ব্রঙ্কসের পার্কচেষ্টার জামে মসজিদের নতুন কমিটির পরিচিতি সভা ও দোয়া মাহফিল

নিউইয়র্ক : বাঙালি অধ্যুষিত ব্রঙ্কসের প্রাচীনতম মসজিদ পার্কচেস্টার জামে মসজিদের নবনির্বাচিত কমিটির পরিচিতি সভা ও দোয়া মাহফিল গত ২৪ জুলাই অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাধারণ সম্পাদক আম্বিয়া মিয়ার পরিচালনা এবং সভাপতি মোস্তাক আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মসজিদের কার্যকরী কমিটি ও ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্যরা বক্তব্য রাখেন। নতুন কমিটিকে পরিচয় করিয়ে দেন ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য সচিব সিরাজ উদ্দিন আহমদ সোহাগ। মসজিদের ভারপ্রাপ্ত ইমাম ও খতিব এবং পার্কচেস্টার জামিয়া মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা মো. মাসহুদ ইকবাল দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন।
নতুন কমিটির কর্মকর্তারা হলেন : মোস্তাক আহমদ চৌধুরী (সভাপতি); হারুন আলী ও মো. আব্দুল মতিন (সহ-সভাপতি); আম্বিয়া মিয়া (সাধারণ সম্পাদক); শেখ মজনু মিয়া (সহ-সাধারণ সম্পাদক); মাজলুল আহমেদ (কোষাধ্যক্ষ); আব্দুস শহিদ (সহ-কোষাধ্যক্ষ); মোহাম্মদ রেজাউল ইসলাম (কালচারাল সেক্রেটারি); মো. নুরুল আহিয়া (ফিউনারেল সেক্রেটারি); মো. ফটিক মিয়া (মেইনটেন্যান্স সেক্রেটারি); মো. আব্দুল গফুর (এডুকেশন সেক্রেটারি)। কার্যকরী সদস্য : সোহান আহমদ, তারেক আহমদ, কামরুল হাসান ও মোহাম্মদ রুখান খান।
উল্লেখ্য, নবনির্বাচিত সভাপতি মোস্তাক আহমদ চৌধুরী এবং সাধারণ সম্পাদক আম্বিয়া মিয়া বিদায়ী কমিটির সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।
পরিচিতি শেষে মসজিদের সার্বিক উন্নয়নে বিশেষ অবদান রাখার জন্য কয়েকজন কর্মকর্তাকে ক্রেস্ট প্রদান করে সম্মাননা জানান হয়। কার্যকরী সদস্য সোহান আহমদ টুটুলের পরিচালায় এ পর্বে নবনির্বাচিত সভাপতি মোস্তাক আহমদ চৌধুরীর হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন ট্রাস্টি বোর্ড চেয়ারম্যান আবু বকর চৌধুরী। সাধারণ সম্পাদক আম্বিয়া মিয়াকে মসজিদের উন্নয়ন ও মসজিদের বাইরে আজান প্রচারে ভূমিকা রাখার জন্য দু’টি ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। ট্রাস্টি বোর্ড চেয়ারম্যান আবু বকর চৌধুরী এবং মসজিদের ভারপ্রাপ্ত ইমাম ও খতিব মাওলানা মো. মাসহুদ ইকবাল ক্রেস্ট দু’টি তার হাতে তুলে দেন।
মসজিদের কোষাধ্যক্ষ মাজলুল আহমেদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন ট্রাস্টি বোর্ড সদস্য অ্যাডভোকেট এমডি আলাউদ্দিন আহমেদ।
পরে নবনির্বাচিত কমিটির সাফল্য, দেশ, জাতি ও বিশ্ব মানবতার শান্তি কামনায় বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করেন মসজিদের ভারপ্রাপ্ত ইমাম ও খতিব মাওলানা মো. মাসহুদ ইকবাল।
এ সময় মাওলানা মো. মাসহুদ ইকবাল মসজিদের কল্যাণে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।
