বন্ধ হয়ে গেল বিবিসি আরবির রেডিও সম্প্রচার

ঠিকানা অনলাইন : বিবিসি আরবি’র সর্বশেষ সম্প্রচার শোনার সময় আমার চোখ দিয়ে পানি গড়িয়ে পড়ছিল। ৮৫ বছর সম্প্রচারের পর অবশেষে বন্ধ হয়ে গেলো বিবিসি আরবি’র রেডিও সম্প্রচার। এভাবেই নিজের দুঃখ ভারাক্রান্ত অনুভূতির কথা টুইটারে জানিয়েছেন বৃটিশ সাংবাদিক জিম মুইর। বিবিসি নিউজের এই মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক করেসপন্ডেন্ট বলেন, এই সম্প্রচার বন্ধের মধ্য দিয়ে একটি যুগের সমাপ্তি হলো।

আরব নিউজ জানিয়েছে, শুক্রবার রাতে বিবিসি আরবি’র রেডিও সম্প্রচার অফ এয়ারে চলে যায়। এর মাধ্যমে তার ৮৫ বছরের রেডিও সম্প্রচারের সমাপ্তি ঘটছে। বিবিসি আরবি ছিল বিবিসি এম্পায়ার সার্ভিসের প্রথম কোনো বিদেশি ভাষায় রেডিও সম্প্রচার। ১৯৩৮ সালের ৩রা জানুয়ারি এটি প্রথমবারের মতো প্রচারিত হয়েছিল। এই মাসের শুরুতেই আরবিভাষী নেটওয়ার্কটি এক ঘোষণায় জানিয়েছিল, বন্ধ করার লক্ষ্য নিয়ে এটি ধীরে ধীরে তার পরিষেবা হ্রাস করবে।
টুইটারে অসংখ্য সাংবাদিক এবং তারকারা এ নিয়ে দুঃখ জানিয়েছেন। অনেকেই আবার বিবিসি আরবির রেডিও স্টেশনে তাদের সুন্দর মুহূর্তগুলো শেয়ার করেছেন। অনেকেই বিশ্বাস করেন, রেডিও সেবা বন্ধ করার মধ্য দিয়ে বৃটেন তার সফট পাওয়ার হারাচ্ছে।

এর আগে দীর্ঘ ৮১ বছর চলার পর বন্ধ হয় বিবিসি বাংলার রেডিও সম্প্রচারও। তবে বিবিসি বাংলা এবং বিবিসি আরবির অনলাইন সেবা চালু থাকবে।
টুইটারে বিবিসি আরবির করেসপন্ডেন্ট স্যালি নাবিল লিখেছেন, এটি দুঃখ ও বেদনার অনুভূতির থেকেও বেশি কিছু। আমার কেমন অনুভব হচ্ছে তা ভাষায় ব্যাখ্যা করা সম্ভব নয়। জাতিসংঘে লেবাননের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি আমাল মুদালালি বলেন, বিবিসি আরবির সঙ্গে কাজ করা একজন হয়ে আমি বুঝতে পারি যে তারা কেনো এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই অঞ্চলে প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে মানুষ বৃটেনের এই একটি বিষয়কেই চিনেছে।

বিবিসি আরবির রেডিও সম্প্রচারের সর্বশেষ উপস্থাপক ছিলেন মাহমুদ আল-মুসালামি। তার সর্বশেষ কথা ছিল, ‘হুনা লন্ডন’ বা দিস ইজ লন্ডন। অনেকেরই চোখে পানি এনেছে এই মুহূর্তটি। মাহমুদের মেয়ে ওশা লিখেছেন, আমি আমার পিতার উপস্থাপনা শুনে বড় হয়েছি। আর আজ তিনি বিবিসি আরবির সর্বশেষ অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করছেন। এটা একটি যুগের সমাপ্তি।

বিবিসি নিউজ লিড টেকনিক্যাল অপারেটর জ্যাক মুনি একটি ফুটেজ শেয়ার করেছেন যেখানে রেডিওটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় শেষ মুহূর্তগুলি দেখানো হয়েছে। ফটোগ্রাফার আলী আল-বারুদি লিখেছেন, এটি একটি বেদনাদায়ক মুহূর্ত। ১৯৯০ এর দশকে অর্থনৈতিক অবরোধ এবং ইসলামিক স্টেটের উত্থানের সময় বিবিসি আরবি বিশ্বের কাছে এ অঞ্চলের খবর পৌঁছে দিয়েছিল। ইরাকজুড়ে কোনো বিদ্যুৎ ছিল না। আমার বাবা সেসময় রেডিও শুনতে ব্যাটারি জমা করে রাখতেন। বিবিসি সংবাদদাতা আমির নাদের আরবি রেডিওর চূড়ান্ত সম্প্রচারের শেষ দুই মিনিট শেয়ার করে লিখেছেন, আজ আরব মিডিয়ার জন্য একটি দুঃখজনক দিন।

উল্লেখ্য, বিবিসি আরবি রেডিও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ, ১৯৫৬ সালের সুয়েজ সংকট, আরব-ইসরায়েল যুদ্ধ, ফিলিস্তিনি আন্দোলন ও ইরাক আক্রমনের মতো আরব বিশ্বের অসংখ্য ঘটনা কাভার করেছিল। ২০২২ সালের সেপ্টেম্বরে খরচ কমানোর পরিকল্পনার অংশ হিসেবে বাংলা, আরবি, ফারসিসহ তার বেশ কয়েকটি বিদেশি ভাষা স্টেশন স্থগিত করার ঘোষণা দিয়েছিল। তখন তারা জানিয়েছিল, বৃটেন সরকারের নিয়মের অধীনে তারা এই পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হচ্ছেন। খরচ কমানোর এই পরিকল্পনায় বিশ্বজুড়ে বিবিসির বিভিন্ন অফিসে ৩৮২ জন লোক তাদের চাকরি হারাবেন। আর বেতন ও অফিস বন্ধ বাবদ এই সংস্থাটির প্রায় ৩৫ দশমিক তিন মিলিয়ন ডলার সাশ্রয় হবে।

ঠিকানা/এসআর