বঙ্গোপসাগরে সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

ঠিকানা অনলাইন : ভারতের তৈরি প্রথম পরমাণু শক্তিচালিত ডুবোজাহাজ (নিউক্লিয়ার সাবমেরিন) ‘আইএনএস অরিহন্ত’ থেকে পরমাণু অস্ত্রবহনে সক্ষম দুধরনের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে দেশটির নৌবাহিনী।

১৪ অক্টোবর (শুক্রবার) ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়ে বলা হয়, ‘দেশের পরমাণু প্রতিরক্ষার ক্ষেত্রে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।’

বঙ্গোপসাগরের গভীরে ‘অরিহন্ত’ থেকে ছোড়া ডুবোজাহাজ থেকে উৎক্ষেপণযোগ্য ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (সাবমেরিন লঞ্চড্‌ ব্যালিস্টিক মিসাইল বা এসএলবিএম) পূর্বনির্ধারিত নিশানায় নিখুঁতভাবে লক্ষ্যভেদে সফল হয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

তবে ‘প্রথমে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার না করার নীতি’র প্রতি ভারত এখনও দায়বদ্ধ বলে উল্লেখ করা হয়েছে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে।

ভারতীয় নৌবাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়, শুক্রবার অরিহন্ত ডুবোজাহাজ থেকে মাটি বা পানিতে থাকা লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম ৭৫০ কিলোমিটার পাল্লার কে-১৫ এবং সাড়ে ৩ হাজার কিলোমিটার পাল্লার কে-৪ ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালানো হয়েছে। দুটি ক্ষেপণাস্ত্রই পরমাণু অস্ত্রবাহী। এর ফলে ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে চীনা নৌবাহিনীকে মোকাবিলার ক্ষেত্রে অনেকটাই এগিয়ে গেল ভারতীয় নৌবাহিনী।

আইএনএস অরিহন্ত ভারতীয় নৌবাহিনীতে যুক্ত হয় ২০১৬ সালে। তার আগে দীর্ঘ ‘সি ট্রায়াল’ পর্বে সমুদ্রের তলদেশ থেকে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে প্রতিপক্ষের ওপর হামলা চালানোর মহড়াও সফলভাবে সম্পন্ন করেছিল এ ‘নিউক্লিয়ার সাবমেরিন’।

ঠিকানা/এসআর