বাইডেনের জন্য অশনিসংকেত

ঠিকানা রিপোর্ট : ২০১৬ সালের নির্বাচনে অরাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ডোনাল্ড ট্রাম্পের নিকট প্রথিতযশা রাজনীতিবিদ, সাবেক ফার্স্ট লেডি, সিনেটর হিলারি রডহাম ক্লিনটনের পপুলার এবং ইলেক্টোরাল ভোটে পরাজয়, বিশ্ববাসীকে জানিয়ে দিয়েছে যে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে অদ্যাবধি কোনো মহিলাকে কমান্ডার-ইন-চিফ বা প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করার অনুকূলীয় পরিবেশে গড়ে ওঠেনি। সেই দৃষ্টিকোণ থেকে অনেকটাই হলফ করে বলা যায়, ২০২০ সালেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটলে ডেমক্র্যাটদের পরাজয় অবধারিত।

যা হোক, ১০ সেপ্টেম্বর সর্বশেষ প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, সময়ের অগ্রযাত্রায় ডেমক্র্যাটিক দলের মনোনয়নপ্রত্যাশী ও সেরা প্রতিদ্ব›দ্বী সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জনপ্রিয়তানির্ধারক পারদের পাঠ ক্রমেই নিম্নগামী হচ্ছে। অন্যদিকে এলিজাবেথ ওয়ারেনের জনপ্রিয়তানির্ধারক নাটকীয়ভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এবিসি নিউজস/ওয়াশিংটন পোস্টের প্রকাশিত জরিপ প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, জুলাই মাসে ডেমক্র্যাটদের মাঝে ১২ মিলিয়ন ডলারের মালিক ম্যাসাচুসেটসের প্রবীণ সিনেটর ওয়ারেনের সমর্থনের হার ছিল ১১ শতাংশ। আর বর্তমানে ডেমক্র্যাটদের মাঝে ওয়ারেনের সমর্থনের হার নাটকীয়ভাবে বৃদ্ধি পেয়ে ১৭ শতাংশ হয়েছে। অন্যদিকে সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জনপ্রিয়তা জুনের শেষ সপ্তাহে ৩২ শতাংশ থাকলে জুলাইতে তা ২৯ শতাংশে এবং বর্তমানে আরও ২ পয়েন্ট কমে ২৭ শতাংশ হয়েছে। এদিকে ৭ সেপ্টেম্বর নিউ হ্যাম্পশায়ার ডেমক্র্যাটিক কনভেনশনে ওয়ারেন ডেমক্র্যাটিক প্রাইমারিতে ভোটারদের সমর্থন চাইলে সমবেত জনতা স্বতঃস্ফ‚র্তভাবে তার আহ্বানে সাড়া দেন বলে জানা যায়।

ওয়ারেন বলেন, আমাদের সামনে অসংখ্য বাধা-বিপত্তি রয়েছে এবং লাখ লাখ লোক আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। তিনি বলেন, আমরা এমন কোনো লোককে ভোট দিতে কিংবা তার জন্য ভোট চাইতে পারি না, যাকে আমরা বিশ্বাস করি না। ওয়ারেন বলেন, প্রকৃত প্রস্তাবে আমরা আতঙ্কে দিন গুজরান করছি।

গোদের ওপর বিষফোড়া : অবশ্য ইতিমধ্যে ৬২ বছর বয়সী সাবেক হিজ ফান্ড ম্যানেজার ঐশ্বর্যশালী পরহিতব্রতী (বিলিয়নার ফিলানথ্রপিস্ট) টম স্টিয়ার ৯ জুলাই নির্বাচনে অবতীর্ণ হওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর ৪টি জনজরিপে ১ লাখ ৩০ হাজার ডোনার এবং জাতীয় পর্যায়ে ২ শতাংশ ভোটারের সমর্থন জোগাড় করে সম্ভাব্য শীর্ষ প্রার্থীদের শিরঃপীড়ার কারণ হয়ে পড়েছেন। ব্যক্তিগত তহবিল থেকে নিড টু ইমপিচ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জনদরদি স্টিয়ার মোটা অঙ্কের অর্থ ব্যয়ে বিগত ২ বছর ধরে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক বিজ্ঞাপন দিয়ে ডেমক্র্যাটদের অন্তরে সাড়া জাগাতে সক্ষম হয়েছেন এবং ১২ ও ১৩ সেপ্টেম্বর হিউস্টন এবং ১৫ অক্টোবর ওহাইতে অনুষ্ঠিতব্য ডেমক্র্যাটিক কনভেনশন কমিটি আয়োজিত ডিবেটে অংশ নেওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছেন। ১.৬ বিলিয়ন ডলারের মালিক স্টিয়ারের প্রতি নেভাদার ডেমক্র্যাটদের ১১ শতাংশ ইতিমধ্যে সমর্থন জানিয়েছেন বলে সিবিএস এবং ইউগভ সূত্রে জানা গেছে।

কৃষ্ণকায়দের প্রতি বাইডেনের আহ্বান : জো বাইডেন নিজেকে কৃষ্ণকায়দের একান্ত কাছের মানুষ হিসেবে দাবি করেছেন। বাইডেন বলেন, প্রথম আফ্রিকান-আমেরিকান বারাক ওবামার দক্ষিণহস্ত হিসেবে আমি ৮ বছর দায়িত্ব পালন করেছি এবং কৃষ্ণকায়দের সঙ্গে আমার একটি আত্মিক সম্পর্ক গড়ে উঠেছে। বাইডেন বলেন, কৃষ্ণকায় কমিউনিটির সঙ্গে কাজ করতে আমি অত্যন্ত স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি এবং কৃষ্ণকায়দের কল্যাণে কিছু করতে পারলে নিজকে ধন্য মনে করবেন। ৭৬ বছর বয়সী বাইডেন আরও বলেন, আমি জীবনে কোনো পরিস্থিতিতে এবং কোনো অবস্থায় কৃষ্ণকায়দের সঙ্গে কাজ করতে অস্বস্তি বোধ করিনি। যা হোক, কৃষ্ণকায় প্রতিদ্ব›দ্বী ক্যালিফোর্নিয়ার ডেমক্র্যাটিক সিনেটর কামালা হ্যারিস এবং নিউজার্সির ডেমক্র্যাটিক সিনেটর কর বুকারকে ডিঙিয়ে বাইডেন কৃষ্ণকায় ভোটারদের সমর্থন কতটুকু আদায় করতে সক্ষম হবেন, তা নিয়ে রাজনৈতিক বিদগ্ধজনেরা সন্দিহান।