বিশ্বের দুর্বল পাসপোর্টের ৯ম স্থানে বাংলাদেশ, সবচেয়ে শক্তিশালী অবস্থানে জাপান

বৈশ্বিক পাসপোর্ট সূচক

ঠিকানা অনলাইন : যুক্তরাজ্যভিত্তিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ‘হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্সের’ করা ২০২২ সালের তৃতীয় সংস্করণে বিশ্বের ৯ম দুর্বল পাসপোর্টের তকমা পেয়েছে বাংলাদেশের পাসপোর্ট। ১৯ জুলাই (মঙ্গলবার) বিশ্বের ১৯৯টি দেশের পাসপোর্ট সূচক প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ এই পরামর্শক প্রতিষ্ঠান। সর্বশেষ এই সূচকে শক্তিশালী পাসপোর্টের তালিকায় বাংলাদেশের সঙ্গে যৌথভাবে ১০৪তম অবস্থানে রয়েছে কসোভো ও লিবিয়া।

যদিও বৈশ্বিক পাসপোর্ট সূচকে চলতি বছরের জানুয়ারিতে কসোভো এবং লিবিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে ১০৩তম অবস্থানে ছিল বাংলাদেশ। তার আগে ২০২১ সালের অক্টোবরে এই সূচকে ১০৮তম অবস্থানে থাকলেও জানুয়ারিতে ৫ ধাপ উন্নতি ঘটে বাংলাদেশের পাসপোর্টের। এর ফলে সেই সময় শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে ১০৩তম স্থানে উঠে আসে বাংলাদেশ।

তিন মাসের ব্যবধানে এই সূচকে বাংলাদেশের এক ধাপ অবনতি ঘটে গত এপ্রিলে। মঙ্গলবার হ্যানলির চলতি বছরের তৃতীয় সংস্করণের প্রকাশিত সূচক অনুযায়ী, বাংলাদেশের পাসপোর্ট দিয়ে বিশ্বের ২২৭টি গন্তব্যের মধ্যে বর্তমানে ৪১টিতে ভিসা ছাড়া কিংবা অন অ্যারাইভাল ভিসায় ভ্রমণ করা যায়। এই সূচকে ১১২টি স্থানের মধ্যে বাংলাদেশকে ১০৪তম অবস্থানে রাখা হয়েছে। কসোভো এবং লিবিয়াও একই অবস্থানে রয়েছে। চলতি বছরের এপ্রিলে প্রকাশিত সূচকের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিক সংস্করণেও একই অবস্থানে ছিল বাংলাদেশ।

সূচক অনুযায়ী, বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীরা ৪১টি গন্তব্যে ভিসা ছাড়াই ভ্রমণ করতে পারেন। এসব গন্তব্যের ১৬টি আফ্রিকায়, ১১টি ক্যারিবীয় অঞ্চলে, সাতটি ওশেনিয়ায় (অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড বাদে), ছয়টি এশিয়ায় এবং একটি দক্ষিণ আমেরিকায়।

বাংলাদেশি পাসপোর্ট ব্যবহার করে আগাম ভিসা ছাড়া ইউরোপের কোনও দেশে ভ্রমণ করা সম্ভব নয়। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে মালদ্বীপের পাসপোর্ট (৬৩তম)। মালদ্বীপের পাসপোর্টধারীরা ভিসা ছাড়াই ৮৯টি দেশে ভ্রমণ করতে পারেন। এরপরই আছে ভারত (৮৭তম), ভুটান (৯৩তম) এবং শ্রীলঙ্কা (১০৩তম)।

দক্ষিণ এশিয়ায় পঞ্চম অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। সূচক অনুযায়ী, এই অঞ্চলে নেপাল (১০৬তম), পাকিস্তানের (১০৯তম) চেয়ে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ।

বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্টের ১০ দেশ
১. জাপান
২. সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া (যৌথভাবে)
৩. জার্মানি, স্পেন
৪ ফিনল্যান্ড, ইতালি লুক্সেমবার্গ
৫. অস্ট্রিয়া, ডেনমার্ক, নেদারল্যান্ডস, সুইডেন
৬. ফ্রান্স, আইসল্যান্ড, পর্তুগাল, যুক্তরাজ্য
৭. বেলজিয়াম, নিউজিল্যান্ড, নরওয়ে, সুইজারল্যান্ড, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
৮. অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, চেক প্রজাতন্ত্র, গ্রিস, মাল্টা
৯. হাঙ্গেরি
১০. লিথুয়ানিয়া, পোল্যান্ড, স্লোভাকিয়া

বিশ্বের সবচেয়ে দুর্বল ১০ দেশের পাসপোর্ট
১. আফগানিস্তান
২. ইরাক
৩. সিরিয়া
৪. পাকিস্তান
৫. ইয়েমেন
৬. সোমালিয়া
৭. নেপাল, ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড
৮. উত্তর কোরিয়া
৯. বাংলাদেশ, কসোভো, লিবিয়া
১০. কঙ্গো, লেবানন, শ্রীলঙ্কা, সুদান

কোন দেশের পাসপোর্ট দিয়ে কত দেশে ভিসা ছাড়া বা অন অ্যারাইভাল ভিসায় প্রবেশ করা যায়, ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট অথরিটির তথ্যের ভিত্তিতে শক্তিশালী পাসপোর্টের এই সূচক তৈরি করে দ্য হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্স। বিশ্বের ১৯৯ দেশের সূচকে কিছু কিছু দেশ যৌথ অবস্থান পাওয়ায় হেনলি মোট ১১২টি অবস্থান নির্ধারণ করেছে।

গত ১৭ বছর ধরে বিশ্বের কোন দেশের পাসপোর্ট কতটা শক্তিশালী তা নিয়ে প্রত্যেক বছর প্রতিষ্ঠানটি র‍্যাংকিং প্রকাশ করে আসছে। প্রতি তিন মাস অন্তর এই সূচক প্রকাশ করা হয়।

হ্যানলি এবারের এই সূচকে শীর্ষে থাকা জাপানের পাসপোর্টধারীরা ১৯৩টি দেশে ভিসা ছাড়া অথবা অন-অ্যারাইভাল ভিসায় প্রবেশ করতে পারেন। হ্যানলির ২০২২ সালের তৃতীয় সংস্করণের পাসপোর্ট সূচকে সিঙ্গাপুর এবং দক্ষিণ কোরিয়া যৌথভাবে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। এই দুই দেশের পাসপোর্টধারীরা বিশ্বের ১৯২টি দেশে ভিসা ছাড়া ভ্রমণ করতে পারেন।

তবে জুনের এই পাসপোর্ট সূচকে একেবারে তলানিতে রয়েছে আফগানিস্তান (১১২তম)। যুদ্ধবিধ্বস্ত এই দেশটির পাসপোর্টধারীরা মাত্র ২৭টি দেশে ভিসা ছাড়া প্রবেশ করতে পারেন।

ঠিকানা/এসআর