ব্রিটিশ নাগরিকত্ব ফিরে পেলেন ৩ বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত

ব্রিটিশ পাসপোর্ট -ফাইল ছবি

নতুন মোড় নিতে পারে আইএস বধূ শামীমা বেগমের নাগরিকত্বের মামলা

ঠিকানা অনলাইন : বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত দুই নারীসহ তিনজন ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিলের বিরুদ্ধে আপিল করে জয় পেয়েছেন। এই তিন জনই ব্রিটেন থেকে সিরিয়ায় পালিয়ে গিয়ে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটে (আইএস) যোগ দিয়েছিলেন। এখন তারা নাগরিকত্ব ফিরে পাওয়ায় আলোচিত আরেক ব্রিটিশ বাংলাদেশি আইএস বধূ শামীমা বেগমের নাগরিকত্বের মামলা নতুন মোড় নিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

দ্য গার্ডিয়ানের এক খবরে বলা হয়েছে, আপিলে নাগরিকত্ব ফিরে পাওয়া তিন জনের দুই নারী জন্মসূত্রে ব্রিটিশ নাগরিক। ২০১৯ সালের নভেম্বরে জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি বিবেচনায় তাদের নাগরিকত্ব বাতিল করে ব্রিটেনের একটি আদালত। অপর পুরুষ ব্রিটিশ-বাংলাদেশির নাগরিকত্ব বাতিল করা হয় গত বছরের মার্চ মাসে। তবে এদের কারোরই নাম ও পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি।

ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে এই তিন জন গত বছরের নভেম্বরে ব্রিটেনের স্পেশাল ইমিগ্রেশন আপিল কমিশনে (এসআইএসি) আবেদন করেন।

শুনানিতে ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র দপ্তরের আইনজীবীরা দাবি করেন, এই তিন জনেরই বাংলাদেশের দ্বৈত নাগরিকত্ব থাকায় ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিল হলেও তারা রাষ্ট্রহীন হয়ে পড়বে না। কিন্তু তিন ব্রিটিশ বাংলাদেশির আইনজীবীরা আদালতকে জানান, ২১ বছর বয়স হলেই তারা বাংলাদেশের নাগরিকত্ব হারাবেন।

শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার রায় দেয় ব্রিটেনের আপিল আদালত। ঐ রায়ে বলা হয় ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিল হলে তারা রাষ্ট্রহীন হয়ে পড়বে। ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই আদেশ দেওয়ার ক্ষমতা নেই।

ঠিকানা/এসআর