বিপার বিজয় উৎসব ১৬-১৭ ডিসেম্বর

নিউইয়র্ক : বিপার অনুষ্ঠানে অতিথি ও বিপার কর্মকর্তাবৃন্দ।

ঠিকানা রিপোর্ট : বাংলাদেশি ইন্সটিটিউট অব পারফর্মিং আর্টস (বিপা)- এর উদ্যোগে জাঁকজকমপূর্ণ আয়োজনে উদযাপন করা হবে বাংলাদেশের বিজয় দিবস। জ্যামাইকার পারফর্মিং আর্টস সেন্টারে আগামী ১৬ ডিসেম্বর রাত ৮টায় এবং ১৭ ডিসেম্বর অনুষ্ঠান শুরু হবে বিকেলে ৫টায়। দুইদিনব্যাপী কালচারাল অনুষ্ঠানে থাকবে পদক ও সনদপত্র বিতরণ। সেই সাথে থাকবে সাংস্কৃৃতিক অনুষ্ঠান। বিপা’র শিল্পীরা এতে অংশ নিবেন। ইতোমধ্যে এই আয়োজনের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন তারা। দুই দিনের এই বিজয় উৎসব অনুষ্ঠানের সাপোর্ট করছে নিউইয়র্ক সিটি ডিপার্টমেন্ট অব কালচারাল অ্যাফেয়ার্স। ১৬ ডিসেম্বর কনসার্ট সিরিজ জলসা অনুষ্ঠানে বাংলার গায়েনের ইউএসএ টপ টেন শিল্পীদের কয়েকজন অংশ নিবেন। এই পর্বটি অনুষ্ঠিত হবে রাত নয়টায়। থাকবেন জেরিন মাইশা, আলভান চৌধুরী ও সামিয়া ইসলাম। এই প্রোগ্রামের সহায়তা করছে নিউইয়র্ক সিটি ডিপার্টমেন্ট অব কালচারাল অ্যাফেয়ার্স ইন পার্টনারশিপ ইউথ দ্য সিটি কাউন্সিল মেম্বার।
১৭ ডিসেম্বর বিপা’র পরিবেশনায় পরিবেশিত হবে ব্লকেড। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় যুক্তরাষ্ট্র থেকে পাকিস্তানে অস্ত্রের চালান বন্ধ করার জন্য অহিংস পদক্ষেপের গল্প ব্লকেড। এটি প্রযোজনা করেছেন আরিফ ইউসুফ, এডিটেড বাই তাসবীর ইমাম, মিউজিক সুজান বিন ওয়াদুদ, উইথ রাশেদ মামুন পল্লব ও মৃদুল চৌধুরী।
এদিকে বিপার উদ্যোগে ১৯ নভেম্বর সন্ধ্যা সাতটায় উডসাইডে পিএস-১২ এ অনুষ্ঠিত হয় কনসার্ট সিরিজ জলসার অংশ হিসাবে বিপার গানের জলসা। ‘তোমায় গান শোনাবো’ শিরোনামে এই গানের জলসাতে রবীন্দ্র সংগীত পরিবেশন করেন সুপ্রিয়া চৌধুরী। আর আবৃত্তি করেন গোপন সাহা। দু’জনের পরিবেশনাই শ্রোতাদেরকে মুগ্ধ করে।
এদিকে ১৮ নভেম্বর দুপুরে ব্রুকলিনের হোমক্রেস্ট লাইব্রেরিতে বাংলাদেশি সংস্কৃতি উপস্থাপনার অংশ হিসাবে সেখানে বিপার শিল্পীরা গান ও নৃত্য পরিবেশন করেন। সেখানে বিপা’র শিল্পীরা বাংলাদেশের সংস্কৃতি তুলে ধরেন।
এদিকে ১৯ নভেম্বর শনিবার ‘সেলিব্রেটিং ল্যাংগুয়েজ এন্ড কালচার এমপাওয়ারিং কমিউনিটি ভয়েস’ শিরোনামে বেলা দুপুর ২টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত ব্রুকলিন লাইব্রেরির কোর্টেলিও শাখায় কমিউনিটি হলের মেইন রুমে একটি অনুষ্ঠান হয়। বেলা সাড়ে তিনটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত এখানে বাংলাদেশি ইন্সটিটিউট অব পারফর্মিং আর্টসের পরিবেশনা ছিল। সাউথ এশিয়ান সংস্কৃতি তুলে ধরতে আরো অংশ নেয় হিমালয়ান ল্যাংগুয়েজ এন্ড কালচারাল প্রোগ্রাম। সেখানে নেপাল ও বাংলাদেশ সাংস্কৃৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেয়। বাংলাদেশের সংস্কৃতি তুলে ধরতে বিপার শিল্পীরা নৃত্য পরিবেশন করেন। ব্রুকলিন পাবলিক লাইব্রেরি ও ব্রুকলিন ইনকিউবেটর অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এদিকে ২০ নভেম্বর বিকেল তিনটা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত পিএস ১২ এর অডোটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় জয়িতা নাসরীন চৌধুরীর সম্মানে একজন নারীর সাফল্যের গল্প নিয়ে অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশি লেডিস ক্লাব আর অনুষ্ঠানে সহায়তা করে বিপা। অনুষ্ঠানে ছিল গল্প, কবিতা, গান আর ভালবাসার অঞ্জলি।