বাংলাদেশী আমেরিকান ফর পলিটিক্যাল প্রোগ্রেসের উদ্যোগে বিজয় উদযাপিত

বাংলাদেশী আমেরিকান ফর পলিটিক্যাল প্রোগ্রেস আয়োজিত বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন কাউন্সিলওম্যান শাহানা হানিফ

মুশরাত শাহীন: বাংলাদেশী আমেরিকান ফর পলিটিক্যাল প্রোগ্রেস- ব্যাপ এর উদ্যোগে শুক্রবার কুইন্সের জ্যামাইকায় উদযাপিত হয় মহান বিজয় দিবস। অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন ৬০ জনের বেশি কমিউনিটির সদস্যবৃন্দ। নয় মাস ব্যাপী মুক্তিযুদ্ধের অবসান ঘটিয়ে পাকিস্তানী সশস্ত্র বাহিনীর আত্মসমর্পনে দেশ হয়েছিল স্বাধীন। তারই ৫১ বছর পূর্তি দিবস পালন করা হয়।
অনুষ্ঠানটি শুরু হয় ব্যাপের রেকর্ডিং সেক্রেটারি এবং প্রাক্তন ডিস্ট্রিক্ট- ২৪ এর সিটি কাউন্সিল পদপ্রার্থী মৌমিতা আহমেদ বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত পরিবেশনার মধ্য দিয়ে। তার সাথে সবাই অংশ গ্রহণ করেন এবং সুর মেলান। অনুষ্ঠান আরও অংশ নেন ব্যাপের সহ সভাপতি নওরীন আক্তার। অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবার সাথে তিনি বর্তমান এক্সিকিউটিভ বোর্ডের সফলতার কথা তুলে ধরেন। তিনি যেসব বিষয় তুলে ধরেন এরমধ্যে ছিল-ব্যাপের সদস্যপদ দ্বিগুন করা, নিউ ইয়র্ক সিটি কাউন্সিলে প্রথম বাংলাদেশী আমেরিকানকে নির্বাচিত করতে সহায়তা করা, নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলের আসন পুন:বিন্যাস আলোচনায় অংশগ্রহণ করা, বাংলাদেশী আমেরিকান সংগঠনগুলোর একটি জোটকে ক্সতিরকারক হাউজ প্রস্তাবের বিরোধিতা করার নির্দেশ দেওয়া, যা সংশ্লিষ্ট দলগুলির সাথে পরামর্শ না করেই ১৯৭১ সালর নৃশংসতা ঘোষণা করার চেষ্টা করেছিল।
তিনি উপস্থিত অতিথিদের শুভেচ্ছা এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। সিটি কাউন্সিল সদস্য শাহানা হানিফ আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ব্যাপের মতো সংগঠনের অবদানের প্রয়োজনীয়তা অনেক গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন। অনুষ্ঠানে ছিল বিভিন্ন ধরণের খাবারের আয়োজন। এরমধ্যে মিষ্টিজাকীয় খাবার ছিল নজরকাড়া। এগুলো দেন বাংলাদেশী আমেরিকান বেকার নাজিয়া নূর এবং লুলু’স বেকারি. কাস্টম আর্টওয়ার্ক ছিল জাবিন আহমেদের সৌজন্যে।