নবনির্বাচিত সভাপতি মোস্তাক আহমদ চৌধুরী তার বক্তব্যে নির্বাচন কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।
তিনি জানান, মসজিদের গঠনতন্ত্র মোতাবেক নবনির্বাচিত কমিটি কার্যকরী পরিষদের ১৫টি পদের মধ্যে মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়া এডুকেশন সেক্রেটারি পদে কার্যকরী সদস্য মো. আব্দুল গফুরকে এবং কার্যকরী সদস্য হিসেবে মোহাম্মদ রুখান খানকে কোঅপ্ট করে নেয়া হয়। মোস্তাক আহমদ চৌধুরী মসজিদের সার্বিক উন্নয়নের পাশাপাশি পার্কচেস্টার জামিয়া মাদ্রাসাকে পূর্ণাঙ্গ মাদ্রাসা হিসেবে গড়া তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক আম্বিয়া মিয়া মসজিদে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য নির্বাচন কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, আগামী দু’বছরের জন্য আমাদের ওপর অর্পিত পবিত্র দায়িত্ব আমরা যথাযথভাবে পালন করবো ইনশা আল্লাহ।
উল্লেখ্য, বহুল আলোচিত পার্কচেস্টার জামে মসজিদের নির্বাচনী ফলাফল মসজিদের নির্বাচন কমিশন গত ২১ মার্চ সন্ধ্যায় এক সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণা করে। পার্কচেস্টার জামে মসজিদের প্রধান নির্বাচন কমিশনার আহবাব চৌধুরী কমিশনার আজিজুল করিমের অফিসে অনুষ্ঠিত ওই সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা করেন। ফলাফল ঘোষণাকালে উপস্থিত ছিলেনÑ নির্বাচন কমিশনের সদস্য আজিজুল করিম, মাহিদুল ইসলাম, সালেহ আহমদ ও মনসুরুল হাসান।
মসজিদের নবনির্বাচিত কমিটির শপথ অনুষ্ঠিত হয় গত ২১ মার্চ রাতে। মসজিদের সাবেক ইমাম ও খতিব মাওলানা মোহাম্মদ মঈনুল ইসলাম ওইদিন রাতে মসজিদে এ শপথ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন।

মিশিগানে বেকাররা এখন সপ্তাহে ৩৬২ ডলার পাবেন
ঠিকানা ডেস্ক : মিশিগানে গত ১৫ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত ২১ লাখ মানুষ রাজ্য ও ফেডারেল সুবিধার জন্য আবেদন করেছেন। ছবি: মিশিগানের সরকারি ওয়েবসাইট থেকে নেওয়াআমেরিকার মিশিগান অঙ্গরাজ্যে বেকারদের জন্য দেওয়া প্রতি সপ্তাহে দেওয়া ৬০০ ডলার করে ফেডারেল বেনিফিট কার্যক্রম ২৬ জুলাই থেকে বন্ধ হয়ে গেছে। তবে কর্মহীনদের সপ্তাহে ৩৬২ ডলার করে বেকার ভাতা দেওয়া অব্যাহত থাকবে বলে ঘোষণা দিয়েছে মিশিগান বেকার বিমা সংস্থা।
ফেডারেল প্যান্ডেমিক বেকারত্ব ক্ষতিপূরণ (পিইউসি) প্রোগ্রাম যা বেকারদের প্রতি সপ্তাহে অতিরিক্ত ৬০০ ডলার দিয়ে সাহায্য করা হতো তা ২৬ জুলাই থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে পড়েছে। মিশিগান বেকার বিমা সংস্থা সূত্রে জানা গেছে, ফেডারেল প্যান্ডেমিক বেকারত্ব ক্ষতিপূরণ বাবদ ১৯ বিলিয়ন ডলার অর্থ ইতিমধ্যে মিশিগানের বেকারদের দেওয়া হয়েছে। রাজ্যে গত ১৫ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত ২১ লাখ মানুষ রাজ্য ও ফেডারেল সুবিধার জন্য আবেদন করেছেন। আর ২০ লাখ মানুষকে ১৯ বিলিয়ন ডলার বেনিফিট দেওয়া হয়েছে।