বিএসিসি একটি অন্যন্য প্রগতিশীল সংগঠন

ঠিকানা রিপোর্ট: নিউইয়র্কে বাংলাদেশী অধ্যূষিত এলাকাগুলোর মধ্যে ব্রঙ্কস অন্যতম। এখন ব্রঙ্কসে প্রচুর বাংলাদেশীর বসবাস। যে এলাকাতে বাংলাদেশী রয়েছেন, সেই এলাকাতেই সংগঠন রয়েছে। ব্রঙ্কসে প্রবাসী বাংলাদেশীদের স্বার্থে প্রতিষ্ঠা করা হয় বাংলাদেশী আমেরিকান কম্যুনিটি কাউন্সিল (বিএসিসি)। ব্রঙ্কস এবং নিউইয়র্ক প্রবাসী বাংলাদেশী কম্যুনিটির পরিচিত মুখ এবং বাংলাদেশীদের স্বার্থ রক্ষায় নিবেদিত প্রাণ সংগঠন আইন বিশেষজ্ঞ মোহাম্মদ এন মজুমদার, নজরুল হক এবং আব্দুল গাফ্ফার চৌধুরী খসরুর নেতৃত্বে এই সংগঠন প্রতিষ্ঠা করা হয়। সংগঠনটি প্রতিষ্ঠার জন্য প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয় কম্যুনিটি লিডার নজরুল হকের বাসায়। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই সংগঠনিক সামাজিক কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত থেকে আজ অনুকরণীয় সংগঠনে পরিণত হয়েছে। ২০১৬ সালে বর্ণবাদ বিরোধী র‌্যালি, পথ সভা ও প্রতিবাদ সভার মাধ্যমে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। এ ছাড়াও বাংলাদেশে গার্মেন্টস শ্রমিকদের অধিকার আদায়, রোহিঙ্গা হত্যার বিচার, পুনর্বাসন আন্দোলনে বিএসিসির ভূমিকা ছিলো অনন্য। অন্যদিকে এই সংগঠনের উদ্যোগে ইন্টাপেইথ ইফতার, মুৃসল্লীদের মঝে ইফতার বিতরণ করে সকল ধর্ম- বর্ণের মানুষের কাছে সৌহার্দ্য সম্প্রীতির এক অনন্য নজির স্থাপন করেছে। বিভিন্ন ইস্যুতে সভা, সেমিনার ও আন্দোলনের মাধ্যমে প্রবাসী বাংলাদেশীদের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে বিএসসিস। বিএসিসি এবং মজুমদার ফাউন্ডেশন পরিচালিত নিউ ইমিগ্র্যান্ট ওয়েলকাম সেন্টার নবাগতদের হাউজিং, শিক্ষা, চাকরি সংক্রান্ত তথ্যে প্রদানের মাধ্যমে প্রবাসী বাংলাদেশীদের পাশে দাঁড়িয়েছে। ২০০৫ সাল থেকে অদ্যাবধি প্রতি শনিবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত তারা কাজ করে যাচ্ছেন। এতে করে হাউজিং এক্সিকেশন, হেইট ক্রাইমবিরোধী প্রচারণা এবং ক্রাইম ভিকটিমদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে আসছে।
মানব কল্যাণে প্রতিষ্ঠি বিএসিসি’র বর্তমানে ১৫ সদস্য বিশিষ্ট এক্সিকিউটিভ কমিটি রয়েছে। প্রেসিডেন্ট হিসাবে রয়েছেন আইনজীবী মোহাম্মদ এন মজুমদার, সাধারণ সম্পাদক নজরুল হক, এক্সিকিউটিভ ভাইস চেয়ার শাখাওয়াত আলী, বোর্ড অব ডিরেক্টর এবং অন্যান্য বিভাগে দায়িত্বে রয়েছেন আব্দুল গাফ্ফার চৌধুরী খসরু, আলমাস আলী, মনঞ্জুর চৌধুরী জগলু, শেখ আল মামুন, সুফিয়ান চৌধুরী, সারোয়ার চৌধুরী, আকসাদ আলী, নূর উদ্দিন, জাকি চৌধুরী, এ ইসলাম মামুন, মোহাম্মদ ফয়সল ও আম্বিয়া আক্তার। বিভিন্ন কমিটিতে আরো রয়েছেন-আলমাস আলী, আব্দুল চৌধুরী জাকি, শিক্ষক শেখ আল মামুন।
এ ছাড়াও বোর্ড অব ট্রাস্টি হিসাবে রয়েছেন তোফায়েল চৌধুরী, আব্দুর রহিম বাদশা, হাসান আলী, ডা. মিতা চৌধুরী ও হারুণ আলী।