১ লাখ পাউন্ড), চেলসি (৪৪ কোটি ৮০ লাখ পাউন্ড), আর্সেনাল (৩৮ কোটি ৯১ লাখ পাউন্ড) ও টটেনহাম (৩৭ কোটি ৯৪ লাখ পাউন্ড)।

শীর্ষ ২০ পূর্ণ করেছে ইতালির জুভেন্টাস, ইন্টার মিলান, এসি মিলান, এ এস রোমা; জার্মানির বরুশিয়া ডর্টমুন্ড, শালকে; স্পেনের অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ; ইংল্যান্ডের এভারটন, নিউক্যাসল ও ওয়েস্ট হাম।

রিয়ালের সাফল্য নিয়ে ডেলোয়েট স্পোর্টস বিজনেস গ্রæপের প্রধান ড্যান জোনস বলেন, ‘২০১৭-১৮ মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদের অসাধারণ আর্থিক সাফল্যের ভিত নিহিত তাদের সুদীর্ঘ ও সফল ইতিহাসেই, সর্বশেষ সফলতা টানা তিনটি উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা। এ সাফল্য তাদের বাণিজ্যিক রাজস্ব আহরণের বিরাট সুযোগ তৈরি করে দিয়েছে। তারা আর্থিকভাবে এখন অতীতের চেয়েও শক্তিশালী।’

ড্যান জোনস জানান, মানি লিগের শীর্ষ দশে থাকা দলগুলোর বেশির ভাগই চলতি মৌসুমে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলো রাউন্ডে উঠেছে। ফলে আগামী মৌসুমে তাদের রাজস্ব আরো বাড়তে পারে বলে পূর্বাভাস দেন তিনি। বিবিসি।